নিকেলের খনিতে কয়েক মণ সোনা! | daily-sun.com

নিকেলের খনিতে কয়েক মণ সোনা!

ডেইলি সান অনলাইন     ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৭:৫৭ টাprinter

নিকেলের খনিতে কয়েক মণ সোনা!

নিকেলের খনি থেকে মিললো সোনা। তাও অল্প স্বল্প নয়, মোট ১১০ কোটি মার্কিন ডলার মূল্যের সোনা মিললো খনিটি থেকে।

নিকেলের খনি থেকে পাওয়া যায় ৯৫ কেজি ও ৬৩ কেজি ওজনের দুটি পাথর, আর এ পাথর দুটিতেই রয়েছে এ মহামূল্যবান সোনা।  

 

গত রোববার, রয়্যাল নিকেল কর্পোরেশন (আরএনসি) খনির ভেতর এমন ঘটনা ঘটে বলে তারা জানান। তারা জানায়, অন্যদিনের মতোই অস্ট্রেলিয়ার বিটা হান্ট খনিতে ধাতু উত্তোলনের কাজ চলছিল। সেখানেই মিলে এ ‘গোল্ডেন বোল্ডার’।

 

আরএনসি জানায়, সোনামিশ্রিত বিশাল আকৃতির পাথরখণ্ড দুটির বড়টির ওজন প্রায় ৯৫ কিলোগ্রাম এবং ছোটটির ওজন প্রায় ৬৩ কিলোগ্রাম। এতে প্রায় ১১০ কোটি ডলারের সোনা রয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

 

নিকেলের খনিতে সোনা পাওয়ার ঘটনা এটিই নতুন নয়। মূলত অস্ট্রেলিয়ার নিকেল খনিগুলোতে নিয়মিত সোনা পাওয়া যায়। গত জুন মাসেও খনির আরও নিম্নপৃষ্ঠের পাথর থেকে সোনা পাওয়া গিয়েছিল।

এ খনি থেকেই প্রতি টন পাথরের মধ্যে ২২০০ গ্রামের মতো সোনা পাওয়া গেছে।

 

আরএসনসি মুখপাত্র বলছেন, এবারে একসাথে এতবেশি সোনা পাওয়া অভূতপূর্ব ঘটনা। মজার ব্যাপার হচ্ছে আরএনসি ২০১৬ সালে প্রায় ৮৮ কোটি ডলার দিয়ে নিকেলের খনিটা কিনেছিল। কিন্তু এ দুই সোনার খণ্ডের দামই পুরো খনির দামকেই ছাড়িয়ে গেছে।

অবশ্য অন্যরকম আকৃতির কারণে পাথরগুলো থেকে সোনা বের না করে এগুলোকে বিক্রি না করে সংগ্রহশালায় রেখে দেয়ার প্রতি মত দিয়েছেন ভূবিজ্ঞানীরা।

 

ওয়ার্ল্ড গোল্ড কাউন্সিল বলছেন, এটি হচ্ছে ‘ওয়ান অব দ্য লার্জেস্ট গোল্ড নাগেট’। আরএনসির তরফ থেকেও বলা হয়েছে, সংগ্রাহক বস্তু হিসেবে বড় পাথর খণ্ডটি নিলামেও তোলা হতে পারে।

 


Top