জামালপুরে ব্যারিস্টার মইনুলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা | daily-sun.com

জামালপুরে ব্যারিস্টার মইনুলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

ডেইলি সান অনলাইন     ২১ অক্টোবর, ২০১৮ ১৫:৫০ টাprinter

জামালপুরে ব্যারিস্টার মইনুলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

 

মানহানির মামলায় সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন জামালপুরের একটি আদালত। রবিবার (২১ অক্টোবর) দুপুরে জামালপুরের আমলি আদালত এ গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।


দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে ২০ হাজার কোটি টাকার মানহানির মামলা করেন জেলা যুব মহিলা লীগের আহ্বায়ক ফারজানা ইয়াসমিন লিটা। পরে সেটি আমলে নিয়ে জামালপুর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সোলায়মান কবির আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।


মামলার বিবরণে জানা যায়, গত ১৬ অক্টোবর রাতে একাত্তর টেলিভিশনের টকশোতে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে জামায়াতের পক্ষ নিয়ে কাজ করছেন কি-না সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টি প্রশ্ন করেন। জবাবে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন তাকে চরিত্রহীন বলে মন্তব্য করেন।


নারী সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে চরিত্রহীন বলায় সকল নারী সমাজকে হেয় প্রতিপন্ন করার প্রতিবাদে স্বপ্রণোদিত হয়ে মানহানির মামলাটি করেছেন বলে বাদী মামলার এজাহারে উল্লেখ করেছেন।

 


১৬ অক্টোবর রাতের ওই টকশোতে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টি প্রশ্ন করেন, ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে আপনি যে হিসেবে উপস্থিত থাকেন- আপনি বলেছেন আপনি নাগরিক হিসেবে উপস্থিত থাকেন। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই বলছেন, আপনি জামায়াতের প্রতিনিধি হয়ে সেখানে উপস্থিত থাকেন। ’


মাসুদা ভাট্টির এই প্রশ্নে রেগে গিয়ে মইনুল হোসেন বলেন, ‘আপনার দুঃসাহসের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ দিচ্ছি। আপনি চরিত্রহীন বলে আমি মনে করতে চাই।

আমার সঙ্গে জামায়াতের কানেকশনের কোনো প্রশ্নই নেই। আপনি যে প্রশ্ন করেছেন তা আমার জন্য অত্যন্ত বিব্রতকর। ’


এরপর বুধবার (১৮ অক্টোবর) মাসুদা ভাট্টির কাছে ফোন করে ক্ষমা চান তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক এই উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন। ফোনে তিনি মাসুদা ভাট্টিকে বলেন, ‘আমার ব্যবহারটা অত্যন্ত লজ্জাজনক হয়েছে আমি আপনার কাছে ক্ষমা চাইছি। ’ তবে ফোনে মাসুদা ভাট্টি তাকে জবাব দেন, ‘আপনি তো আমাকে অন-এয়ারে টেলিভিশনে এসব কথা বলেছেন, এভাবে একা ফোনে বললে তো হবে না। ’


উত্তরে ব্যারিস্টার মইনুল বলেন, ‘যদি টেলিভিশনে সুযোগ হয় আমি সেখানেও বলবো। ’

 
এ বিষয়ে মাসুদা ভাট্টি বুধবার রাতেই গণমাধ্যমকে বলেন, ‘উনি ক্ষমা চেয়ে আমার কাছে ফোন করেছিলেন কিন্তু আমি বলেছি এভাবে ক্ষমা চাইলে হবে না। যেহেতু আমাকে উনি অন-এয়ারে বলেছেন, তাই ক্ষমাটা অন-এয়ারেই চাইতে হবে। ’

 


আরও পড়ুন:


ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন প্রকাশ্যে ক্ষমা না চাইলে আইনি ব্যবস্থা: নারী সাংবাদিক কেন্দ্র


মাসুদা ভাট্টির কাছে ক্ষমা প্রার্থনা ব্যারিস্টার মইনুলের

 


Top