এবার ‘লাইসেন্সবিহীন’ আরেক বাসচালকের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর গাড়িতে ধাক্কা | daily-sun.com

এবার ‘লাইসেন্সবিহীন’ আরেক বাসচালকের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর গাড়িতে ধাক্কা

ডেইলি সান অনলাইন     ১১ আগস্ট, ২০১৮ ১৩:৫১ টাprinter

এবার ‘লাইসেন্সবিহীন’ আরেক বাসচালকের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর গাড়িতে ধাক্কা

 

সারা দেশে চলমান ট্রাফিক সপ্তাহের মধ্যেই এবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালকে বহনকারী গাড়িতে ধাক্কা দিয়েছে একটি যাত্রীবাহী বাস। শুক্রবার (১০ আগস্ট) রাত ৯টার দিকে রাজধানীর কলেজগেট এলাকায় নিউভিশন পরিবহনের একটি বাস স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে বহনকারী গাড়িতে ধাক্কা দেয়।

 


ঘটনার পরে পুলিশ বাসটিকে জব্দ করেছে এবং বাসচালক ও হেলপারকে আটক করেছে। তবে এই বাসচালকেরও কোনো ড্রাইভিং লাইসেন্স নেই বলে জানিয়েছে পুলিশ।  

 

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেরেবাংলা নগর জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে একজন রোগী দেখে বেরিয়ে যাওয়ার সময় পেছন থেকে নিউভিশন পরিবহনের একটি বাস তার গাড়িতে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়।


শেরেবাংলানগর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইয়াদুল হক জানান, বাসটি মিরপুর থেকে মতিঝিলের দিকে যাচ্ছিল। তখন হেলপার ইব্রাহীম খলিল ইমন (২২) বাসটি চালাচ্ছিল। তার কোনও ড্রাইভিং লাইসেন্স ছিল না।

 

প্রসঙ্গত, গত রবিবার (২৯ জুলাই) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে হোটেল রেডিসনের বিপরীতে জাবালে নূর পরিবহনের একটি বেপরোয়া বাস চাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহত ও অন্তত ১২ শিক্ষার্থী আহত হন। নিহতদের একজন ওই কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম রাজিব (১৬), অন্যজন একাদশ শ্রেণির ছাত্রী দিয়া খানম মিম (১৫)।  

 

ট্রাফিক সপ্তাহ উদ্বোধনী দিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল ও ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া


ঘাতক ওই বাসের চালকেরও লাইসেন্স ছিলনা।

এছাড়া বাসটির ফিটনেস সার্টিফিকেটও ছিল মেয়াদোতীর্ণ। বর্তমানে ঘাতক বাসটির চালক ও মালিক দুইজনই বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ড শেষে কারাগারে রয়েছেন।


এই দুর্ঘটনার দিন থেকেই রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক অবরোধ করে আন্দোলন শুরু করে কলেজটির শিক্ষার্থীরা। এরপর নিরাপদ সড়ক, শিক্ষার্থীবান্ধব পরিবহন ব্যবস্থা, নৌমন্ত্রী ও সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কার্যনির্বাহী সভাপতি শাজাহান খানের পদত্যাগসহ ৯ দফা দাবিতে টানা নয়দিন রাজপথে আন্দোলনে ছিল দেশের বিভিন্ন স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রী।

 

এছাড়া নিরাপদ সড়ক ও শিক্ষার্থীবান্ধব পরিবহন ব্যবস্থার দাবিতে শিক্ষার্থীদের টানা ৯ দিনের আন্দোলনের মধ্যেই গত ৫ আগস্ট শুরু হওয়া ট্রাফিক সপ্তাহের ছয় দিনে এক লাখ ৫৪ হাজার ৫৩টি মামলা দিয়েছে পুলিশ। পাশাপাশি জরিমানা করেছে তিন কোটি ৭৭ লাখ ৫৯ হাজার ২২৩ টাকা। এ সময় ৪০ হাজার ৬৩০ চালকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা ও তিন হাজার ৫৪৪ যানবাহন আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ সদর দফতর।  


এসময় যানবাহনের ফিটনেস, রেজিস্ট্রেশন এবং ট্রাফিক আইন অমান্যের ঘটনায় সারাদেশে এক লাখ ১৩ হাজার ৪২৩টি যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা দিয়েছে পুলিশ। জরিমানা করা হয়েছে তিন কোটি ৭৭ লাখ ৫৯ হাজার ২২৩ টাকা।


এছাড়া ৪০ হাজার ৬৩০ চালকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা ও তিন হাজার ৫৪৪টি যানবাহন আটক করেছে। ১১ আগস্ট পর্যন্ত ট্রাফিক সপ্তাহ চলমান থাকবে।

 


Top