আইএসআইয়ের সঙ্গে খন্দকার মোশাররফের ফোনালাপ ফাঁস | daily-sun.com

আইএসআইয়ের সঙ্গে খন্দকার মোশাররফের ফোনালাপ ফাঁস

ডেইলি সান অনলাইন     ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১১:১৬ টাprinter

আইএসআইয়ের সঙ্গে খন্দকার মোশাররফের ফোনালাপ ফাঁস

বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য কুমিল্লা-১ ও ২ আসনে দলের প্রার্থী খন্দকার মোশাররফ হোসেনের সঙ্গে আইএসআই এজেন্টের ফোনালাপের ঘটনায় থানায় রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ করা হয়েছে।

 

অভিযোগটি করেছেন কুমিল্লা-১ আসনে খন্দকার মোশাররফের প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ প্রার্থী মেজর জেনারেল (অব.) সুবিদ আলী ভূঁইয়ার ছেলে ও দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মেজর (অব.) মোহাম্মদ আলী সুমন।

বুধবার রাতে দাউদকান্দি মডেল থানায় এ অভিযোগ করা হয়। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অভিযোগটি গ্রহণ করেন।

 

অভিযোগে বলা হয়, ড. খন্দকার মোশাররফ (৭৩), পিতা মৃত খন্দকার আশরাফ হোসেন পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের সঙ্গে কথা বলে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে ষড়যন্ত্র করছেন। এটি রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল।

 

প্রসঙ্গত খন্দকার মোশাররফের সঙ্গে আইএসআই এজেন্টে কথোপকথনের একটি অডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। থাইল্যান্ডভিত্তিক নিউজ পোর্টাল এশিয়ান ট্রিবিউন কথোপকথনের এ সংবাদ ছেপেছে।

 

তাদের দাবি-মেহমুদ নামে ওই ব্যক্তি পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টার সার্ভিস ইন্টেলিজেন্সের (আইএসআই) কর্মকর্তা।

মোহাম্মদ আলী সুমনের অভিযোগ, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেনের সঙ্গে আইএসআইয়ের এজেন্ট মেহমুদের যে কথোপকথন তাতে স্পষ্টতই বোঝা যায়-তিনি ভোটে জয়ী হতে ষড়যন্ত্র করে রাষ্ট্রবিরোধী অপরাধ করেছেন।

 

সুমনের অভিযোগে আরও বলা হয়েছে, খন্দকার মোশাররফ ও আইএসআইয়ের কথোপকথন ১১ ডিসেম্বর এশিয়ান ট্রিবিউন ও ১২ ডিসেম্বর ডিবিসি নিউজে প্রকাশ হয়।

এতে শোনা যায়, বিবাদী পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিনিধির সঙ্গে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে আলোচনা করেছেন। নির্বাচনে বিজয়ী হতে চীনকে ম্যানেজ করে দিতে বলেন মোশাররফ। বিদেশি শক্তির সহায়তা চেয়ে তিনি রাষ্ট্রদ্রোহ অপরাধ করেছেন।

 

তিনি অভিযোগে লেখেন-রাষ্ট্রের সার্বভৌমত্বের বিরুদ্ধে বিদেশি গোয়েন্দা সংস্থার সঙ্গে ষড়যন্ত্র করায় আমি সংক্ষুব্ধ হয়ে মামলা করার জন্য থানায় অভিযোগ করলাম।

ড. মোশাররফ হোসেনের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রাপ্তির বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন দাউদকান্দি মডেল থানার ওসি আলমগীর হোসেন।

 

তিনি জানান, অভিযোগ গ্রহণ করা হয়েছে, বৃহস্পতিবার অভিযোগের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

এদিকে বিভিন্ন গণমাধ্যমে ড. খন্দকার মোশাররফের ওই কথোপকথন এরই মধ্যে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। তবে মুঠোফোনে একাধিকবার চেষ্টা করেও এ বিষয়ে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনের বক্তব্য জানা যায়নি।

 

ফোনালাপটির সত্যতা যাচাই করা সম্ভব হয়নি। এশিয়ান ট্রিবিউন দাবি করছে, ৭ মিনিটের ফোনালাপটির বিষয়ে তাদের কাছে তথ্যপ্রমাণ রয়েছে।

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে ফাঁসকৃত ফোনালাপে বিএনপিকে জয়ী করতে আইএসআইয়ের কাছে খন্দকার মোশাররফকে সাহায্য চাইতে শোনা যায়। এ জন্য একপর্যায়ে তিনি চীনকে ম্যানেজ করার জন্য মেহমুদের কাছে সাহায্য চান।

