মীর কাসেমের ফাঁসি: কাশিমপুর না কেরানীগঞ্জে? | daily-sun.com

মীর কাসেমের ফাঁসি: কাশিমপুর না কেরানীগঞ্জে?

ডেইলি সান অনলাইন     ৩১ আগস্ট, ২০১৬ ১৪:০৪ টাprinter

মীর কাসেমের ফাঁসি: কাশিমপুর না কেরানীগঞ্জে?

 

এর আগে পাঁচজন যুদ্ধাপরাধীর মৃত‌্যুদণ্ড কার্যকর হয়েছে এবং সবার ক্ষেত্রেই তা হয় পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন সড়কের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে। ২০১৩ সালে আব্দুল কাদের মোল্লা থেকে শুরু করে দণ্ডিত সবাইকে গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার থেকে এনে নাজিমউদ্দিন সড়কের কারাগারের কাঁসিকাষ্ঠে নেওয়া হয়েছিল।

বহু পুরনো সেই কারাগার সম্প্রতি সরে গেছে রাজধানীর উপকণ্ঠে কেরানীগঞ্জে, আর এর মধ‌্যেই আরেক যুদ্ধাপরাধী মীর কাসেম আলীর আইনি লড়াইয়ের চূড়ান্ত নিষ্পত্তি হয়েছে।

 

মৃত‌্যুদণ্ড কার্যকরের প্রক্রিয়া এখন শুরু করতে বাধা নেই বলে মঙ্গলবার আপিল বিভাগের রায়ের পরপরই জানান রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা মাহবুবে আলম। সেক্ষেত্রে জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নেতা মীর কাসেমের মৃত‌্যুদণ্ড কার্যকর কি কেরানীগঞ্জের নতুন কারাগারে, না কি কাশিমপুর কারাগারে হবে, সেই প্রশ্ন উঠেছে অনেকের মধ্যে।

 

উত্তর খুঁজতে গিয়ে জানা যায়, মীর কাসেম আলীর ফাঁসি কাশিমপুর, না কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগার, এই দুটির মধ্যে কোথায় কার্যকর করা হবে, এখনো এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। ফাঁসি কার্যকর করতে প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে। তবে মীর কাসেম আলীর রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদনের ওপর নির্ভর করছে। তবে উভয় কারাগারের কর্মকর্তারাই বলছেন, সিদ্ধান্ত যাই হোক, তাদের প্রস্তুতি রয়েছে।

 

নাজিমউদ্দিন সড়কে কারাগার না থাকায় কেরানীগঞ্জে হোক আর কাশিমপুরে হোক, দুটি ক্ষেত্রেই মীর কাসেম হবেন প্রথম যুদ্ধাপরাধী, যার কারাদণ্ড নতুন কোনো কারাগারে হচ্ছে। ষাটোর্ধ্ব মীর কাসেম এখন রয়েছেন সুরক্ষিত কাশিমপুর কারাগারে।

আজ বুধবার সকালে কাশিমপুর কারাগারে মীর কাসেমকে রায় পড়ে শোনায় কারা কর্তৃপক্ষ। কাশিমপুর কারাগার-২-এর কারা তত্ত্বাবধায়ক প্রশান্ত কুমার বণিক বলেন, গতকাল দিবাগত রাত পৌনে একটার দিকে পূর্ণাঙ্গ রায়ের অনুলিপি কাশিমপুর কারাগারে আসে। আজ সকাল সাড়ে সাতটার দিকে মীর কাসেমকে রায় পড়ে শোনানো হয়। এরপর দুপুরে তাঁর সঙ্গে দেখা করতে পরিবারের সদস্যরা কাশিমপুর কারাগারে গেছেন।

 


Top