খালেদার প্যারোলে মুক্তির বিষয়ে কথা হতেই পারে: কাদের | daily-sun.com

খালেদার প্যারোলে মুক্তির বিষয়ে কথা হতেই পারে: কাদের

ডেইলি সান অনলাইন     ৪ নভেম্বর, ২০১৮ ১৩:৫৩ টাprinter

খালেদার প্যারোলে মুক্তির বিষয়ে কথা হতেই পারে: কাদের

 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য প্যারোলে মুক্তির বিষয়ে যদি ঐক্যফ্রন্ট নেতারা ভেবে থাকেন, প্রধানমন্ত্রীকে বলতে পারেন। এ বিষয়ে আলোচনার দ্বার খোলা রয়েছে।

রবিবার (৪ নভেম্বর) সচিবালয়ে নিজ মন্ত্রণালয়ে সমসাময়িক রাজনৈতিক ইস্যু নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।


শোনা যাচ্ছে সরকার হয়তো খালেদা জিয়ার জামিনে আর বাধা দেবে না-এমন কোনো রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত আছে কিনা প্রশ্নের উত্তরে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিষয়টা এমন নয় যে এটা কোনো সাধারণ মামলা। গত ১০ বছর ধরে দুটি মামলা চলেছে। সময়মতো হাজিরা দিলে এ মামলা দুটির রায় অনেক আগেই হয়ে যেতে পারতো। অহেতুক একটা বিলম্ব তারা করেছেন। সেজন্য মামলার কাজ বিলম্বিত হয়েছে। মামলার সঙ্গে নির্বাচনকে সম্পৃক্ত করারতো কোনো যুক্তি নেই। ’


তিনি আরও বলেন, ‘মামলা আমরা করিনি। বেগম জিয়াকে আমরা দণ্ড দেয়নি।

কাজেই আমরা যেখানে দণ্ড দেয়নি সেখানে আমরাতো মুক্তি দিতে পারি না। এখন তারা আইনিভাবে চেষ্টা করুক। যদি কোনো অপশন থাকে আদালতে যেতে পারে। এর আগে প্রায় ৩০ মামলায় বেগম জিয়া জামিন পেয়েছেন। সেগুলোতে তো আমরা বাধা দেয়নি। এখন যে মামলার রায়ে দণ্ড প্রদান করা হয়ে গেছে, সেখানে জামিন দেবে কিনা-সেটা উচ্চ আদালত বলতে পারবে। এজন্য আইনিভাবে এগুতে হবে। ’


চিকিৎসার জন্য প্যারোলে মুক্তির বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘সে রকম যদি কিছু তারা (ঐক্যফ্রন্ট কিংবা বিএনপি) চান, তাহলে প্রধানমন্ত্রীকে বলতে পারেন। তারাতো আলোচনা করছেন, আলোচনা খোলামেলা। সেখানে সব বিষয়ে আলোচনার দ্বার খোলা রয়েছে। ’


কাদের দাবি করেন, ‘বিএনপি খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়ে রাজনৈতিভাবে স্ট্যান্টবাজি করেছে। তার অসুস্থতার বিষয়ে কোনোভাবেই কর্তৃপক্ষ অবহেলা করেনি। এখনতো তার চিকিৎসার নিয়ে কোনো কথা নেই। তারা এই ইস্যুতে বেশি বেশি রাজনীতি করেছে। ’


সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচনের জন্য তফসিল ঘোষণায় দেরি করবে কিনা সেটা নির্বাচন কমিশনের বিষয়। ইসি চাইলে তফসিল ঘোষণা বিলম্বিত করতে পারবে। এ বিষয়ে সরকারের পক্ষ থেকে কোনো বাধা দেয়া হবে না। ইসি যদি ঐক্যফ্রন্টের চিঠিকে গুরুত্ব দিয়ে মনে করে তফসিল ঘোষণা দেরিতে করা প্রয়োজন তাহলে সেটা তারা করবে। তবে নির্বাচনতো নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই করতে হবে। তফসিল পিছিয়ে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে তারা যদি নির্বাচনের আয়োজন করতে পারে সেটা তাদের এখতিয়ার। ’


আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘সংলাপে আমরা আর বেশি সময় দিতে চাইছি না। কারণ এখনতো আমাদের ইলেকশন রিলেটেড কিছু কাজ করতে হবে। ’


ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে আবার বসবেন বলা হয়েছিল-এ প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এখান থেকে আমরা সরিনি। স্বল্প পরিসরে আলোচনা করা যায়। আলোচনা করাই যায়। আলোচনার দুয়ার এখনও বন্ধ হয়নি। ’


তিনি বলেন, ‘ঐক্যফ্রন্টের নেতারা বলছেন ছোট পরিসরে ফের আলোচনা করা যায়। আমরাও সেটা মনে করি। তারা আজ একটি চিঠি দিয়েছে। এ বিষয়ে নেত্রীর সঙ্গে কথা বলে সিদ্ধান্ত নেব। তবে আমরা কোনোভাবেই ৭ নভেম্বরের পরে যেতে চাইছি না, সেটি সম্ভবও হবে না। কারণ, বাংলাদেশেতো রাজনৈতিক দল দুইশ’র কাছাকাছি। অনেকেই বসতে চেয়ে আবেদন করেছে। ’


আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আমাকে একটু আগে গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু ফোন করে জানিয়েছেন, সংলাপ চেয়ে একটি চিঠি আমাদের অফিসে পাঠিয়েছেন। আমি অফিসে চিঠি রিসিভ করার কথা বলে দিয়েছি। বিকেলে দলের সভাপতি শেখ হাসিনার সঙ্গে এ নিয়ে আলাপ করব। ’


অন্য এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘সংলাপ আর আন্দোলন একসঙ্গে চলতে পারে না। এটা একদম পরিষ্কারভাবে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন। আমিও বলছি সংলাপে যখন তারা আবারও বসতে চান তাহলে আন্দোলন কেন?’


