‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতার প্রতিদ্বন্দ্বী নিয়ে এবারো বিতর্ক | daily-sun.com

‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতার প্রতিদ্বন্দ্বী নিয়ে এবারো বিতর্ক

ডেইলি সান অনলাইন     ২০ অক্টোবর, ২০১৮ ১৯:৫৭ টাprinter

 ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতার প্রতিদ্বন্দ্বী নিয়ে এবারো বিতর্ক

গতবারের মতো এবারও বিতর্ক পিছু ছাড়েনি ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতা। এবার বিতর্ক তৈরি করেছেন আফরিন সুলতানা লাবণী।

সদ্য সমাপ্ত মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতায় সেরা দশে জায়গা করে ‘বিহেভিয়ার অ্যাওয়ার্ড’ পেয়েছেন তিনি। এ প্রতিযোগিতায় ‘মিস বেস্ট বিহেভিয়র’ অ্যাওয়ার্ড পেয়েছিলেন আফরিন সুলতানা লাবণী।

 

অনুষ্ঠান শেষে তাকে নিয়ে দেখা দেয় নানা গুঞ্জন এমনকি বিতর্কও। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি বিবাহিত হয়েও প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিলেন। এ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হওয়ার পর অবশেষে মুখ খুললেন লাবণী।

তার দাবি, আতাউর রহমান আতিকের সঙ্গে তার বিয়ে বা বিচ্ছেদ কোনোটাই হয়নি। দুই বছর সংসার করা তো দূরের কথা, কখনও জামালপুর যাওয়াও হয়নি তার। তবে আতাউর তার পরিচিত বলে জানিয়েছেন তিনি। আতাউর প্রসঙ্গে তিনি জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য কোচিং করতে যখন ঢাকায় আসেন লাবণী, তখন ইডেন কলেজের হোস্টেলে থাকতেন।

সেখানে তার রুমমেট ছিলেন সোমা নামে এক মেয়ে। আতিক ছিলেন সোমার পরিচিত। সেই সূত্রে আতিকের সঙ্গে তার পরিচয়।

 

আতিকের সঙ্গে বিয়ের বিষটি অস্বীকার করে লাবণীর দাবি করেন- আতিক তাকে পছন্দ করতেন এবং সে পছন্দটাই তার জীবনে কাল হয়ে এসেছে। প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে সাড়া না পেয়ে আতিক নাকি নানা সময় তাকে হুমকিও দিতেন। ফোন না ধরলে অন্য নাম্বার থেকে ফোন দিয়ে বিরক্ত করতেন। এ জন্য রাজধানীর কোতোয়ালী থানায় ২০১৬ সালের ১৬ জুলাই আতিকের বিরুদ্ধে একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন লাবণী। তার অভিযোগ, জীবনে বড় হওয়ার স্বপ্নে পদে পদে কাটা হয়ে দাঁড়িয়েছে আতিক। তাছাড়া আতিক নাকি আগেও বিয়ে করেছিল। সে ঘরে তার এক মেয়ে ও ছেলে রয়েছে। বউয়ের সঙ্গে তার ডিভোর্স হয়েছে।

 

তিনি আরও বলেন, ‘আতিককে আমি বিয়ে করিনি। সে আমার পরিচিত। আমাকে পছন্দ করতো। আমার পিছনে ঘুরতো। তার সঙ্গে আমার প্রেমের সম্পর্কও ছিল না। সে যা বলছে তার সবই মিথ্যে। ’

আতিকের সঙ্গে ছবি প্রকাশ প্রসঙ্গে লাবণী বলেন, ‘প্রথম যখন ঢাকায় আসি তখন বন্ধুরা মিলে একদিন কার্জন হলের সামনে ঘুরতে গিয়েছিলাম। সেদিন ওর সঙ্গে কিছু ছবি তোলা হয়। এছাড়া সে একদিন বন্ধুদের নিয়ে আমার বাসায় আসে, সেদিন একটি ছবি তোলা হয়। সেই ছবিগুলো দিয়েই এখন সে আমাকে ব্ল্যাকমেইল করছে। আমাদের বিয়ে হয়েছে বলে গণমাধ্যমে বলে বেড়াচ্ছে। ’

 

প্রসঙ্গত, ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতায় বিবাহিত বা সন্তানের মা হয়েছেন- এমন কেউ অংশ নিতে পারেন না। কিন্তু ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ২০১৭’ প্রতিযোগিতায় জান্নাতুল নাঈম এভ্রিল তথ্য গোপন করে। পরে বিষয়টি প্রমাণিত হলে তাকে বাদ দিয়ে প্রতিযোগিতার প্রথম রানারআপ জেসিয়া ইসলামকে ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ ঘোষণা করা হয়। জানিয়েছিল, এরপর থেকে যদি কোনো প্রতিযোগী মিথ্যা তথ্য দেন কিংবা তথ্য গোপন করেন আর পরে তা প্রমাণিত হয়- তাহলে সেই প্রতিযোগীকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হবে।

 

কিন্তু এবারও সেই একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হলো। প্রতিযোগিতা শেষ হওয়ার সপ্তাহখানেক পরই জানা গেল, মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা ‘বেস্ট বিহেভিয়র’ অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্ত আফরিন সুলতানা লাবণী তার বিয়ের তথ্য গোপন করেছেন। শুধু তাই নয়, এই প্রতিযোগীর বিরুদ্ধে তার সাবেক স্বামীর মামলাও আছে। গণমাধ্যমে তাদের বিয়ের কাবিননামা ও কাগজপত্র প্রকাশিত হয়।

 


Top