স্কুল চলাকালীন ক্লাসরুমেই মদের আসর শিক্ষকদের! | daily-sun.com

স্কুল চলাকালীন ক্লাসরুমেই মদের আসর শিক্ষকদের!

ডেইলি সান অনলাইন     ৭ অক্টোবর, ২০১৮ ১৭:৩৫ টাprinter

স্কুল চলাকালীন ক্লাসরুমেই মদের আসর শিক্ষকদের!

স্কুল চলাকালীন ফাঁকা ক্লাসঘরে মদ্যপান করার অভিযোগ উঠল প্রধান শিক্ষক–সহ আরও পাঁচ শিক্ষকের বিরুদ্ধে। শিক্ষকদের এই অপ্রত্যাশিত আচরণের বিরুদ্ধে স্কুল পরিদর্শকের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেন কয়েকজন অভিভাবক।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মুর্শিদাবাদের সামশেরগঞ্জ কাঞ্চনতলা জেডিজে ইনস্টিটিউশনে। যদিও তাঁদের বিরুদ্ধে ওঠা মদ্যপানের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক মহম্মদ ফাইজুদ্দিন বিশ্বাস।

 

গত বৃহস্পতিবার স্কুল চলাকালীন টিফিনের সময় হঠাৎই প্রধান শিক্ষক ও তাঁর অনুগত ৫ জন শিক্ষক স্কুলের দোতলায় জীববিজ্ঞানের ক্লাসঘরে তালা বন্ধ করে পিকনিক করছিলেন। ক্লাস ছেড়ে এভাবে পিকনিক করায় প্রধান শিক্ষক ও তাঁদের অনুগত শিক্ষকদের আচরণে ক্ষুব্ধ হয়ে স্কুলেরই কয়েকজন শিক্ষক সরাসরি বন্ধ দরজার কাছে গিয়ে তাঁদের নিষেধ করতে থাকেন। অভিযোগ, ভিতরে পিকনিক করার নাম করে সকলে মদ্যপান করায় কোনও হুঁস না থাকায় আধঘণ্টা কেউ সাড়া দেননি। বারবার ডাকার পর ঘর থেকে তাঁরা বাইরে আসেন। শুরু হয় বাগ্‌–বিতণ্ডা।

 

শিক্ষকদের গোলমালে স্কুল থেকে ছাত্রছাত্রীরাও ক্লাস ছেড়ে বাইরে আসতেই বিশাল হইচই শুরু হয়ে যায়। প্রধান শিক্ষকের কাছে ঘরের ভিতরে কী করছিলেন এই কৈফিয়ত চাওয়ায় একজন শিক্ষককে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন আরেক শিক্ষক।

গোলমালের জেরে বৃহস্পতিবার স্কুল ছুটি হয়ে যায়। স্কুলের ঘটনা বাড়িতে এসে ছাত্রছাত্রীরা তাদের অভিভাবকদের জানাতেই স্কুলের পরিবেশ নিয়ে চরম অসন্তোষ প্রকাশ করে শুক্রবার ব্লক স্কুল ইনস্পেক্টরের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন কয়েকজন অভিভাবক। প্রধান শিক্ষকের অশোভনীয় আচরণের বিরুদ্ধে এসআই অফিসে অভিযোগ দায়ের করেন সহকারী শিক্ষকরাও।

 

মহম্মদ আমিনুল ইসলাম নামে এক অভিভাবক বলেন, ‘‌স্কুলের ভিতরে বসে শিক্ষকদের মদ্যপান কখনওই একজন অভিভাবক হিসেবে মেনে নিতে পারি না। শিক্ষকদের এই আচরণ স্কুলের মান–সম্মান ধুলায় মিশিয়ে দিয়েছে। শিক্ষকদের এই অপ্রত্যাশিত আচরণের তীব্র নিন্দার পাশাপাশি উপযুক্ত তদন্ত করে শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। ’‌ এদিকে স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগকারী নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষক বলেন, ‘‌স্কুলে শিক্ষকদের মধ্যে বিভাজন সৃষ্টি করে স্কুলের মধ্যে অপ্রীতিকর পরিবেশ সৃষ্টি করার চেষ্টা করছেন কয়েকজন শিক্ষক। আমরা ঘটনার তদন্ত চেয়ে স্কুল পরিদর্শককে বিস্তারিত জানিয়েছি। ’‌

 

যদিও গন্ডগোল হওয়ার কথা স্বীকার করলেও মদ্যপানের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে প্রধান শিক্ষক ফাইজুদ্দিন বিশ্বাস বলেন, ‘‌অভিযোগ মিথ্যা। সেদিন অল্প গন্ডগোল হয়েছিল আমরা মিটিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছি। ’‌ অন্যদিকে সামশেরগঞ্জ ব্লক এসআই অফিস থেকে জানানো হয়েছে, ‘‌স্কুলের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি খতিয়ে দেখে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেবে প্রশাসন। ’‌

 

অনলাইন ডেস্ক, তথ্য সূত্র: আজকাল


Top