মাঝ রাতে মির্জা ফখরুলের গাড়িতে মনোনয়ন বঞ্চিতদের হামলা | daily-sun.com

মাঝ রাতে মির্জা ফখরুলের গাড়িতে মনোনয়ন বঞ্চিতদের হামলা

ডেইলি সান অনলাইন     ৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৫:১২ টাprinter

মাঝ রাতে মির্জা ফখরুলের গাড়িতে মনোনয়ন বঞ্চিতদের হামলা

 

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের গাড়িতে হামলা করেছে মনোনয়ন বঞ্চিত প্রার্থীদের সমর্থকরা। শনিবার (৮ ডিসিম্বর) দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে রাজধানীর গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের কার্যালয় থেকে বের হয়ে যাওয়ার সময় এ হামলা চালানো হয়।

এ সময় গাড়ির গ্লাস ভেঙে যায় এবং চালক হেলাল আহত হন।


এ সময় প্রায় রাত তিনটা পর্যন্ত তাকে অবরুদ্ধ করে রাখেন বিক্ষুব্ধ কর্মীরা এবং তারা বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন। একপর্যায়ে সিনিয়র নেতাদের হস্তক্ষেপে ফখরুলের পথ ছেড়ে দেন বিক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা।


এর আগে মনোনয়নবঞ্চিত নারায়ণগঞ্জের তৈমুর আলম খন্দকার, চাঁদপুরের আ ন ম এহসানুল হক মিলনের অনুসারীরা সন্ধ্যায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ে বিক্ষোভ করে ভাঙচুর করেন। তারা কার্যালয়ের প্রধান ফটকে লাথি মারেন, ধাক্কা দেন এবং ইটপাটকেল ছুড়ে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন। তাদের ছোড়া ইটের আঘাতে কার্যালয়ের জানালার কাচ ভেঙে যায়। অনেকেই ফটকের সামনে শুয়ে বিক্ষোভ করছেন। এরপরই মাঝরাতে কার্যালয় থেকে মাইকে ঘোষণা দেওয়া হয়, ‘প্রিয় নেতা-কর্মীরা, আপনারা আগামীকাল (রবিবার) সকাল ১০টায় আসবেন। কাল সকালে মনোনয়ন বিতরণ করা হবে।

কেউ কোনো ঝামেলা করবেন না। সবাই চলে যান। ’

 


ঘোষণায় আরো বলা হয়, ‘সবাই দয়া করে শুনুন, এটা আমাদের সবার অফিস। আজকে কোনো মনোনয়ন বিতরণ করা হবে না, কারও মনোনয়ন দেওয়া হবে না। দয়া করে কেউ দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করবেন না। ’


ঘটনাস্থলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শনিবার বিকালে নারায়ণগঞ্জ-১ আসনে কাজী মনিরুজ্জামান মনিরকে দলীয় প্রার্থী ঘোষণা দেয়ার পর বিক্ষোভে ফেটে পড়েন অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকারের সমর্থকরা। তৈমুর আলম খন্দকার মনোনয়ন না পাওয়ায় তার সমর্থকরা চেয়ারপারসন কার্যালয় লক্ষ্য করে ইট ছোঁড়ে।  


সর্বশেষ খবরে জানা গেছে, শনিবার রাত আড়াইটায় মির্জা ফখরুল গুলশানের চেয়ারপার্সনের কার্যালয় থেকে বের হওয়ার সময় তার গাড়ি অবরুদ্ধ করা হয়। দীর্ঘ ৩০ মিনিট চেষ্টা করেও তিনি কার্যালয় থেকে বের হতে পারেননি।


পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসায় রাত ৩টার দিকে খালেদা জিয়ার নিরাপত্তাকর্মী চেয়ারপার্সনস সিকিউরিটি ফোর্স (সিএসএফ) একটি মানববেষ্টনী তৈরি করে তাকে ঘিরে গুলশান-২ নম্বর চত্বরের দিকে নিয়ে যান।


সে সময় মির্জা ফখরুলের ব্যক্তিগত গাড়িটি কার্যালয় থেকে খালি বেরিয়ে মূল সড়ক থেকে ফখরুলকে তুলে নিয়ে যায়।


এর আগে সন্ধ্যা থেকে দেশের বিভিন্ন আসনে বিএনপির মনোনয়ন বঞ্চিত প্রার্থীদের কর্মী সমর্থকরা আন্দোলন করে।


মধ্যরাতে চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে গেইট ভেঙে তারা কার্যালয়ের ভেতর প্রবেশের চেষ্টা করে। গেটের অপর পাশ থেকে সিএসএফের কর্মকর্তারা প্রতিরোধ গড়ে তোলে।

 


Top