কূটনীতিকদের সামনে দাবি ও লক্ষ্য জনালো ঐক্যফ্রন্ট | daily-sun.com

কূটনীতিকদের সামনে দাবি ও লক্ষ্য জনালো ঐক্যফ্রন্ট

ডেইলি সান অনলাইন     ১৮ অক্টোবর, ২০১৮ ২০:০৭ টাprinter

কূটনীতিকদের সামনে দাবি ও লক্ষ্য জনালো ঐক্যফ্রন্ট

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে জোটের সাত দফা দাবি ও ১১ লক্ষ্যের বিষয়ে বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের ব্রিফ করেছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

 

বিকেল তিনটা থেকে সোয়া চারটা পর্যন্ত রাজধানীর হোটেল লেক শোরে এক অনু্ষ্ঠানে গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দাবি ও লক্ষ্য সমূহ বিস্তারিতভাবে কূটনীতিকদের অবহিত করেন।

 

এ সময় এই জোটের নেতারা কূটনীতিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

 

অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্র, চীন, ফ্রান্স, নেদারল্যান্ডস, ইইউভুক্ত দেশগুলোসহ অন্তত ৩৪টি দেশের কূটনীতিক ও তাদের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন বলে জানা গেছে।

 

এ সময় রাজনৈতিক নেতাদের মধ্যে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ, নজরুল ইসলাম খান, মওদুদ আহমদ, আবদুল মঈন খান, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহম্মদ, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা মইনুল হোসেন, জেএসডির সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, তার স্ত্রী তানিয়া রব, জেএসডির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু, কার্যকরী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, ঐক্য প্রক্রিয়ার নেতা সুলতান মোহাম্মদ মনসুর প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

এর আগে গতকাল বুধবার রাতে গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক হয়। বৈঠক চলে রাত সাড়ে ৯টা থেকে সোয়া ১০টা পর্যন্ত। সেই বৈঠকে জোটের লক্ষ্য ও দাবির বিষয়ে কূটনীতিকদের ব্রিফ করার সিদ্ধান্ত হয়।

 

রাতে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

 

গত ১৩ অক্টোবর গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়। এই ফ্রন্টের ঘোষণায় নির্বাচনের আগে সরকারের পদত্যাগ, সংসদ ভেঙে দিয়ে সর্বদলীয় গ্রহণযোগ্য সরকার গঠন এবং খালেদা জিয়াসহ সব রাজবন্দীর মুক্তির দাবি জানানো হয়।


Top