মালয়েশিয়া নেওয়ার নাম করে নামিয়ে দিল শাহপরীর দ্বীপে! | daily-sun.com

মালয়েশিয়া নেওয়ার নাম করে নামিয়ে দিল শাহপরীর দ্বীপে!

ডেইলি সান অনলাইন     ৭ নভেম্বর, ২০১৮ ১১:৫৩ টাprinter

মালয়েশিয়া নেওয়ার নাম করে নামিয়ে দিল শাহপরীর দ্বীপে!

মালয়েশিয়া যেতে চেয়েছিলো ১৪ রোহিঙ্গা। তাই দালালও ধরেছিলো তারা।

একসময় সবকিছু ঠিকঠাক, রওনাও দেয় একটা সময়। তবে মালয়েশিয়া এসে গেছে বলে শাহপরীর দ্বীপে নিয়ে ওই রোহিঙ্গাদের নামিয়ে দেয় প্রতারকরা। পরে সেখানে বিজিবির হাতে ধরা পড়ে রোহিঙ্গারা। আটকের পর রোহিঙ্গারা এসব কথা জানায়।

 

গত সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে শাহপরীর দ্বীপ বিওপির সুবেদার মো. নজরুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি টহল দল শাহপরীর দ্বীপের ঘোলারচর দক্ষিণপাড়া সাগরতীর থেকে মালয়েশিয়াগামী ওই ১৪ রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করে। তাদের মধ্যে ৯ পুরুষ ও ৫ নারী।

 

বিজিবি জানায়, প্রতারিত এসব রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ উখিয়ার থাইংখালী, বালুখালী, কুতুপালং, নয়াপাড়া, জামতলী ও কুতুপালং মধুরছড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বসবাস করত এবং তাদের নিবন্ধন কার্ড রয়েছে।

 

টেকনাফে অবস্থিত বিজিবি-২ ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে. কর্নেল আছাদুদ জামান চৌধুরী জানান, জিজ্ঞাসাবাদে আটক রোহিঙ্গারা জানান, কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ডি/৫ ব্লকের মো. আইয়ুব আলী নামে এক দালাল (মোবাইল নম্বর-০১৮৫০-৪৮৮১৭৬) জনপ্রতি ১০ হাজার টাকার বিনিময়ে তাদের মালয়েশিয়া নিয়ে যাচ্ছিল।

 

গত ২ নভেম্বর টেকনাফের কচুবনিয়া এলাকা দিয়ে তাদের নৌকায় তুলে সাগরে নিয়ে যায়।

পরে সোমবার রাতে শাহপরীর দ্বীপ ঘোলারচর এলাকায় মালয়েশিয়া এসে গেছে তাদের নৌকা বলে নামিয়ে দেয়। পরে বিজিবির হাতে পড়ার পর তারা বুঝতে পারেন, তাদের সঙ্গে প্রতারণা করা হয়েছে। উদ্ধার ১৪ রোহিঙ্গা নারী-পুরুষকে মঙ্গলবার দুপুরে নিজ নিজ ক্যাম্পে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

 

তারা হচ্ছেন- জামতলী ক্যাম্পের মৃত নুরুল আলমের ছেলে মো. ইয়াছিন (২২), বালুখালী ক্যাম্পের মো. সালামের ছেলে মো. ইসলাম (২৬), মৃত আব্দুল গফুরের মেয়ে বিবি খাতিজা (১৮), থাইংখালী শরণার্থী ক্যাম্পের মো. শফিকের ছেলে মো. খায়রুল আমীন (১৮), মোহাম্মদ আলীর ছেলে মো. রহিমুল্লাহ (১৬), মৃত ঈমান হোসেনের ছেলে মো. জাকের আহাম্মেদ (১৯), মো. আব্দুর রবের মেয়ে মোসাঃ নূর বাহার (১৮), সৈয়দ কালামের মেয়ে আনোয়ারা বেগম (১৮), কুতুপালং শরণার্থী ক্যাম্পের মৃত আবুল কাশেমের ছেলে মো. ছাইদুল আমীন (১৯), মো. সুলতান (৪৫), মৃত কামালের ছেলে মো. ফরিদুল আলম (১৮), নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্পের মৃত মোহাম্মদ আলীর মেয়ে মো. হোসেন (১৭), কুতুপালং মধুরছড়া শরণার্থী ক্যাম্পের মৃত আবুল কাশেমের মেয়ে খোরশিদা (১৬), মো. নূর সালামের মেয়ে রফিজা (১৮)।

 


Top