আ. লীগকে পুনরায় ক্ষমতায় বসাতে ইভিএম ব্যবহারের পায়তারা করছে সিইসি: রিজভী | daily-sun.com

আ. লীগকে পুনরায় ক্ষমতায় বসাতে ইভিএম ব্যবহারের পায়তারা করছে সিইসি: রিজভী

ডেইলি সান অনলাইন     ১৯ আগস্ট, ২০১৮ ২০:৩৩ টাprinter

আ. লীগকে পুনরায় ক্ষমতায় বসাতে ইভিএম ব্যবহারের পায়তারা করছে সিইসি: রিজভী

- ফাইল ফটো

 

আগামী নির্বাচনে কারচুপির মাধ্যমে জনবিচ্ছিন্ন আওয়ামী সরকারকে পুনরায় ক্ষমতায় বসানোর জন্যে সিইসি (প্রধান নির্বাচন কমিশনার) ও কমিশনের সচিব বিতর্কিত ইভিএম ব্যবহারের পায়তারা করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, আগামী নির্বাচন পুরোপুরি জালিয়াতির ওপর সাজাতেই এ প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে।

রবিবার (১৯ আগস্ট) নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন রুহুল কবির রিজভী।


তিনি বলেন, ইভিএম (ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন) মানেই ত্রুটিযুক্ত নির্বাচন। ইভিএম দিয়ে কখনো সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। ইভিএমে সাধারণ মানুষের আস্থা নেই। এ মেশিন দ্বারা ডিজিটাল কারচুপি হওয়া সম্ভব।


রিজভী আরও বলেন, তাড়াহুড়ো করে দেড় লাখ ইভিএম মেশিন কেনার উদ্যোগ নিয়েছে বলে গণমাধ্যমে খবর বেরিয়েছে। যার ব্যয় হবে ৩ হাজার ৮২১ কোটি ৪০ লাখ ৬০ হাজার টাকা। অথচ ইসির সঙ্গে সংলাপে আওয়ামী লীগ ছাড়া প্রায় সব রাজনৈতিক দল, সুশীল সমাজ, পেশাজীবী সংগঠন ইভিএমের বিপক্ষে মত দিয়েছে। এমনকি প্রধান নির্বাচন কমিশনারও একাধিকবার বলেছেন সবাই না চাইলে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার হবে না।

সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানের সর্বোচ্চ ব্যক্তির গণমাধ্যমে জাতির উদ্দেশ্যে বক্তব্য অঙ্গীকারনামার মত বিবেচিত হয়। কিন্তু প্রতিশ্রুতির বক্তব্য থেকে সরে গিয়ে সিইসি দেড় লাখ ইভিএম মেশিন ক্রয় করার উদ্যোগ নিচ্ছেন।


গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ ১৯৭২ সংশোধন করে ইভিএম ব্যবহারের বিধান অর্ন্তভূক্ত করা হতে পারে ইসি সচিববের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, ইসি সচিবের এ ইঙ্গিত সম্পূর্ণভাবে জনগনের সাথে প্রতারনা। তিনি আওয়ামী নেতাদের হুকুম তামিল করেন নির্বাচন কমিশনে। সেজন্য তিনি প্রায় প্রতিদিন আওয়ামী লীগের অফিসে বৈঠক করেন। কোন অবস্থাতেই আগামী নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করতে দেওয়া হবে না। আগামী নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের অশুভ তৎপরতা বন্ধ করতে জনগন প্রস্তত।


রুহুল কবির রিজভী আরো বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনকে নির্বাসনে পাঠিয়ে এখন আগামী নির্বাচন নিয়ে সরকার নতুন নতুন ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনের আগেই এ সরকারের পতন হবে এমন আলামত দেখে দেশব্যাপী মিথ্যা মামলার ছড়াছড়ি আর নির্বিচারে গ্রেফতারের হিড়িক শুরু হয়েছে। ঈদের প্রাক্কালেও দেশজুড়ে গণগ্রেফতারের অবিরাম অভিযান চলছে।


প্রসঙ্গত, আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের বিষয়টি যুক্ত করে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) সংশোধন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম। রবিবার (১৯ আগস্ট) বিকেলে আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন কবিতা খানম।


তিনি বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আমাদের কাজ চলছে। আরপিও সংশোধনের কাজ চলছে। এটি নিয়ে দুটি কমিশন বৈঠকও হয়েছে। সেখানে কিছু সংশোধন বা আরও কিছু প্রস্তাবনা এসেছে। এখন এটি কমিশন বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।


নির্বাচন কমিশনার আরও বলেন, আরপিও তো আমরা পাস করতে পারব না। এবিষয়ে আগে কমিশন বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। আগামী সংসদ অধিবেশনে এটি পাঠাতে আমরা কাজ করছি। কমিশনে সিদ্ধান্ত হলে তারপর সংসদে পাঠানো হবে।

 


Top