প্রযুক্তি মাধ্যমে অন্তর্ভুক্তিমূলক বিশ্ব গড়ার আহবান শিরীন শারমিনের | daily-sun.com

প্রযুক্তি মাধ্যমে অন্তর্ভুক্তিমূলক বিশ্ব গড়ার আহবান শিরীন শারমিনের

ডেইলি সান অনলাইন     ১৬ অক্টোবর, ২০১৮ ২০:২২ টাprinter

প্রযুক্তি মাধ্যমে অন্তর্ভুক্তিমূলক বিশ্ব গড়ার আহবান শিরীন শারমিনের

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সমতার ভিত্তিতে টেকসই ও অন্তর্ভুক্তিমূলক বিশ্ব গড়তে আইপিইউ সদস্য রাষ্ট্রের সংসদ সদস্যদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।

 

তিনি আজ সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় ১৩৯তম ইন্টার পার্লামেন্টারী ইউনিয়ন (আইপিইউ) এসেম্বলীতে উদ্ভাবন ও প্রযুক্তিগত পরিবর্তনের যুগে শান্তি ও উন্নয়নে সংসদীয় নেতৃত্ব শীর্ষক জেনারেল ডিবেটে এ আহবান জানান।

 

স্পিকার বলেন, সৃজনশীলতা ও প্রযুক্তির ইতিবাচক পরিবর্তনের ক্ষেত্রে বিশ্বে সংসদ সদস্যদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। সংসদীয় কূটনীতি বৃদ্ধি করে অভিজ্ঞতা ও তথ্য বিনিময়ের মাধ্যমে সংসদ সদস্যদের জনকল্যাণে দায়িত্বশীল ভুমিকা রাখার সুযোগ রয়েছে।

 

আজ ঢাকায় প্রাপ্ত এক সংবাদ বিঞ্জপ্তিতে এ তথ্য জানা যায়।

 

ড. শিরীন শারমিন বলেন, সকল সদস্য রাষ্ট্র এক সাথে কাজ করলে জনগণের শান্তি ও উন্নয়ন নিশ্চিত হয়। জনকল্যাণে বিশ্বের সকল সংসদ সদস্যগণ সোচ্চার হলে প্রযুক্তির ব্যবহার বৃদ্ধি করা সম্ভব। তবে এ ক্ষেত্রে কর্মসংস্থান যাতে ব্যহত না হয় সেদিকেও নজর রাখতে হবে।

 

তিনি বলেন, স্বাস্থ্য, বাণিজ্য, বিনিয়োগ, কৃষি উন্নয়ন, বিদ্যুৎ জ্বালানির ব্যবহার, গবেষণা, পরিবেশগত, অবকাঠামোগত উন্নয়ন ও খাদ্য নিরাপত্তা প্রভৃতি ক্ষেত্রে সৃজনশীলতা ও প্রযুক্তির ইতিবাচক পরিবর্তন নিশ্চিত করতে পারলে জনগণের শান্তি ও উন্নয়ন নিশ্চিত হয়।

 

তিনি বলেন, ই-পার্লামেন্টের আওতায় সংসদ সদস্যগণ প্রযুক্তির ব্যবহার বৃদ্ধি করতে পারেন। এক্ষেত্রে গণতন্ত্র শক্তিশালী করার ওপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, সকল সংসদ সদস্যকে জনগণের কল্যাণেই কাজ করে যেতে হবে।

 

স্পিকার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে চলছে। বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ৭ দশমিক ৮৬ ভাগ। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে প্রবেশ করেছে। আজকের ডিজিটাল বাংলাদেশ ২০২৪ সালের মধ্যে উন্নয়নশীল এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশে পরিণত হবে।

 

স্পিকার বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আজীবন লালিত স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে অর্থনৈতিক মুক্তির লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন। বর্তমান বাংলাদেশে ৮ কোটি মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করে এবং বর্তমানে আইসিটি খাতে আয় এক কোটি ইউএস ডলার। এছাড়া ৫ হাজর ২৭৫টি ডিজিটাল সেবা কেন্দ্র থেকে জনগণ প্রয়োজনীয় সেবা পাচ্ছে।

 

১৩৯তম আইপিইউ এসেম্বলীর অপর একটি ইভেন্টে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের সদস্য ডা. হাবিবে মিল্লাত এমপি সর্ব সম্মতভাবে আইপিইউ’র স্বাস্থ্য সেবা কমিটির সভাপতি পুনঃ নির্বাচিত হয়েছেন। ১৯০ টি দেশের ২ হাজার ৫শ’-এর বেশি সদস্য এ সভায় অংশ নেয়। এছাড়া বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের পক্ষে ডা. মিল্লাত ডেমোক্রেসি এন্ড হিউম্যান রাইটস কমিটিতে ‘সকলের জন্য স্বাস্থ্য সেবা’ বিষয়টি প্রস্তাব করলে তা পরবর্তী সম্মেলনে উত্থাপনের জন্য গৃহীত হয়।

 

এ সময় বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের সদস্য হিসেবে হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি, মো. আব্দুল কুদ্দুস এমপি,এ বি তাজুল ইসলাম এমপি, মমতাজ বেগম, কে. এইচ আজিজুল হক এমপি, আশেক উল্লাহ রফিক এমপি, মোহাম্মদ আব্দুল মুনিম চৌধুরী এমপি, শামীম হায়দার পাটোয়ারী এমপি উপস্থিত ছিলেন।

 

সূত্র: বাসস


Top