মিয়ানমারের ওপর আবার নিষেধাজ্ঞা আরোপ ইউরোপীয় ইউনিয়নের | daily-sun.com

মিয়ানমারের ওপর আবার নিষেধাজ্ঞা আরোপ ইউরোপীয় ইউনিয়নের

ডেইলি সান অনলাইন     ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৭:১৯ টাprinter

মিয়ানমারের ওপর আবার নিষেধাজ্ঞা আরোপ ইউরোপীয় ইউনিয়নের

রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারের সমালোচনায় বরাবরই মুখর ছিল ইউরোপীয় ইউনিয়ন। এরই ধারাবাহিকতায় দেশটির ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে যাচ্ছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

 

রাখাইনে রোহিঙ্গা নিধনে জড়িতদের বিচারের মুখোমুখি করতে জাতিসংঘের আহ্বানের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে, ইইউ এ নিষেধাজ্ঞার পরিকল্পনা করছে বলে জানান জোটের একাধিক কর্মকর্তা। এর মধ্যেই, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে নৃশংসতার বিষয়ে তদন্ত শুরু করতে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।

 

রোহিঙ্গা নির্যাতনে জড়িতদের বিচার ও তাদের রাখাইনে ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারের ওপর চাপ প্রয়োগে বিশ্ব সম্প্রদায় যখন ব্যর্থ, তখন বিষয়টি নিয়ে বেশ তৎপর হয়ে উঠেছে জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত। মিয়ানমার সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধাপোরাধের অভিযোগ এনে জাতিসংঘ তদন্ত কমিশনের প্রতিবেদন প্রকাশ, মিয়ানমারকে বিচারের মুখোমুখি করতে আইসিসির রুল জারির পর, এবার রোহিঙ্গা নিধন তদন্তে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের প্রতি আহ্বান জানালো জাতিসংঘ।

 

আগে থেকে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর ৭ শীর্ষ কর্মকর্তার ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি থাকলেও, এবার মিয়ানমারের বিরুদ্ধে নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপের চিন্তা করছে ইউরোপের দেশগুলো।

 

সাংবাদিকদের সঙ্গে এক আলোচনায় ইইউ'র ৩ কর্মকর্তা জানান, রাখাইনে রোহিঙ্গা নৃশংসতায় জড়িত সেনাকর্মকর্তাদের বিচারের মুখোমুখি করতে জাতিসংঘের আহ্বানে সাড়া দিয়ে এ সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে জোটটি। মিয়ানমারের শীর্ষ কর্মকর্তা ও দেশটির সেনাবাহিনীর সঙ্গে জড়িত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান লক্ষ্য করে এ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হতে পারে বলে ইঙ্গিত দেন তারা। এছাড়া মিয়ানমারের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে আগামী সপ্তাহে জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদে একটি প্রস্তাব উত্থাপন করবে ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

 

এর মধ্যেই মিয়ানমারে এখনো গণহত্যা অব্যাহত আছে বলে জানিয়েছে বার্মা হিউম্যান রাইটস নেটওয়ার্ক।

শনিবার এক টুইট বার্তায় সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক কিয়াও উইন বলেন, রোহিঙ্গাদের ওপর অত্যাচার নির্যাতন এখনো শেষ হয়ে যায়নি, রাখাইনে থেকে যাওয়া ৫ লাখ রোহিঙ্গা মিয়ানমারে অনিশ্চিত জীবন যাপন করছে।


Top