শোলাকিয়ায় ১৯১তম ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত | daily-sun.com

শোলাকিয়ায় ১৯১তম ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত

ডেইলি সান অনলাইন     ২২ আগস্ট, ২০১৮ ১২:০৪ টাprinter

শোলাকিয়ায় ১৯১তম ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত

 

ত্যাগ আর আনন্দে সারা দেশে বুধবার (২২ আগস্ট) উদযাপিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল আজহা। এদিন দেশের সর্ববৃহৎ ঈদগাহ মাঠে ঈদ-উল-আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায়।

সকাল নয়টায় শোলাকিয়ার ১৯১তম ঈদ জামাত শুরু হয়। এর আগে সকাল থেকে দলে দলে মুসল্লিরা শোলাকিয়ায় আসতে শুরু করেন।


এই জামাতে ইমামতি করেন মাওলানা মুফতি হিফজুর রহমান খান। নামাজ শেষে বিশ্ব মুসলিম উম্মার শান্তি কামনা করে মোনাজাত করা হয়।


ঈশা খাঁর বংশধর দেওয়ান মান্নান দাদ খান ১৮২৮ সালে জেলা শহরের পূর্বপাশে নরসুন্দা নদীর তীরে প্রায় সাত একর জমির ওপর এই ঈদগাহ প্রতিষ্ঠা করেন।


দেশের সবচেয়ে বড় এই ঈদগাহ ময়দানে নামাজ আদায় নির্বিঘ্ন করতে চার স্তরের নিরাপত্তাব্যবস্থা নেয় স্থানীয় প্রশাসন। মোতায়েন করা হয় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব), বিপুলসংখ্যক পুলিশ সদস্যসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য। মাঠের ভেতর ও বাইরে ছিল সিসি ক্যামেরা। পুরো মাঠ নজরদারির জন্য ছিল দুটি ড্রোন।

এমনকি পর্যবেক্ষণ টাওয়ারের মাধ্যমে আগত ব্যক্তিদের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করা হয়।


নিরাপত্তার স্বার্থে কাউকে ছাতা বা কোনও ধরনের ব্যাগ নিয়ে ঢুকতে দেয়া হয়নি ঈদগাহ মাঠে। শুধু পাতলা জায়নামাজ নিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে নামাজ আদায় করেন মুসল্লিরা। মুসল্লিদের যাতায়াতে দুটি বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়।


২০১৬ সালের ৭ জুলাই ঈদের দিন শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠের অদূরে পুলিশ সদস্যদের ওপর সশস্ত্র হামলা চালায় জঙ্গিরা। এতে জঙ্গিদের নৃশংস চাপাতির কোপে পুলিশের দুই সদস্য, গুলিবিদ্ধ হয়ে স্থানীয় এক নারী, এক সন্ত্রাসীসহ চারজন নিহত হন।


শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠ কমিটির সভাপতি ও কিশোরগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ জানান, ২০১৬ সালের ঈদের অপ্রত্যাশিত হামলার বিষয়টি মাথায় রেখে এবারও মাঠে বাড়তি নিরাপত্তাব্যবস্থা নেয়া হয়েছিল।


কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বলেন- নিরাপত্তার জন্য আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছিলাম। কোনও অসুবিধা হয়নি। নামাজ আদায় করে নির্বিঘ্নে মুসল্লিরা যার যার ঘরে ফিরে গেছেন।

 


Top