১ নভেম্বর থেকে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা শুরু | daily-sun.com

১ নভেম্বর থেকে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা শুরু

ডেইলি সান অনলাইন     ১৫ অক্টোবর, ২০১৮ ১৮:১৫ টাprinter

১ নভেম্বর থেকে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা শুরু

 

আগামী ১ নভেম্বর থেকে একযোগে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। সোমবার (১৫ অক্টোবর) সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট  (জেএসসি) ও সমমান পরীক্ষা-২০১৮ উপলক্ষে জাতীয় মনিটরিং সেল এবং আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।


কমিটির বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। শিক্ষামন্ত্রী জানান, এবার ২৬ লাখেরও বেশি শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেবে। জেএসপি পরীক্ষা ১ নভেম্বর শুরু হয়ে শেষ হবে ১৫ নভেম্বর এবং জেডিসি পরীক্ষা ১ নভেম্বর শুরু হয়ে শেষ হবে ১৪ নভেম্বর।  


বৈঠকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইনসহ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা,  বিভিন্ন শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ও প্রতিনিধি, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতিনিধি ও গোয়েন্দাসংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিতি ছিলেন।


অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, প্রশ্নপত্র ফাঁস ও গুজব ঠেকাতে যা যা প্রয়োজন, তা আমরা করবো। আশা করি, প্রশ্নপত্র ফাঁসের সুযোগ থাকবে না।  


তিনি আরও বলেন, বিগত পরীক্ষার মতো এবারও পরীক্ষা শুরুর আগে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষাকেন্দ্রে প্রবেশ করে নিজ নিজ আসনে বসতে হবে। পরীক্ষা শুরুর ২৫ মিনিট আগে প্রশ্নপত্রের প্যাকেট খুলতে হবে। লটারির করে কেন্দ্র সচিবকে ২৫ মিনিট আগে ম্যাসেজের মাধ্যমে জানানো হবে কোন সেটে পরীক্ষা নেওয়া হবে।

গত বছর এসব নির্দেশনাসহ  আর যেসব নির্দেশনা ছিল, সেই নির্দেশনা থাকবে। বিগত সময়ের নির্দেশনা অনুযায়ী পরীক্ষা শুরুর পাঁচ মিনিট আগে পরীক্ষার্থীদের প্রশ্নপত্র দেওয়া হবে।


অনুষ্ঠানে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন বলেন, ‘নির্বাচন সামনে থাকায় আমরা চিন্তিত এবং অধিকতর সচেতনতা অবলম্বন করেছি। নির্বাচন সামনে রেখে অনেকেই প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজব ছড়ানোর চেষ্টা করবে। আপনারা দেখেছেন গতবারও ছোট্ট বিষয় নিয়ে বড় ধরনের পরিস্থিতি অবনতির চেষ্টা করা হয়েছিল। কোনও ঘটনাকে পুঁজি করে অস্থিতিশীল পরিস্থিতির সৃষ্টি করতে চায়। ’


তিনি বলেন, ‘আপনারা কোটা আন্দোলন, নিরাপদ সড়ক আন্দোলনে দেখেছেন। এমনভাবে পরিস্থিতির উদ্ভব ঘটনানো হয়, তাৎক্ষণিকভাবে আমাদের কিছু করার থাকে না। কয়েকটি ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়া বাজেভাবে উপস্থাপনের চেষ্টার করেছে। সাধারণ মানুষ তা বিশ্বাস করেছে। এসব বিষয়ে প্রত্যেককে সচেতন থাকতে হবে। গুরুত্বের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে হবে। ’


অনুষ্ঠানে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক জিয়াউল হক বলেন, ‘পরীক্ষাকেন্দ্রের আশপাশে ১৪৪ ধারা জারি করা এলাকায় যাতে কোনও প্রকার জটলা সৃষ্টি না হয়, সে ব্যাপারে কেন্দ্র সচিবদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে । ’


এর আগে পুলিশের পক্ষ থেকে মহানগর পুলিশের যুগ্ম কমিশনার (ক্রাইম) শেখ নাজমুল আলম বলেন, ‘পরীক্ষাকেন্দ্র এলাকায় অভিভাবক ও অন্য কারও জটলা বন্ধ হওয়া প্রয়োজন। এ বিষয়ে কঠোর নির্দেশনা দরকার। অভিভাবকদের সচেতন হতে হবে। ’


কমিটির বৈঠকে জানানো হয়, পরীক্ষা চলাকালীন পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট ছাড়া কেউ পরীক্ষা কেন্দ্রে  প্রবেশ করতে পারবেন না। কেন্দ্রসচিব একটি মোবাইল ফোন ব্যবহার করবেন (ক্যামেরাবিহীন)। অন্য কেউ কোনও প্রকার মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্নফাঁস ও গুজবকারীদের বিরুদ্ধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারি থাকবে। প্রশ্নপত্র ফাঁস কিংবা পরীক্ষার্থীদের কাছে উত্তরপত্র সরবরাহে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও জেলা প্রশাসন কঠোরভাবে আইনগত ব্যবস্থা নেবে।

 


Top