ইউটিউবে মুক্তি পেল চলচ্চিত্র ‘দ্য ক্লে’ (ভিডিও) | daily-sun.com

ইউটিউবে মুক্তি পেল চলচ্চিত্র ‘দ্য ক্লে’ (ভিডিও)

ডেইলি সান অনলাইন     ১০ নভেম্বর, ২০১৮ ১৭:০০ টাprinter

ইউটিউবে মুক্তি পেল চলচ্চিত্র ‘দ্য ক্লে’ (ভিডিও)

বিশ্বের বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে মনোনয়ন ও পুরস্কার প্রাপ্তির পর এবার ইউটিউবে মুক্তি পেল স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘দ্য ক্লে’। আদ্রিয়ান ফিল্মস এন্টারটেইনমেন্টের কর্ণধার জুলফিকার জাহেদী এমন খবর নিশ্চিত করলেন।

 

 

গত শুক্রবার রাতে রাজধানীর দীপনতলা অডিটোরিয়ামে আনুষ্ঠানিকভাবে আদ্রিয়ান ফিল্মস এন্টারটেইনমেন্টের ইউটিউবে চ্যানেলে চলচ্চিত্রটির মুক্তি দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব মুস্তাকীম বিল্লাহ ফারুকী ও ‘দ্য ক্লে’-এর কুলা-কুশলী।

 

 

প্রকৃতি, পরিবেশ ও সময়ের ব্যবধানের স্রোতে ভেসে গেছে বাংলার কৃষ্টি সংস্কৃতি। ফলে বাংলায় ঢুকে গেছে অপসংস্কৃতি। আগেকার বাঙালি সারা দিন শত খাট-খাটুনির পর ক্লান্ত হয়েও অপেক্ষায় থাকতো একটি সন্ধ্যার জন্যে। কখন হবে সন্ধ্যা। আর কখন শুনবে মাটির গান, জুড়াবে তাদের প্রাণ। এখনকার মানুষ গান শোনার সময় পায়না। শুধু শহর নয় প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলেও ছড়িয়ে গেছে বিদেশি টিভি চ্যানেল।

আজ কাদা মাটির দেশে প্রবেশ করেছে পোড়া মাটি। এ পোড়া মাটি আজ পুড়ে তৈল করে দিচ্ছে বাঙালির রক্ত মাংস, ‘দ্য ক্লে’ এমনই একটি জীবন ও বাস্তবতা।

 

 

উদীয়মান লেখক হুমায়ন কবীরের মূলভাবনা এবং তরুণ কবি ও নাট্যকার আসমা শাওনের গল্প, চিত্রনাট্য ও সংলাপ অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে ‘দ্য ক্লে’ চলচ্চিত্রটি। যা পরিচালনা করেছেন এম.এইচ.এম. মুবাশশির। ১৫ মিনিট দৈর্ঘ্যরে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করেছেন- ওমর ফারুক, শামীম হাসান সরকার, মাকসুদা তিশা, আহমেদ রিপন, শারমিন শিমু, আমিন আকবরীসহ আরও অনেকে।

 

 

আর্ট ডিরেক্টশন দিয়েছেন আহমেদ সালেকিন, স্থিরচিত্র গ্রহন করেছেন মোঃ সুলতান মিয়া। সহকারী পরিচালক হিসেবে আছেন মো সাজ্জাদুল ইসলাম খান ও রাকিবুল হাসান।

 

 

দ্য টাইমস মিডিয়া লি. নিবেদিত জলছবি ফিল্মস ও আদ্রিয়ান ফিল্মস এন্টারটেইনমেন্ট পরিবেশিত ‘দ্য ক্লে’ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি প্রযোজনা করেছেন জুলফিকার জাহেদী ও এম.এইচ.এম. মুবাশশির।

 

ইতোমধ্যে ‘দ্যা ক্লে’ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র বেশ কয়েকটি দেশের ফেস্টিভালে নমিনেটেড ও বিজয়ী হয়। তারমধ্যে উল্লেখযোগ্য: ২০১৬ সালে পুনে ফিল্ম ফেস্টিভাল-ভারত(অফিসিয়াল সিলেকশন), ফ্লেমিংগো ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল-আমেরিকা (সিনেমাটোগ্রাফি ও আর্ট ডিটেকশন উভয় ক্যাটাগরিতে এ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত), লস অ্যাঞ্জেলস সিনেফেস্ট-আমেরিকা(সেমিফাইনালিস্ট), বার্সিলোনা প্লানেট ফিল্ম ফেস্টিভাল-স্পেন(অফিসিয়াল সিলেকশন), কালারল্যাব সামার শর্ট’স কনটেস্ট-আমেরিকা (সেমিফাইনালিস্ট), কোর্টই ইন করটাইল ইন্টারন্যাশনাল শর্টফিল্ম ফেস্টিভ্যাল-ইতালি(ফাইনালিস্ট এবং ভিশন আর্ট এ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনয়ন), রিয়েল টাইম ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল-নাইজেরিয়া(সেমিফাইনালিস্ট), আব ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল-ভারত(সেরা সম্পাদনা পুরষ্কার), এশিয়া ইন্টারন্যাশনাল ইয়থ শর্টফিল্ম এক্সিবিশন-চায়না (অফিসিয়াল সিলেকশন)।

 


Top