গত অর্থবছরে বৈদেশিক সাহায্য এসেছে ১৪,৬১২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার: অর্থমন্ত্রী | daily-sun.com

গত অর্থবছরে বৈদেশিক সাহায্য এসেছে ১৪,৬১২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার: অর্থমন্ত্রী

ডেইলি সান অনলাইন     ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৫:৩৩ টাprinter

গত অর্থবছরে বৈদেশিক সাহায্য এসেছে ১৪,৬১২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার: অর্থমন্ত্রী

 

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেছেন, ঋণ ও অনুদান দেয়ার ঘোষণা দিয়েও শেষ পর্যন্ত অনেক দেশ ও দাতা সংস্থা তাদের প্রতিশ্রুত অর্থের পুরোটা দেয়নি। তবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) তাদের প্রতিশ্রুতির চেয়েও বেশি অর্থ দিয়েছে।

বুধবার (১২ সেপ্টেম্বর) জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে সরকারদলীয় সদস্য এ কে এম রহমতুল্লাহর লিখিত প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী সংসদকে এ তথ্য জানান।


আবুল মাল আবদুল মুহিত জানান, গত অর্থবছরে (২০১৭-১৮) বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ও দাতা সংস্থার কাছ থেকে বৈদেশিক প্রাপ্ত সাহায্যের পরিমাণ ছিল ১৪ হাজার ৬১২ দশমিক ১৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এসব অর্থের মধ্যে ঋণের পরিমাণ ১৪ হাজার ২৩১ দশমিক ৪৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, অনুদান ৩৮০ দশমিক ৭৩ মিলিয়র মার্কিন ডলার।


মন্ত্রী বলেন, প্রাপ্ত ঋণ ও অনুদানগুলো বৈদেশিক সাহায্য বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির মাধ্যমে কৃষি, পল্লী উন্নয়ন ও পল্লী প্রতিষ্ঠান, পানিসম্পদ, শিল্প, বিদ্যুৎ, তৈল-গ্যাস ও প্রাকৃতিক সম্পদ, পরিবহন, যোগাযোগ, ভৌত পরিকল্পনা, পানি সরবরাহ, শিক্ষা ও ধর্ম, স্বাস্থ্য-পুষ্টি জনসংখ্যা ও পরিবার কল্যাণ, সমাজ কল্যাণ-যুব উন্নয়ন ও মহিলা বিষয়ক, জনপ্রশাসন, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি, গণযোগাযোগ, বিজ্ঞান-তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সেক্টর ও সাব-সেক্টরে সর্বাধিক ব্যবহার হয়েছে। এ প্রকল্প যথাসময়ে বাস্তবায়নের জন্য ইআরডি’র মনিটরিং ব্যবস্থা চালু আছে।


তিনি জানান, ঋণ ও অনুদান দেয়া দেশ ও সংস্থাগুলোর মধ্যে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের প্রতিশ্রুত ৭৮০ দশমিক ৬৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের মধ্যে পাওয়া গেছে ৮৯৬ দশমি ৩৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, আইডিএ (বিশ্বব্যাংক) প্রতিশ্রুত ২৯৩০ দশমিক ৬৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের বিপরীতে প্রাপ্ত অর্থের পরিমাণ ১৪২২ দশমিক ৬৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, চীনের প্রতিশ্রুত ৩৬০৭ দশমিক ৩০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের বিপরীতে প্রাপ্ত অর্থের পরিমাণ ৯৭৮ দশমিক ৬৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, ইউএন সংস্থার প্রতিশ্রুত ১৮৩ দশমিক ০৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের বিপরীতে প্রাপ্ত অর্থের পরিমাণ ১৬৯ দশমিক ৯৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, আইডিবির প্রতিশ্রুত ১১৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের বিপরীতে প্রাপ্ত অর্থের পরিমাণ ৩২ দশমিক ৯৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, জাপানের প্রতিশ্রুত ১৮২৮ দশমিক ৬৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের বিপরীতে প্রাপ্ত অর্থের পরিমাণ ১৫৪৪ দশমিক ১৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, ভারতের প্রতিশ্রুত ৪৫০৭ দশমিক ৪৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের বিপরীতে প্রাপ্ত অর্থের পরিমাণ ৪৯ দশমিক ৯০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। রাশিয়ার প্রতিশ্রুত সব অর্থ পাওয়া গেছে, দেশটির প্রাপ্ত অর্থের পরিমাণ ৮৩২ দশমিক ৮২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

 


Top