সেপটিক ট্যাংকের বিষাক্ত গ্যাসে ৩ জনের মৃত্যু | daily-sun.com

সেপটিক ট্যাংকের বিষাক্ত গ্যাসে ৩ জনের মৃত্যু

ডেইলি সান অনলাইন     ৬ আগস্ট, ২০১৮ ২০:৩২ টাprinter

 সেপটিক ট্যাংকের বিষাক্ত গ্যাসে ৩ জনের মৃত্যু

 নরসিংদীতে নির্মাণাধীন একটি বাড়ির কাজ করছিলেন শ্রমিকরা। সেখানে নির্মিত সেপটিক ট্যাংকের ভেতরের কাঠ-বাঁশ খোলার জন্য প্রবেশ করেন এক শ্রমিক।

তার সাড়া শব্দ না পেয়ে খোঁজ নিতে যান ভবনের ঠিকাদার। তারও সাড়া শব্দ না পেয়ে নামেন আরেক শ্রমিক।  

 

এভাবে একে একে তিন জন নামার পরও কোনো সাড়া শব্দ না পেয়ে উপরে থেকে মাথা ঢুকিয়ে ঘটনা বুঝার চেষ্টা করেন আরেক শ্রমিক। তিনি অসুস্থ হয়ে পড়ে যান। পরে অন্যান্যরা খবর দেন ফায়ার সার্ভিসকে।  ফায়ার সার্ভিস একে একে তিনজনকে উদ্ধার করে। তাদেরকে হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

 

সোমবার বেলা সাড়ে ৩টার দিকে ঘটনাটি ঘটেছে নরসিংদী শহরের বিলাসদি ব্যাংক কলোনি এলাকায়।  নিহতরা হলেন- ঠিকাদার সিরাজ (৩৫), শ্রমিক রমিজ (১৭) ও রাকিব (২২)।

 

পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা গেছে, শহরের বিলাসদি ব্যাংক কলোনি এলাকায় নতুন একটি বাড়ি নির্মানের কাজ চলছিল। কয়েকদিন আগে সেপটিক ট্যাংকের ছাদের ঢালাই দেয়া হয়। সোমবার দুপুরে ট্যাংকির ভেতরে কাঠ ও বাঁশ খোলার জন্য গিয়ে এ ঘটনা ঘটে।  

 

পরে ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা ট্যাংকের সরু মুখ ও অন্ধকারের কারণে ভেতরে আটকে পড়াদের উদ্ধার করতে বেগ পান। ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট যৌথ ভাবে ট্যাংকের ছাদ ভেঙ্গে তিনজনকে বের করে নিয়ে আসে।

গুরুতর আহতাবস্থায় তাদের নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নেয়া হলে কত্যর্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তবে তিন শ্রমিক নিহত হলেও বাড়ির মালিককে খুঁজে পাওয়া যায়নি।  

 

নরসিংদী ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স এর উপ সহকারী পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, ধারণা করা হচ্ছে নির্মাণাধীন বন্ধ ট্যাংকিতে প্রচণ্ড মিথেনাইল গ্যাস হয়ে গিয়েছিল। তাই তারা ভেতরে ডুকার সাথে সাথেই অজ্ঞান হয়ে যায়।

 

হাসপাতালের আবাসিক কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. এম এন মিজানুর রহমান বলেন, হাসপাতালে আনার পর তাদের তিনজনকেই মৃত হিসেবে পাওয়া যায়। ধারণা করা হচ্ছে অক্সিজেনের অভাব ও বিষাক্ত গ্যাসের কারনেই তাদের মৃত্যু হয়েছে।  

 


Top