 

তবে মেহমুদ তার জবাবে জানান, চীনের সঙ্গে বিএনপিকে সাহায্যের ব্যাপারে তাদের (আইএসআই) যোগাযোগ চলছে। বিএনপির এ নেতাকে আইএসআইয়ের বিশ্বস্ত বন্ধু বলে আখ্যায়িত করেন। খন্দকার মোশাররফও তাদের বন্ধু হয়েই থাকতে চান বলে মেহমুদকে আশ্বস্ত করেন।

 

এর আগে গেল মাসে ড. মোশাররফ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীনের ফোনালাপ ফাঁস হয়। এতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে বিএনপির আসন বণ্টন নিয়ে নিজের বিরক্তির কথা প্রকাশ করেন মোশাররফ। এ নিয়ে বিব্রত হয় বিএনপি।

 

 

ফোনালাপে যে কথা হয়েছিল দুজনের

মোশাররফ: আসসালামু আলাইকুম ভাইজান।

মেহমুদ: আসসালামু আলাইকুম ভাইজান। কেমন আছেন?

মোশাররফ: ভালো আছি। ধন্যবাদ।

মেহমুদ: অনেক দিন পর আপনার সঙ্গে কথা বলে ভালো লাগছে।

মোশাররফ: জি, জি। আমার কথা মনে আছে! ওই যে শেষবার ইসলামাবাদের একটি হোটেলে আমাদের সাক্ষাৎ হয়েছিল।

মেহমুদ: হ্যাঁ, হ্যাঁ। এখন মনে পড়ছে।

মোশাররফ: হোটেলে আপনি একজন অতিথির সঙ্গে এসেছিলেন আমার সঙ্গে দেখা করতে।

মেহমুদ: হ্যাঁ, হ্যাঁ। মনে পড়েছে।

মোশাররফ: কেমন আছেন আপনি? কোথায় আছেন?

মেহমুদ: আলহামদুলিল্লাহ ভালো আছি। আমি এখন দুবাই আছি। যদি সম্ভব হয় এবং সময় পেলে আমার সঙ্গে দেখা করেন। আপনার সঙ্গে দেখা করা জরুরি।

মোশাররফ: অবশ্যই। আমি কিছু বলতে চাই। আমরা এখন বাংলাদেশে বেশ সমস্যার মধ্যে আছি। আমার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা চলছে। একটি মামলায় আমার পাসপোর্ট জব্দ করা হয়েছে। আমি দেশের বাইরে যেতে পারছি না। এই হল আমার অবস্থা।

মেহমুদ: আমার যতদূর মনে পড়ে আপনি আমাদের একজন এজেন্টের সঙ্গে দেখা করেছিলেন।

মোশাররফ: হ্যাঁ, আমি আপনাদের একজন কর্মকর্তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলাম।

মেহমুদ: ঠিক আছে। তবে আমাদের সঙ্গে আপনার দেখা হওয়াটা জরুরি।

মোশাররফ: দেখা হলে তো ভালোই হতো। তবে আমরা এখন ভীষণ সমস্যার মধ্যে আছি। এই বিপদ থেকে আপনারাই আমাদের উদ্ধার করতে পারেন। আপনারা সবই জানেন।

মেহমুদ: জি, জি।

মোশাররফ: আমার মনে হয় আপনি সবই জানেন।

মেহমুদ: আপনি বাংলাদেশে আমাদের একমাত্র প্রকৃত বন্ধু। আমরা আপনার সঙ্গে আমাদের কৌশল নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছিলাম।

মোশাররফ: আমি আপনাদের বন্ধু হিসেবেই থাকতে চাই। যদিও আপনাদের সঙ্গে সরাসরি সাক্ষাৎ করাটা আমার পক্ষে এখন সম্ভব নয়। সেটি করতে পারলে উপকৃত হতাম। তবে আমি বাংলাদেশে আপনাদের এজেন্টের সঙ্গে সাক্ষাৎ করব। আপনি সেটির খবর অবশ্যই পাবেন। আমি বলতে চাই-আপনারা যদি চীনকে ম্যানেজ করতে পারেন, তবে এই নির্বাচনে আমরা ভালো ফল পেতে পারি।

মেহমুদ: অবশ্যই। আমরা চীনের বিষয়টি নিয়ে কাজ শুরু করে দিয়েছি। কাজ অলরেডি শেষ হয়ে গেছে। আপনার সঙ্গে সরাসরি সাক্ষাৎ হলে আরও অনেক বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা যেত। যাই হোক সেটি তো আর সম্ভব হচ্ছে না।

