প্রস্তাবিত সড়ক পরিবহন আইনে দুর্বৃত্ত ও গডফাদাররা ধরা-ছোঁয়ার বাইরে থাকবে: রিজভী | daily-sun.com

প্রস্তাবিত সড়ক পরিবহন আইনে দুর্বৃত্ত ও গডফাদাররা ধরা-ছোঁয়ার বাইরে থাকবে: রিজভী

ডেইলি সান অনলাইন     ৭ আগস্ট, ২০১৮ ১৫:০৩ টাprinter

প্রস্তাবিত সড়ক পরিবহন আইনে দুর্বৃত্ত ও গডফাদাররা ধরা-ছোঁয়ার বাইরে থাকবে: রিজভী

 

মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮-কে ‘শুভঙ্করের ফাঁকি’ বলে উল্লেখ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী। তিনি বলেন, প্রস্তাবিত সড়ক পরিবহন আইনে দুর্বৃত্ত ও গডফাদাররা ধরা-ছোঁয়ার বাইরে থাকবে।

এটি একটি শুভঙ্করের ফাঁকি। যদিও এ আইন আদৌ সংসদে পাস হবে কি না তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন নাগরিকরা। মঙ্গলবার (৭ আগস্ট) দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন রিজভী আহমেদ।


তিনি বলেন, ‘এ আইন নিরাপদ সড়কের জন্য পর্যাপ্ত নয়। এ আইনের ফলে গণপরিবহনে নিরাপত্তা ও সুশৃঙ্খল পরিবেশ ফিরে আসবে কি না তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। ’


রিজভী বলেন, কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ওপর অবিরাম হামলা অব্যাহত রেখেছে পুলিশ-ছাত্রলীগ-যুবলীগ ও আওয়ামী সন্ত্রাসীরা। গত কয়েকদিন ধরে যেভাবে শিক্ষার্থীদের ওপর, সাংবাদিকদের ওপর পুলিশের পাশাপাশি ছাত্রলীগ-যুবলীগ সশস্ত্র অবস্থায় হামলা করেছে তা দেখে দেশের মানুষ হতভম্ব। কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ওপর বর্বর ও নিষ্ঠুর হামলায় ঘটনায় আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানসহ সারা বিশ্বে নিন্দার ঝড় বইছে।


বিএনপির এই নেতা বলেন, গতকাল ওবায়দুল কাদের সাহেব সাংবাদিকদের বলেছেন সাংবাদিকদের ওপর ছাত্রলীগ হামলা করেনি।

সাংবাদিকদের রসিকতা করে বলেছেন কারা হামলা করেছে তালিকা দেন। আমি বিচার করবো। ওবায়দুল কাদের সাহেব সাংবাদিক ছিলেন বলেই আমি জানতাম, কিন্তু তিনি এখন গণমাধ্যমে চোখ রাখা ভুলে গেছেন বলেই এ ধরনের অন্ধ, অজ্ঞ ও অর্বাচীনের মতো কথা বলছেন। মানুষ তার বক্তব্যকে কমিক এন্টারটেইনমেন্ট হিসেবে ধরে। ওবায়দুল কাদের সাহেব ছাত্রলীগের রামদা, পিস্তল, লোহার রড ও লাঠি দেখতে পান না। কিছু চতুষ্পদ প্রাণী আছে কালারব্লাইন্ড, আর আওয়ামী সরকার হচ্ছে ক্ষমতাব্লাইন্ড।


সাবেক এই ছাত্র নেতা বলেন, সরকার উস্কানির কথা বলে বিএনপির মহাসচিবসহ সিনিয়র নেতাদের নামে মামলা দিয়েছে। আমরা শিক্ষার্থীদের ন্যায্য আন্দোলনে সমর্থন দিয়েছি। সব রাজনৈতিক দলসহ সর্বস্তরের মানুষও সমর্থন দিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের মন্ত্রী ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বলেছেন কোমলমতি শিক্ষার্থীরা সরকারের ভুল ধরিয়ে দিয়েছে। সবাই মিলে তাদের সাধুবাদ জানালেন, এ কথা যদি উস্কানির পর্যায়ে না পড়ে, তাহলে বিএনপি কোথায় উস্কানি দিল? অবশ্য স্বভাবনিষ্ঠুর সরকার প্রধানের কাছ থেকে এর চেয়ে ভাল কিছু আশা করা যায় না।


আলোকচিত্রী ও দৃক গ্যালারির ব্যবস্থাপনা পরিচালক শহিদুল আলমের গ্রেফতারের প্রসঙ্গ তুলে ধরে রিজভী বলেন, এ সরকারের হাতে এখন আর কেউ নিরাপদ নয়। লেখক, সাংবাদিক, কলামিস্ট, ছাত্র, শিক্ষক, রাজনীতিবিদ, নারী কিংবা শিশু কেউ নিরাপদ নয়। মত প্রকাশের স্বাধীনতা বলতে কিছুই নেই।


সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আহমেদ আযম খান, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবীর খোকন, প্রকাশনা সম্পাদক হাবিবুল ইসলাম হাবিব, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম, সহ দফতর সম্পাদক মো. মুনির হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


প্রসঙ্গত, সর্বোচ্চ পাঁচ বছরের সাজা ও পাঁচ লাখ টাকা জরিমানার বিধান রেখে বহুল আলোচিত ‘সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮’ এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সোমবার (৬ আগস্ট) সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই অনুমোদন দেয়া হয়।


যদিও মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত ওই সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮ তে যাত্রী স্বার্থ রক্ষা হয়নি বলে অভিযোগ করেছে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি। সোমবার (৬ আগস্ট) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে সংগঠনের মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী এই অভিযোগ করেন।  


এছাড়া সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮-তে বেশ কিছু চিহ্নিত ঘাটতি ও দুর্বলতা রয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় গবেষণা সংস্থা পিপিআরসির নির্বাহী চেয়ারম্যান, অর্থনীতিবিদ এবং সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ড. হোসেন জিল্লুর রহমান। তিনি বলেন, আইনটি কিছু কাঁচাভাবে তৈরি করা হয়েছে বলা যায়। গত রবিবার (৫ আগস্ট) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে রোড সেইফটি অ্যান্ড ট্রান্সপোর্ট এ্যালায়েন্সের উদ্যোগে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসবকথা বলেন হোসেন জিল্লুর রহমান।

 

আরও পড়ুন:

 

সড়ক পরিবহন আইনে যাত্রীস্বার্থ রক্ষা হয়নি: যাত্রী কল্যাণ সমিতি

 

সড়ক পরিবহন আইনের তিনটি ধারা জামিন অযোগ্য: আইনমন্ত্রী

 

সড়ক পরিবহন আইনের চূড়ান্ত খসড়ায় অনুমোদন, সর্বোচ্চ সাজা ৫ বছর

 

সড়ক পরিবহন আইনে চিহ্নিত কিছু ঘাটতি রয়েছে: হোসেন জিল্লুর রহমান

 

নতুন সড়ক পরিবহন আইনে যা থাকছে

 


Top