বৈশ্বিক সক্ষমতা সূচকে ৪ ধাপ পিছিয়েছে বাংলাদেশ | daily-sun.com

বৈশ্বিক সক্ষমতা সূচকে ৪ ধাপ পিছিয়েছে বাংলাদেশ

ডেইলি সান অনলাইন     ১৭ অক্টোবর, ২০১৮ ১৪:০৬ টাprinter

বৈশ্বিক সক্ষমতা সূচকে ৪ ধাপ পিছিয়েছে বাংলাদেশ

 

বৈশ্বিক প্রতিযোগিতার সক্ষমতা সূচকে পাকিস্তানের চেয়ে তিনি ধাপ এগিয়ে আছে বাংলাদেশ। ওই সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ১০৩ এবং পাকিস্তানের অবস্থান ১০৭।

তবে গত বছরের তুলনায় চার ধাপ পিছিয়েছে বাংলাদেশ। গত বছর বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ৯৯। বুধবার (১৭ অক্টোবর) রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে বেসরকারি গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগ (সিপিডি) ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামস গ্লোবাল কম্পেটিটিভনেস রিপোর্ট ২০১৮ উপস্থাপন করে।


সংস্থাটির গবেষণা পরিচালক খন্দকার গোলাম মোয়াজ্জেম প্রতিবেদনটি তুলে ধরেন। এসময় সিপিডি’র নির্বাহী পরিচালক ফাহমিদা খাতুন, বিশেষ ফেলো ড. মোস্তাফিজুর রহমান, রিসার্চ ফেলো তৌফিকুল ইসলাম খান উপস্থিত ছিলেন।


সূচকে বাংলাদেশের পিছিয়ে পড়ার বিষয়ে দুর্নীতিকে দায়ী করেছেন ব্যবসায়ীরা।


এদিকে গত অর্থবছরে বাংলাদেশ বৈশ্বিক প্রতিযোগিতা সক্ষমতা সূচকে এগিয়ে একশ’ ঘরে প্রবেশ করলেও এবার তা ফের পেরিয়েছে। এবারের তালিকায় ৯৯তম স্থানে দেখা যাচ্ছে পূর্ব এশিয়ার দেশ মঙ্গোলিয়ার নাম।

 


২০১৬-১৭ অর্থবছরে বিশ্বের ১৩৮টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ছিলো ১০৬তম।

তার আগের অর্থবছরে অবস্থান ছিল ১০৭তম।


প্রতিষ্ঠান, অবকাঠামো, উচ্চশিক্ষা ও প্রশিক্ষণ, শ্রমবাজারের দক্ষতা, বাজারের আকার, ব্যবসায় উন্নতি ও উদ্ভাবন প্রভৃতি বিষয়ের ওপর ভিত্তি করে প্রতিযোগিতা সক্ষমতা সূচক তৈরি করা হয়।


প্রতিবেদন অনুযায়ী, অর্থনৈতিক সূচকে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে এখনও বিদেশি প্রতিযোগীদের জন্য সবচেয়ে উন্মুক্ত বাংলাদেশ।  


১৪০টি দেশের মধ্যে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটি সিঙ্গাপুর ও জার্মানিকে পেছনে ফেলে সর্বোচ্চ আসনটি অর্জন করেছে। দেশটির উদ্যোক্তা সংস্কৃতি এবং আর্থিক ব্যবস্থার প্রশংসা করেছে ইকোনমিক ফোরাম।


সিঙ্গাপুর ও জার্মানি রয়েছে যথাক্রমে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে। আর ভারতের অবস্থান ৫৮তম।


বৈশ্বিক প্রতিযোগিতামূলক অর্থনৈতিক সূচকে অবস্থান করা প্রথম দশটি দেশ হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র, সিঙ্গাপুর, জার্মানি, সুইজারল্যান্ড, জাপান, নেদারল্যান্ডস, হংকং, ব্রিটেন, সুইডেন এবং ডেনমার্ক।

 


Top