চলে গেলেন শাস্ত্রীয় সংগীতশিল্পী অন্নপূর্ণা দেবী | daily-sun.com

চলে গেলেন শাস্ত্রীয় সংগীতশিল্পী অন্নপূর্ণা দেবী

ডেইলি সান অনলাইন     ১৩ অক্টোবর, ২০১৮ ১৯:৫৭ টাprinter

চলে গেলেন শাস্ত্রীয় সংগীতশিল্পী অন্নপূর্ণা দেবী

ভারতীয় শাস্ত্রীয় সংগীতশিল্পী অন্নপূর্ণা দেবী আর নেই। শনিবার ভোর রাত ৩টা ৫১ মিনিটে মুম্বাইয়ের ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

খবর এনডিটিভির।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯১ বছর। তার মৃত্যুতে ভারতের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।  

 

পদ্মভূষণ অ্যাওয়ার্ড পাওয়া এই শিল্পী বার্ধক্যজনিত বেশ কিছু রোগে ভুগছিলেন বলে জানিয়েছেন তার নামে গড়া অন্নপূর্ণা দেবী ফাউন্ডেশনের এক মুখপাত্র।

অন্নপূর্ণার আসল নাম রওশন আরা বেগম। তিনি ১৯২৭ সালের ২৩ এপ্রিল মধ্যপ্রদেশের মাইহারে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা ভারতীয় শাস্ত্রীয় সংগীতের অন্যতম দিকপাল ওস্তাদ আলাউদ্দীন খাঁ। কিংবদন্তি সরোদ বাদক আলী আকবর খাঁ তার ভাই।

 

বাবার কাছ থেকে দীক্ষা নিয়ে রওশন তার পিতার যোগ্য কন্যা হয়ে উঠেন এবং ভারতীয় কিংবদন্তী সঙ্গীত শিল্পী হয়ে উঠেন।

তিনি মুম্বাইতে ভারতীয় ক্লাসিক্যাল সঙ্গীত শিক্ষা দিয়েছেন অনেক দিন। তার শিশ্যদের মধ্যে হরিপ্রসাদ চৌরসিয়া, নিখিল বন্দ্যোপাধ্যায়, আমিত ভট্টাচার্য, প্রদীপ বারতসহ অনেকে সুপ্রতিষ্ঠিত।  

 

অন্নপূর্ণা তার বাবার ছাত্র ও বিখ্যাত সেতার বাদক রবিশংকরকে বিয়ে করেন। বিয়ের পর অন্নপূর্ণা হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করেন।
তবে সেই বিয়ে দীর্ঘস্থায়ী হয়নি। রবিশংকরের সঙ্গে তার বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে যায়। তাদের একটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয়, যার নাম শুভেন্দ্র শঙ্কর। শুভ অল্প বয়সেই মারা যায়। পরবর্তীকালে অন্নপূর্ণা ম্যানেজমেন্ট গুরু রুশিকুমার পাণ্ডেকে বিয়ে করেন।

 

সংগীতে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ১৯৭৭ সালে অন্নপূর্ণাকে ভারত সরকার দেশটির সর্বোচ্চ বেসামরিক পদক পদ্মভূষণ প্রদান করে।

 


Top