শিক্ষক হাসনা হেনার মুক্তি চায় ভিকারুননিসার একাংশ শিক্ষার্থীরা | daily-sun.com

শিক্ষক হাসনা হেনার মুক্তি চায় ভিকারুননিসার একাংশ শিক্ষার্থীরা

ডেইলি সান অনলাইন     ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২০:০১ টাprinter

শিক্ষক হাসনা হেনার মুক্তি চায় ভিকারুননিসার  একাংশ  শিক্ষার্থীরা

ছবি: ডেইলি সান বাংলা

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্রী অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যার ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় গ্রেপ্তার নবম শ্রেণির শিক্ষিক হাসনা হেনার মুক্তির দাবি করেছে শিক্ষার্থীদের একাংশ।

 

মঙ্গলবার রাতে আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষসহ তিন শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন অরিত্রীর বাবা দিলীপ অধিকারী।

 

মামলার প্রেক্ষিতে বুধবার রাতে রাজধানীর উত্তরা এলাকা থেকে হাসনা হেনাকে গ্রেপ্তার করে গোয়েন্দা পুলিশ। পরে তাকে আদালতে হাজির করলে বৃহস্পতিবার ঢাকার মহানগর হাকিম আবু সাঈদ তার জামিন আবেদন নাকচ করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

 

তবে ওই শিক্ষককে নির্দোষ দাবি করে তার মুক্তি চেয়েছে শিক্ষার্থীদের একাংশ। তারা বেইলি রোড শাখার ১ নং গেটের সামনে হাসনা হেনার মুক্তির দাবিতে স্লোগান দিতে থাকে।


 
তারা বলে, ‘আমরা অপরাধির শাস্তি চাই, কিন্তু হাসনা হেনার মুক্তি চাই। ’

 

ওই স্কুলের এক ছাত্রী নিশাত সুমাইয়া বলে, ‘আমাদের শিক্ষিকা হাসনা হেনা সম্পূর্ণ নির্দোষ। আমরা তার মুক্তি চাই। ’

 

এর আগে দাবি পূরণ হওয়ায় আন্দোলন কর্মসূচি স্থগিত করা হয়েছে বলে বৃহস্পতিবার আন্দোলনকারীদের এক প্রতিনিধি জানায়। শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে আনুশকা রায় জানায়, তারা শুক্রবারের পূর্বনির্ধারিত পরীক্ষায় অংশ নেবে।

 

শিক্ষার্থীরা জানায়, স্কুল প্রাঙ্গণে বিকাল ৩টা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত শিক্ষকদের সাথে শিক্ষার্থীদের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে বের হয়ে এসে শিক্ষার্থীরা সাংবাদিকদের আন্দোলন স্থগিত করার কথা জানায়।

 

এর আগে দাবি পূরণে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠায় আন্দোলনকারীরা।

 

আনুশকা রায় জানায়, তাদের দাবির মধ্যে চারটি পূরণ করা হয়েছে। বাকি দুটি মন্ত্রণালয়ের অধীনে রয়েছে।

 

উল্লেখ্য, পরীক্ষা চলাকালে মোবাইল ফোন ব্যবহারের জের ধরে গত সোমবার শিক্ষকরা নিজের বাবা-মাকে ডেকে এনে অপমান করলে ভিকারুননিসা নূন স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্রী অরিত্রী অধিকারী আত্মহত্যা করে।


Top