নারীর পেট থেকে বের হল দেড় কেজি পেরেক, সেফটিপিন | daily-sun.com

নারীর পেট থেকে বের হল দেড় কেজি পেরেক, সেফটিপিন

ডেইলি সান অনলাইন     ১৩ নভেম্বর, ২০১৮ ১৬:২৬ টাprinter

নারীর পেট থেকে বের হল দেড় কেজি পেরেক, সেফটিপিন

অক্টোবরের শেষ দিন ভারতের মহারাষ্ট্রের সিরডি শহরের বাসিন্দা সঙ্গীতাকে ভর্তি করা হয় মানসিক ভারসাম্যহীনদের হাসপাতালে। ডাক্তারদের অনুমান, তাঁর বয়স পঁয়তাল্লিশ হবে।

 

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে জানা গিয়েছে, সিরডির বাসিন্দা হলেও সঙ্গীতা বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়েছিলেন। তার পরে তাঁকে শাহেরকোটওয়ার রাস্তায় থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। আদালতের নির্দেশে তাঁকে পাঠানো হয় মানসিক হাসপাতালে।  

 

হাসপাতালে থাকাকালীনই হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন সঙ্গীতা। পেটে অসহ্য যন্ত্রণার কথা জানালে এক্স-রে করে দেখা যায়, তাঁর পেটের ভেতরে এক বিশাল পিণ্ড। এবং তাঁর ফুসফুস থেকে বেরিয়ে রয়েছে বেশ কয়েকটি সেফটি পিন।

 

প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই অপারেশন টেবিলে নিয়ে যাওয়া হয় সঙ্গীতাকে। আড়াই ঘণ্টার অপারেশনে একের পর এক চমক দেখেন চিকিৎসকেরা। নানা ধরনের ধারালো ধাতব বস্তু, পেরেক, ব্যাগের চেন, দড়ি— এমনই সব উদ্ভট জিনিস বেরিয়ে আসে সঙ্গীতার পেট থেকে।

যার মোট ওজন প্রায় দেড় কিলোগ্রাম।

 

সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে জানা গিয়েছে, প্রধান চারজন চিকিৎসক যাঁরা অপারেশন করেছেন তাঁরা জানিয়েছেন যে অসুখে মানুষ এইরকম ধারালো জিনিস মুখে দেয় তাকে বলে অ্যাকুফেগিয়া। এমন অসুখ খুবই বিরল। এবং তা সাধারণত দেখা যায় মানসিক ভারসাম্যহীন মানুষের মধ্যেই।  

 

বর্তমানে সঙ্গীতা হাসপাতালেই রয়েছেন। সেখানের স্বেচ্ছাসেবী সদস্যরা চেষ্টা করছেন যাতে সুস্থ হয়ে গেলে তাঁকে নিজের বাড়িতে পাঠানো যায়। প্রসঙ্গত, সিরডিতে সঙ্গীতার আত্মীয়কে ইতিমধ্যেই খুঁজে বের করেছেন তাঁরা।

 


Top