উল্লেখ্য, চলমান সংলাপ কার্যক্রম শেষ না হওয়া পর্যন্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা না করতে নির্বাচনে কমিশনকে (ইসি) চিঠি দিয়েছে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। শনিবার (৩ নভেম্বর) বিকেলে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) বরাবর ড. কামাল হোসেন স্বাক্ষরিত এ-সংক্রান্ত একটি আবেদন নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে দাখিল করা হয়।


প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে চলমান সংলাপের বিষয়টি উল্লেখ করে চিঠিতে বলা হয়, আপনারা প্রধানমন্ত্রীর সংলাপের বিষয়টি অবগত আছেন এবং সেদিকে নজর রাখছেন। সেই প্রেক্ষাপটে আমরা মনে করি, তফসিল ঘোষণার ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত নেয়ার বিষয়টি চলমান রাজনৈতিক প্রক্রিয়া। এজন্য সংলাপ না হওয়া পর্যন্ত কমিশনের অপেক্ষা করাই শ্রেয়।


গত ১ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তার সরকারি বাসভবন গণভবনে সংলাপ করেছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। তবে এতে তেমন কোনো সমাধান না পাওয়ায় আবারও সংলাপে বসতে চায় ঐক্যফ্রন্ট।


এজন্য ফের আলোচনায় বসতে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বরাবর চিঠি দিয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন স্বাক্ষরিত ওই চিঠি আওয়ামী সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ের পক্ষ থেকে গ্রহণ করা হয়েছে। রবিবার দুপুর ১২টার দিকে চিঠিটি গ্রহণ করেন কার্যালয়ের অফিস সহকারী জি এম মাসুদুল হাসান ও আলাউদ্দিন আহমেদ।


ঐক্যফ্রন্টের পক্ষে চিঠিটি নিয়ে যান গণফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্য জগলুল হায়দার আফ্রিক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ও ম শফিক উল্লাহ ও সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ।

 

আরও পড়ুন:

 

খাওয়ার ছবি ফেসবুকে গেল কী করে: মান্না

 

ড. কামাল বলেছেন ভালো আলোচনা হয়েছে, আমরা সেটাতেই থাকতে চাই: কাদের

 

যুক্তফ্রন্টের দাবি-দাওয়ায় প্রধানমন্ত্রী ইতিবাচক সাড়া দিয়েছেন: বি. চৌধুরী

 

তাদের প্রায় সব দাবিই আমরা মেনে নিয়েছি, তাদেরও ইতিবাচক মনে হয়েছে: কাদের

 

সংলাপের আগে শমসের মুবিনের সঙ্গে কী কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী?

 

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সংলাপে যুক্তফ্রন্টের ৭ দফা

 

কীভাবে জনগণ নেতৃত্ব খুঁজে নেবে, সে পথ বের করাই আমাদের কাজ: প্রধানমন্ত্রী

 

যে কারণে সংলাপে যাননি মাহী

 

২১ নেতা নিয়ে গণভবনে সংলাপে বিকল্পধারা

 

সংলাপে সরকারের মনোভাব সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য অশনিসংকেত: রিজভী

 

প্রধানমন্ত্রীর সংলাপে বি চৌধুরীর যুক্তফ্রন্টের যারা থাকছেন

 

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বি. চৌধুরীর সংলাপ সন্ধ্যায়

 

৭ দফার ৩টি বিষয়ে আমাদের কোনো বাধা-আপত্তি নেই: কাদের

 

সংলাপে ৭ দফার যা মানলেন প্রধানমন্ত্রী

 

সংলাপে খালেদা জিয়ার মুক্তি নিয়ে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী

 

খালেদা জিয়ার মুক্তির ব্যপারে কোনো সদুত্তর পাইনি: ফখরুল

 

আলোচনায় বিশেষ কোনও সমাধান হয়নি: ড. কামাল

 

সংলাপে ২০ রকম খাবারে ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের আপ্যায়নে

 

সংলাপে কেন যাননি গয়েশ্বর রায়?

 

সবাই মিলেই দেশটাকে ভাল রাখতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

 

গণভবনে চলছে সংলাপ

 

গণভবনে নিজের খাবারের তালিকা পাঠালেন বি চৌধুরী

 

গণভবনে ঐক্যফ্রন্টের নেতারা

 

সংলাপে নৈশভোজে অংশ নেবে না জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতারা

 

সরকারের সঙ্গে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সংলাপ আজ

 

প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণ পেলেন বি. চৌধুরী

 

এবার সংলাপ চেয়ে বিকিল্পধারার চিঠি

 

১৬ সদস্য নিয়ে সংলাপে যাবেন কামাল-ফখরুল

 

সংলাপে অবস্থান হবে ৭ দফা দাবি, এর বাইরে কোনো অবস্থান নেই: ফখরুল

 

সংলাপটা আসলে একটা সারপ্রাইজ, প্লেজেন্ট সারপ্রাইজ: কাদের

 

সরকারের সঙ্গে সংলাপের প্রতিনিধি দল চূড়ান্ত করতে ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক বিকেলে

 

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ঐক্যফ্রন্টের সংলাপ বৃহস্পতিবার

 

সংলাপের সিদ্ধান্তে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত, ইসিতে যাচ্ছে না ঐক্যফ্রন্ট

 

ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপে বসবে আওয়ামী লীগ

 

ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের সঙ্গে সিইসির সাক্ষাৎ মঙ্গলবার

 

সংলাপের তাগিদ দিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে ড. কামালের চিঠি

 

 


Top