ঢাকা টেস্টে জিততে মরিয়া টাইগাররা, ফলোঅনে জিম্বাবুয়ে | daily-sun.com

ঢাকা টেস্টে জিততে মরিয়া টাইগাররা, ফলোঅনে জিম্বাবুয়ে

ডেইলি সান অনলাইন     ১৩ নভেম্বর, ২০১৮ ১৯:৩৫ টাprinter

ঢাকা টেস্টে জিততে মরিয়া টাইগাররা, ফলোঅনে জিম্বাবুয়ে

ঢাকা টেস্টের তৃতীয় দিনে দিনশেষে ফলোঅনে পড়েছে জিম্বাবুয়ে। ব্রেন্ডন টেইলর সেঞ্চুরির পরেও তাইজুল ইসলাম এবং মেহেদী মিরাজের স্পিনে ৩০৪ রানে থেমেছে সফরকারীদের প্রথম ইনিংস।

প্রথম বারের মতো বিপক্ষ দলকে ফলোঅনে ফেললো বাংলাদেশ। তবে ফলোয়ন করিয়ে জিম্বাবুয়েকে আবারো ব্যাটিংয়ে পাঠাবে কিনা সেটা অবশ্য জানা যায়নি।

 

প্রথম টেস্টে বাংলাদেশকে বড় ব্যবধানে হারিয়ে সিরিজে এগিয়ে রয়েছে সফরকারী জিম্বাবুয়ে। জিম্বাবুয়ের কাছে ১৫১ রানের হারে দেশজুড়ে ব্যাপক সমালোচনার তোপে পড়েছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। তাই দৃতীয় টেস্টের জিততে মরিয়া বাংরাদেশ।

 

ঐতিহাসিক ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে জিম্বাবুয়ের সামনে রানের পাহাড় তুলে দেয়ার পর গতকাল সংবাদ সম্মেলনে মাশফিকুর রহিম বলেছিলেন, এখনো অনেক কাজ বাকি। আর সেই কাজটা করতে হবে বোলারদের। তৃতীয় দিনে সেই কাজটা বেশ ভালোভাবেই সেরেছেন তাইজুল-মিরাজরা।

 

প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ৫২২ রানে ইনিংস ঘোষণার পর ১ উইকেটে ২৫ রান নিয়ে তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করে জিম্বাবুয়ে।

দ্বিতীয় দিনের শেষ বিকেলে হ্যামিল্টন মাসাকাদজাকে তুলে নেন তাইজুল। তৃতীয় দিনে টিকে থাকতে ধীরে ব্যাটিং করে জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানরা। দলীয় ৪০ রানের মাথায় নাইটওয়াচম্যান ত্রিপানোকে ফিরিয়ে তৃতীয় দিনে টাইগারদের প্রথম সাফল্য এনে দেন তাইজুল ইসলাম। এরপর ওপেনার ব্রায়ান চারির সাথে ৫৬ রানের জুটি গড়ে তোলেন অভিজ্ঞ ব্রেন্ডন টেলর। অর্ধশত করা চারিকে আউট করে এই জুটি ভাঙ্গেন স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ। প্রথম সেশনে এই দুইটি উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে। ৪৪ ওভারে ৩ উইকেটে ১০০ রান নিয়ে লাঞ্চ বিরতিতে যায় সফরকারীরা।

 

লাঞ্চ থেকে ফিরে শন উইলিয়ামসন ও ব্রেন্ডন টেলর জুটি গড়ার চেষ্টা করেন। তবে দলীয় ১২৯ রানের মাথায় ফর্মে থাকা শন উইলিয়ামসনকে বোল্ড করে জুটি ভাঙ্গেন স্পিনার তাইজুল ইসলাম। ২ রান পর শূন্য রানে রাজাকেও সাজঘরে ফেরান তাইজুল। ১৩১ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে জিম্বাবুয়ে। এরপর পিজে মুরের সাথে জুটি গড়েন ব্রেন্ডন টেলর। চা বিরতির আগ পর্যন্ত ৬৪ রানের জুটি গড়ে অপরাজিত আছেন এই দুই ব্যাটসম্যান। চা  বিরতিতে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ছিল ৫ উইকেট ১৯৫ রান।

 

টেলর ও মুর গড়ে তোলেন ১৩৯ রানের জুটি। এই দুই ডানহাতি ব্যাটসম্যানের ব্যাটে ফলো-অন এড়ানোর স্বপ্ন দেখছিল জিম্বাবুয়ে। কিন্তু আরিফুল হক বোলিংয়ে এসেই আঘাত হানেন। ১১৪ বলে ৮৩ রান করা পিজে মুরকে ফেরান আরিফুল। এরপর এক প্রান্ত আগলে রেখে টেলর তুলে নেন সেঞ্চুরি। ফলো-অন থেকে ৩২ রান দূরে ১১০ রানে আউট হন টেলর। মেহেদি হাসান মিরাজের বলে দুর্দান্ত উড়ন্ত এক ক্যাচ নেন তাইজুল ইসলাম। এর এক বল পরেই ব্রেন্ডন মাভুতা আউট করে বাংলাদেশে দারুণভাবে ম্যাচে ফেরান মেহেদি হাসান মিরাজ।

দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্টে হেরে ১-০ ব্যবধানে পিছিয়ে আছে টিম বাংলাদেশ। সিরিজ বাঁচাতে তাই দ্বিতীয় টেস্টে জিততেই হবে স্টিভ রোডসের শিষ্যদের।

 

এরপর ফলো-অন এড়াতে লড়ে যান চাকাভা ও জার্ভিস। জুটি গড়েন ১৪ রানের। তবে ফলো-অন থেকে ১৮ রান দূরে থাকতেই আউট হোন চাকাভা। টেন্ডাই চাতারা ইনজুরির কারণে ব্যাট করতে নামতে পারেননি। চাকাভার আউটের মাধ্যমে দিনের খেলার সমাপ্তি হয়। তাইজুল ইসলাম পান পাঁচ উইকেট।

 

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ (তৃতীয় দিনশেষে)

বাংলাদেশ ৫২২/৭, ডিক্লেয়ার্ড, (প্রথম ইনিংস)

মুশফিক ২১৯*, মুমিনুল ১৬১, মিরাজ ৬৮*

জারভিস ৫/৭১, চাতারা ১/৩৪জিম্বাবুয়ে ৩০৪/৯, প্রথম ইনিংস, ১০৫.৩ ওভার

টেলর ১১৩, মুর ৮৩, চারি ৫৩

তাইজুল ৫/১০৭, মিরাজ ৩/৬১

 

জিম্বাবুয়ে ৩০৪/৯, প্রথম ইনিংস, ১০৫.৩ ওভার

টেলর ১১৩, মুর ৮৩, চারি ৫৩

তাইজুল ৫/১০৭, মিরাজ ৩/৬১


Top