এই সরকারের কোনো আইন আমরা মানি না: ফখরুল | daily-sun.com

এই সরকারের কোনো আইন আমরা মানি না: ফখরুল

ডেইলি সান অনলাইন     ৮ অক্টোবর, ২০১৮ ১৭:৩৩ টাprinter

এই সরকারের কোনো আইন আমরা মানি না: ফখরুল

 

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮ পাসের প্রতিক্রিয়ায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, এই সরকারের কোনো আইন আমরা মানি না৷ কারণ এই আইন বৈধ সরকার পাস করেনি। সোমবার (৮ অক্টোবর) দুপুরে রাজধানীর লেক-শোর হোটেলের হল রুমে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

 


তিনি বলেন, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ করেছি, যে স্বপ্ন দেখেছি, এই সরকার তা ধুলিসাৎ করে দিয়েছে। এই দলটি একটার পর একটা কালো আইন চাপিয়ে দিয়েছে দেশের মানুষের ওপর।


ফখরুল বলেন, আমি সব সময় বলি, আশা ছেড় না। আমরা সংগ্রাম চালিয়ে যাব৷ জনগণের অধিকার ফিরিয়ে নিতে, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে আমরা সংগ্রাম চালিয়ে যাব। আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলন চালিয়ে যাব।


বিএনপি আয়োজিত এ মতবিনিময় সভায় বিষয়ের ওপর মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিএনপির ভাইস-চেয়রম্যান শওকত মাহমুদ। সঞ্চালনা করেন প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি।


বিএনপি নেতাদের মধ্যে স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মো. নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস-চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, রুহুল আলম চৌধুরী, সাংঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন বক্তব্য রাখেন।


এ ছাড়াও বক্তব্য রাখেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফর উল্লাহ চৌধুরী, নয়া দিগন্ত পত্রিকার সম্পাদক মো. আলমগীর মহিউদ্দিন, বাংলাদেশের খবর পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক মেজবাহ উদ্দিন, হলিডে সম্পাদক সৈয়দ কামাল উদ্দিন, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমেদ,  ইনকিলাব সহকারী সম্পাদক মেহেদী হাসান পলাশ, বিএফইউজে একাংশ সভাপতি রুহুল আমিন গাজী, ডিইউজে একাংশ সভাপতি কাদের গনি চৌধুরী, সমকালের প্রধান প্রতিবেদক লোটন একরাম, আমার দেশের বার্তা সম্পাদক জাহিদ চৌধুরী, ল' রিপের্টাস ফোরাম সভাপতি সাইদ আহমেদ খান, কলামিস্ট হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ,  এস এ টিভির বিশেষ প্রতিনিধি ইলিয়াস হোসেন।


বিএনপি নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ভাইস-চেয়ারম্যান আহমেদ আযম খান, উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, হাবিবুর রহমান হাবিব, আবুল খায়ের ভূইয়া, মামুন আহমেদ, আতাউর রহমান ঢালী, যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কামরুজ্জামান রতন, সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, শামা ওবায়েদ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, শহিদুল ইসলাম বাবুল, সহ-আন্তর্জাতিক সম্পাদক ফাহিমা নাসরিন মুন্নী, নির্বাহী কমিটির সদস্য সাঈদ সোহরাব, সৈয়দ আবু বকর সিদ্দিক সাজু, জেবা খান, শামসুজ্জামান সুরুজ, প্রেস উইং সদস্য শামসুদ্দিন দিদার, শায়রুল কবীর খান প্রমুখ।


সাংবাদিকদের মধ্যে ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভশনের প্রধান বার্তা সম্পাদক আশীষ সৈকত, জাতীয় প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান, আমাদের সময়ের সিনিয়র রিপোর্টার মামুন স্ট্যালিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


এ ছাড়াও  ঢাকায় নিযুক্ত ব্রিটেন, কানাডা, চায়না, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, যুক্তরাষ্ট্র, আফগানিস্তান, ফিলিস্তিন,রাশিয়া, তুর্কি, ভিয়েতনামের দূতাবাসের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

 


Top