সেই মার্কিন ধর্মযাজককে মুক্তি দিল তুরস্ক | daily-sun.com

সেই মার্কিন ধর্মযাজককে মুক্তি দিল তুরস্ক

ডেইলি সান অনলাইন     ১৩ অক্টোবর, ২০১৮ ১৪:৫৬ টাprinter

সেই মার্কিন ধর্মযাজককে মুক্তি দিল তুরস্ক

 

অবশেষে মার্কিন ধর্মযাজক অ্যান্ড্রু ব্রানসনকে মুক্তি দিল তুরস্ক। সন্ত্রাসী কার্যক্রমের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে তুরস্কের একটি আদালত তাকে তিন বছরের জেল দেয়।

কিন্তু বন্দিদশাতেই দণ্ডের সে মেয়াদ পূরণ হয়ে যাওয়ায় তাকে মুক্তি দেয়া হয়। খবর: বিবিসি।


খবরে বলা হয়, ২০১৬ সালে আটক হওয়া এ যাজকের মুক্তির দাবিতে তুরস্কের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্র, সেইসাথে দুই দেশের মধ্যে সৃষ্টি হয় সম্পর্কের টানাপোড়েন। ২০১৬ সালে ব্যর্থ অভ্যুত্থানের সময় পিকেকে ও গুলেনিস্টদের সাথে যোগসাজশের অভিযোগে আটক করে এতদিন জিম্মি করে রাখা হয় অ্যান্ড্রু ব্রানসনকে।  


ব্রানসনের আইনজীবী জ্যা সেকুলো এক বিবৃতিতে জানান, আমরা মার্কিন প্রেসিডেন্ট, কংগ্রেস ও কূটনৈতিক সদস্যদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। তারা ধর্মযাজক ব্রানসনের মুক্তির দাবিতে তুরস্ককে ধারাবাহিকভাবে চাপ প্রয়োগ করে গেছে।  


তুরস্কে গত ২০ বছর ধরে স্ত্রী ও তিন সন্তান নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন মার্কিন এ ধর্মযাজক। সেখানে তিনি ছোট একটি গীর্জায় যাজকের দায়িত্ব পালন করতেন। গীর্জাটিতে খ্রিস্টিয় সমাজের মাত্র ২৪ জন মানুষের মধ্যে ধর্মীয় কর্মকাণ্ড পরিচালনা করতেন।


স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটায় এ বছরের জুলাই মাসে জেল থেকে মুক্তি দেয়া হলেও বিচারকার্যের জন্য তাকে গৃহবন্দি করে রাখা হয়। এর কয়েক সপ্তাহের পরেই তার মুক্তির দাবিতে সম্পর্কের টানাপোড়নের একপর্যায়ে তুরস্কের বিচারক এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নিষেধাজ্ঞা আনে যুক্তরাষ্ট্র। এরপরেও তাকে মুক্তি দিতে রাজি না হলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তাকে মুক্তি দিতে তুরস্কের ওপর চাপ দিতে থাকে। কিন্তু আঙ্কারা জানায়, আইন সবার জন্য সমান। তুরস্কের বিদ্যমান আইন অনুযায়ী তার বিচার হবে।
 

তুরস্কের এই পদক্ষেপে ক্ষুব্ধ হন ট্রাম্প এবং আগস্টে তুরস্কের স্টিল ও অ্যালুমিনিয়াম আমদানির ওপর দ্বিগুণ শুল্ক আরোপ করেন। এ অবস্থায় মার্কিন ডলারের তুলনায় তুর্কি মুদ্রা লিরার মূল্য কমে যায়। পরে পাল্টা আঙ্কারা মার্কিন যাত্রীবাহী বিমান, অ্যালকোহল ও তামাকজাতীয় পণ্য আমদানির ওপর দ্বিগুণ শুল্ক আরোপ করে।


সে মাসেই ইসরাইলে এক সফরে গিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্পের নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, যাজক ব্রানসনকে মুক্তি না দিয়ে তুরস্ক ভুল করছে। ন্যাটোর সহযোগী ও পশ্চিমা বিশ্বের অংশ হিসেবে তুরস্ক ব্রানসনকে মুক্তি দিলে তাৎক্ষণিকভাবে এই সংকটের অবসান হতে পারে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

 


Top