শিক্ষার্থীদের দাবির যৌক্তিকতা খুঁজে পেয়েছি, এখন একে একে বাস্তবায়ন হচ্ছে: কাদের | daily-sun.com

শিক্ষার্থীদের দাবির যৌক্তিকতা খুঁজে পেয়েছি, এখন একে একে বাস্তবায়ন হচ্ছে: কাদের

ডেইলি সান অনলাইন     ৪ আগস্ট, ২০১৮ ১৫:০৩ টাprinter

শিক্ষার্থীদের দাবির যৌক্তিকতা খুঁজে পেয়েছি, এখন একে একে বাস্তবায়ন হচ্ছে: কাদের

 

শিক্ষার্থীদের নিরাপদ সড়ক দাবির যৌক্তিকতা খুঁজে পেয়েছি। এখন তাদের দাবিগুলো একে একে বাস্তবায়ন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে সরকার শিক্ষার্থীদের ৯ দফা দাবি বাস্তবায়ন শুরু করেছে। দুর্ঘটনার জন্য দায়ী বাসের মালিক, চালক ও হেলপারকে বিচারের মুখোমুখি করা হয়েছে। এর মাধ্যমে সরকার তার জরুরি কাজটি সেরে ফেলেছে। দুই পরিবারকে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী সান্ত্বনা ও সহায়তা দিয়েছেন, খোঁজ রাখছেন। ওই দুই পরিবারও শিক্ষার্থীদের ঘরে ফেরার আহ্বান জানিয়েছেন।

 
শনিবার (৪ আগস্ট) সকালে ধানমন্ডিতে দলীয় সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, দুর্ঘটনাকবলিত এলাকায় আন্ডারপাস নির্মাণে সেনাবাহিনী কাজ করছে। স্পিডব্রেকার দাবির পরিপ্রেক্ষিতে সারাদেশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সামনে রাম্বলস্ট্রিট করা হবে। ফিটনেসবিহীন সব গাড়ির রুট পারমিট বাতিল করা হবে, ইতোমধ্যে কাজও শুরু করেছে বিআরটিএ।

গোপনীয়তার কিছু নেই, একে একে সব বাস্তবায়ন করা হবে।


সড়ক পরিবহনমন্ত্রী আরও বলেন, সড়ক দুর্ঘটনার বিষয়ে সর্বোচ্চ শাস্তির বিধান রেখে আইন পাস হচ্ছে। আগামী সোমবার মন্ত্রিসভায় এবং পরবর্তী সংসদ বসলে এ আইন পাস করা হবে।


কোমলমতি শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে দলীয় সমর্থন দেয়া হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, এটাকে সরকারবিরোধী আন্দোলনে রূপ দেয়ারও চেষ্টা হয়েছে। আমাদের উদ্বেগ, শিক্ষার্থীদের শান্তিপূর্ণ ইনোসেন্ট আন্দোলনে রাজনৈতিক অনুপ্রবেশ ঘটেছে।


এ সময় তিনি রাজনৈতিক নেতাদের ছবি দেখান, যারা এই আন্দোলনে ঢুকে পড়েছে দাবি করেন। বলেন, ‘এগুলো খুবই খারাপ লক্ষণ। ’


আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, যারা কোমলমতিদের আন্দোলনে ঢুকে রাজনীতির বিষবাষ্প দিয়েছেন, ফায়দা লুটতে চেয়েছে, তাদের বিষয়ে শিক্ষার্থীদের আরও সতর্ক থাকতে হবে। তিনি বলেন, আন্দোলনের অনুপ্রবেশকারীদের গতিবিধি লক্ষ্য রাখছে গোয়েন্দা বাহিনী। কোমলমতি শিক্ষার্থীদের দমন না করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নে পুলিশ ধৈর্যধারণ করছে।


এ সময় শান্তির স্বার্থে শিক্ষার্থীদের ঘরে ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফেরাতে অভিভাবকসহ সবার সহযোগিতা কামনা করেন আওয়ামী লীগের এই নেতা।


এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের মধ্যে এক ধরনের শঙ্কা কাজ করছে। এজন্য তারা সড়কে গাড়ি নামাতে চাইছেন না। তবে আমরা তাদের নামানোর চেষ্টা করে যাচ্ছি। ’


পদত্যাগ দাবির বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমি নই বরং বিএনপির মতো নালিশ পার্টির টপ টু বটম নেতারা পদত্যাগ করলে, দেশের মানুষ স্বস্তি পাবেন। ’


নৌমন্ত্রী শাজাহান খানের পদত্যাগ সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, তিনি ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চেয়েছেন। যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তাদের বাড়িতে গেছেন এবং আর্থিকভাবে সহযোগিতা করেছেন। এরপর আর কী বলার থাকে?


সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, দলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, ডা. দীপু মনি, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, একেএম এনামুল হক শামীম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, কৃষি ও সমবায় সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, উপ-দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।


প্রসঙ্গত, গত রবিবার (২৯ জুলাই) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে হোটেল রেডিসনের বিপরীতে এমইএস বাস স্ট্যান্ডে জাবালে নূর পরিবহনের দুই বাসের চালকের রেষারেষির ফলে একটি বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে শহীদ রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহত ও অন্তত ১২ শিক্ষার্থী আহত হন। নিহতদের একজন ওই কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম (১৬), অন্যজন একাদশ শ্রেণির ছাত্রী দিয়া খানম মিম (১৫)।


ওই দুর্ঘটনার দিন থেকে সাত দিন ধরে দোষী পরিবহনকর্মীদের বিচার, নিরাপদ সড়ক, শিক্ষার্থী বান্ধব পরিবহন ব্যবস্থা ও নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানের পদত্যাগসহ ৯ দফা দাবি জানাচ্ছেন শিক্ষার্থীরা। পাশাপাশি তারা সড়কে অবস্থান নিয়ে গাড়ি ও গাড়ির চালকের লাইসেন্স পরীক্ষা করেন। এর মধ্যে বেশ কিছু যানবাহনের ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনাও ঘটেছে।


এদিকে গেলো বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী নিহত দুই শিক্ষার্থীর পরিবারের সদস্যদের নিজ কার্যালয়ে নিয়ে এসে সান্ত্বনা ও সমবেদনা জানান। এসময় নিহত দুই শিক্ষার্থীর প্রত্যেক পরিবারকে ২০ লাখ টাকা করে মোট ৪০ লাখ টাকার পারিবারিক সঞ্চয়পত্র দেন।


এদিকে শুক্রবার শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের ৬ষ্ঠ দিন থেকে এসে ‘নিরাপত্তাহীনতার’ অজুহাতে রাজধানীর সব রুটের যাত্রীবাহী বাস চলাচল বন্ধ রেখেছেন পরিবহন মালিকরা। যা আজও অব্যাহত রয়েছে।


এদিকে শিক্ষার্থীদের এই আন্দোলনে ‘ছাত্রদল ও ছাত্র শিবিরের অনুপ্রবেশ ঘটছে-’ বৃহস্পতিবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এমন মন্তব্যের পর শুক্রবার শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেছেন, তোমাদের (শিক্ষার্থীদের) উসকানি দিতে একটি অপশক্তি চেষ্টা করছে। তাদের উসকানিতে সাড়া দিও না। শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক দাবি মেনে নেয়া হবে বলেও জানান ওবায়দুল কাদের।

 

আরও পড়ুন:

 

নিরাপদ সড়কের আন্দোলনের মধ্যেই নরসিংদীতে লেগুনা চাপায় কলেজছাত্র নিহত


নিরাপদ সড়কের আন্দোলনের মধ্যেই মগবাজারে বাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত, বাসে আগুন


নিরাপদ সড়কের আন্দোলনের মধ্যেই সখীপুরে পিকআপের চাপায় স্কুলছাত্রী নিহত, বিক্ষোভ

 

 


Top