স্কুল চলাকালীন ভরা মজলিশে দুই শিক্ষিকার চুলোচুলি! | daily-sun.com

স্কুল চলাকালীন ভরা মজলিশে দুই শিক্ষিকার চুলোচুলি!

ডেইলি সান অনলাইন     ১৪ অক্টোবর, ২০১৮ ১৫:২১ টাprinter

স্কুল চলাকালীন ভরা মজলিশে দুই শিক্ষিকার চুলোচুলি!

পরীক্ষার খাতা হারিয়ে যাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই শিক্ষিকার কাজিয়ায় বিশৃঙ্খল পরিবেশ তৈরি হল ভারতের মহিষাদলের গোপালপুর উচ্চমাধ্যমিক স্কুলে। অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রের ইউনিট টেস্ট পরীক্ষার খাতা হারিয়ে যাওয়াকে কেন্দ্র করে বেশ কিছুদিন ধরে অশান্তি চলছিল স্কুলের দুই শিক্ষিকা কৃষ্ণা মাইতি আর শ্বাশ্বতী মাইতির মধ্যে।

 

জানা গেছে, অষ্টম শ্রেণীর ওই ছাত্র শিক্ষিকা কৃষ্ণা মাইতিরই ছেলে। স্বাভাবিকভাবে ছেলের পরীক্ষার খাতা চেয়ে পরীক্ষক–সহ শিক্ষিকা শাশ্বতী মাইতির ওপর চাপ সৃষ্টি করে আসছিলেন তিনি। পুজার ছুটির আগে শনিবার সকালে শেষ ক্লাস চলছিল। ছুটি ঘোষণার আগে প্রধান শিক্ষক শিবাজী বেরার উপস্থিতিতে চলছিল স্টাফ মিটিং। সেখানেই শাশ্বতীর বিরুদ্ধে পরীক্ষার খাতা লোপাটের অভিযোগ তোলেন অপর শিক্ষিকা কৃষ্ণা।

 

এতেই উত্তেজিত হয়ে কৃষ্ণাদেবীর সঙ্গে বিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন শাশ্বতীদেবী। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে হাতাহাতি, চুলোচুলিতে জড়িয়ে পড়েন তারা। রণক্ষেত্রের রূপ নেয় স্কুলের স্টাফ রুম। দুই শিক্ষিকার চিৎকার শুনে দর্শকের ভূমিকায় ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় স্কুলের পড়ুয়ারা।

স্বাভাবিকভাবেই অস্বস্তিতে পড়ে যায় স্কুল কর্তৃপক্ষ।

 

তারপরই অন্যান্য শিক্ষকদের মধ্যস্থতায় বন্ধ হয় মারামারি। কিন্তু থেমে থাকেনি ঘটনা। দুই শিক্ষিকাই স্থানীয় হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার পর এক–অন্যের বিরুদ্ধে মেডিক্যাল রিপোর্ট–সহ লিখিত নালিশ পুলিসে জমা করেন। যার তদন্তও শুরু করেছে পুলিস। রাজনীতি বা ফুটবল ময়দানে না হলেও বর্তমানে স্কুলকে ওই দুই শিক্ষিকা যেন বানিয়ে ফেলেছেন খেলার একটি আস্ত ময়দান। এমন মন্তব্যই করতে শোনা গেল স্কুলেরই বেশ কয়েকজন শিক্ষক–শিক্ষিকাকে। তারা বলেন, শুনতে অবাক মনে হলেও এই দুই শিক্ষিকার এমন কীর্তির জন্য শিক্ষক পরিচয় দিতে লজ্জা লাগছে আমাদের।

 

শুধু তারাই নন, স্বয়ং প্রধান শিক্ষক শিবাজী বেরাও বলেছেন, ‘‌ওই দুই শিক্ষিকা ইচ্ছে করেই স্কুলের পরিবেশ নষ্ট করছেন। সত্যিই লজ্জাজনক ঘটনা। এই ঘটনা আমরাও স্কুল পরিদর্শকের নজরে এনেছি। আমরাও এর বিহিত চাই। ’‌ তবে এদিনের এই ঘটনার পরও কোনওভাবে লজ্জিত নন দুই শিক্ষিকা। দুই শিক্ষিকারই এক বক্তব্য, শেষ দেখে ছাড়বেন তারা।

 

অনলাইন ডেস্ক, তথ্য সূত্র: আজকাল


Top