বিদেশে স্থায়ী হচ্ছেন নাঈম-নাদিয়া? | daily-sun.com

বিদেশে স্থায়ী হচ্ছেন নাঈম-নাদিয়া?

ডেইলি সান অনলাইন     ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৫:২৬ টাprinter

বিদেশে স্থায়ী হচ্ছেন নাঈম-নাদিয়া?

কিছুদিন আগে আমেরিকায় পাড়ি দিয়েছেন তমালিকা কর্মকার। অভিনয় থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিয়ে সেখানেই স্থায়ী হয়েছেন।

তার মতোই বিদেশে স্থায়ী হতে চলেছেন আরেক অভিনেত্রী নাদিয়া আহমেদ।

 

জানা যায়, অনেকদিন ধরেই এই নৃত্যশিল্পীর পরিবারের অনেক সদস্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে থাকেন। পরিবারের সকলেই সেখানকার স্থায়ী বাসিন্দা। কিছুদিন আগে সেখানে মায়ের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন। শোনা যাচ্ছে, নাদিয়া সেখানে স্থায়ী হওয়ার প্লান করছেন। তাঁর সঙ্গে স্বামী নাঈমও সঙ্গী হচ্ছেন।  

 

বিদেশে স্থায়ী হওয়ার চিত্র তারকাদের ক্ষেত্রে নতুন কিছু নয়। বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি অভিনেত্রী শাবানা অনেকদিন ধরেই রয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানেই স্থায়ী আবাস গড়েছেন স্বপরিবারে।

চিত্রনায়িকা রোজিনা থাকেন যুক্তরাজ্যে। ববিতারও অনেকটা সময় কাটে কানাডাতে, একমাত্র ছেলের সঙ্গে। তারা কালেভদ্রে দেশে আসেন, আবার ফিরে যান।

 

অনেকেই হতাশা নিয়ে, অভিমান নিয়ে দেশ ছাড়ছেন। চেষ্টা করছেন বিদেশে স্থায়ী হতে। গেল কয়েকবছরে যা বাড়ছে। তারকাদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে ইউরোপ-আমেরিকার দেশগুলো। বিশেষ করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও কানাডাতেই চোখ বেশি তারকাদের। এসব তারকার মধ্যে রয়েছেন টনি ডায়েস- প্রিয়া ডায়েস, মিলা হোসাইন, তিন্নি, শিরীন বকুল, রোমানা, শায়না আমিন, নাফিজা জাহান, মোনালিসা, ঈশিকা খান, রিচি সোলাইমানদের নাম। এদের মধ্যে মোনালিসা, মিলা, রিচি, ঈশিকা মাঝে মধ্যেই দেশে আসেন। বিশেষ করে ঈদের মতো উৎসবগুলোতে দেখা মেলে তাদের। এসে নাটক-টেলিছবি ও বিজ্ঞাপনে কাজ করে আবার ফিরে যান। শোবিজের অনেকেরই কাছে তারা শীতের পাখি বলে পরিচিত।

 

তাঁরা যে ক্যারিয়ারের ভাটায় বিদেশমুখী হয়েছেন তা কিন্তু নয়। অনেকেই বিয়ে করে স্বামী বা শ্বশুরবাড়ির ইচ্ছেতেও সেসব দেশে স্থায়ী হয়েছেন। সংসারী হতে বিদায় দিচ্ছেন প্রিয় শোবিজকে।

 


Top