মোশাররফ: আপনারা চাইলে এখানে আমি আপনাদের যে কোনো লোকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে কথা বলতে পারি। তবে আমার পক্ষে বিদেশে গিয়ে সাক্ষাৎ করাটা সম্ভব নয়।

মেহমুদ: বুঝতে পেরেছি। তবে আপনি চিকিৎসা বা ওমরাহ করার বাহানায় বিদেশে আসতে পারলে আপনার সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনা করা যেত। যাই হোক, আমাদের এজেন্ট আপনার সঙ্গে শিগগিরই দেখা করে কথা বলবে।

মোশাররফ: হুম। আপনাদের কোনো দায়িত্বপ্রাপ্ত এজেন্ট যদি আমার সঙ্গে দেখা করে, তবে সেটি উত্তম হয়। সে ক্ষেত্রে আমি আপনাদের এজেন্ট বা আপনাদের সঙ্গে পরবর্তীতে আলোচনা করব।

মেহমুদ: অবশ্যই। আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করব আপনাদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করার। আপনি যা বললেন তা আমি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জানাব। আশা করি, বিভিন্ন ইস্যুতে আমরা একসঙ্গে কাজ করব। একই সঙ্গে আমরা বিভিন্ন সময়ে আমাদের এজেন্ট মারফত আপনাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখব। আপনাদের জন্য কাজ করার ব্যাপারে আমরা সর্বোচ্চ প্রস্তুত।

মোশাররফ: ধন্যবাদ। অনেক ধন্যবাদ।

মেহমুদ: আপনাকেও ধন্যবাদ। এখন আমাদের উভয়ের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ সময়। এ সময় একে অন্যকে সহায়তা করতে হবে। তবেই আমাদের মিশন সফল হবে ইনশাআল্লাহ।

মোশাররফ: আমরা যেটি অনুধাবন করতে পেরেছি যে, একে অপরকে সাহায্য করতে হবে। কারণ আমরা ভীষণ বিপদের মধ্যে আছি। আমাদের সাহায্য দরকার।

মেহমুদ: অবশ্যই, অবশ্যই। বিষয়টি নিয়ে আমরা কাজ শুরু করে দিয়েছি। যেভাবেই হোক বিপদ থেকে উদ্ধার পেতে হবে। যেহেতু আপনি বলছেন সরাসরি সাক্ষাৎ সম্ভব নয়, তাই আমরা ভিন্ন কৌশল অবলম্বন করার চেষ্টা করছি। যদি কোনো দিন সম্ভব হয় আপনার সঙ্গে দেখা হবে।

মোশাররফ: অবশ্যই। আমি চেষ্টা করছি পাসপোর্ট ফিরে পেতে। পাসপোর্ট হাতে পেলেই আপনাদের সঙ্গে দেখা করব।

মেহমুদ: জি।

মোশাররফ: এবং আমি এখানে (ঢাকায়) আপনাদের এজেন্টের সঙ্গে দেখা করার চেষ্টা করব।

মেহমুদ: অবশ্যই। ঢাকায় আমাদের এজেন্টের সঙ্গে আপনার সাক্ষাতের বিষয়টি আমরা দেখছি। এর পরও আপনার সঙ্গে আমাদের নিয়মিত যোগাযোগ থাকবে ইনশাআল্লাহ।

মোশাররফ: আমিও ব্যক্তিগতভাবে যোগাযোগ রক্ষা করার চেষ্টা করব। সে ক্ষেত্রে আপনি আমাকে আপনাদের পুরনো বন্ধু হিসেবে ভাবতে পারেন।

মেহমুদ: অবশ্যই। এ জন্যই কিন্তু আপনার সঙ্গে আমি যোগাযোগ করেছি।

মোশাররফ: আপনার সহযোগিতার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। আমি জানি আপনারা আমাদের ভুলে যাবেন না। যার কারণেই কিন্তু আপনি আমার সঙ্গে যোগাযোগ করার সর্বাত্মক চেষ্টা করেছেন।

মেহমুদ: অবশ্যই, অবশ্যই।

মোশাররফ: আমি আপনাদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখব। বন্ধুত্বের খাতিরে হলেও আমাদের মধ্যে যোগাযোগ থাকবে।

মেহমুদ: ইনশাআল্লাহ। আপনি এবং আপনার পরিবারের জন্য শুভকামনা রইল।

 

 

 


Top