মেয়েকে জোর করে বিয়ে দেওয়ায় বাংলাদেশি দম্পতির জেল | daily-sun.com

মেয়েকে জোর করে বিয়ে দেওয়ায় বাংলাদেশি দম্পতির জেল

ডেইলি সান অনলাইন     ৩১ জুলাই, ২০১৮ ১৫:৫৯ টাprinter

মেয়েকে জোর করে বিয়ে দেওয়ায় বাংলাদেশি দম্পতির জেল

বাংলাদেশে এনে জোর করে মেয়েকে বিয়ে দেয়ার চেষ্টা করেন বৃটেনে বসবাসকারী এক বাংলাদেশি দম্পতি। মেয়ে বিয়ে না করলে তাকে হত্যা করার হুমকি দেন তারা।

এ অভিযোগে  ওই দম্পতিকে জেল দেয়া হয়েছে। অনলাইন দ্য টেলিগ্রাফ অ্যান্ড আরগুস এ খবর দিয়েছে।  

 

এতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তাদের কন্যা পিতামাতার বিরুদ্ধে মামলা করেন বৃটেনে। সোমবার এ মামলার রায় দেয় লিডস ক্রাউন কোর্ট। তাতে তার পিতাকে সাড়ে চার বছরের জেল দেয়া হয়েছে। মাকে দেয়া হয়েছে সাড়ে তিন বছরের জেল। অভিযোগ আছে, তারা দু’জনে তাদের ১৮ বছর বয়সী ওই মেয়েকে বাংলাদেশের একটি প্রত্যন্ত গ্রামে নিয়ে জোর করে বিয়ে দেয়ার চেষ্টা করেন। সেখান থেকে নাটকীয়ভাবে তাকে উদ্ধার করে বৃটিশ হাই কমিশন। এতে অংশ নেয় সশস্ত্র পুলিশ।

রিপোর্টে ওই যুবতী ও তার পিতামাতার নাম প্রকাশ করা হয় নি। আদালত শুনানিতে বলেছে, যে যুবতীকে নিয়ে এই ঘটনা তিনি লিসডে বসবাস করেন। তার বয়স এখন ২০ বছর। তিনি আতঙ্কের মধ্যে বসবাস করছিলেন। পালিয়ে বেড়াচ্ছিলেন পরিবার ও সম্প্রদায়ের কাছ থেকে। পিতামাতাকে জেল দেয়ার খবরে ওই যুবতী তাদেরকে দানব হিসেবে অভিহিত করেছেন।  

 

বলেছেন, ওই দানবদের জেলে যাওয়ার খবরে হৃদয় দিয়ে মুক্তি অনুভব করছি। আমি অন্য মেয়েদের বলতে চাই জোর করে বিয়ে দেয়া একটি অন্যায়। আমি আমার ভাইবোনদেরকে এবং যারা জীবনকে এমন অবস্থায় দেখতে পেয়েছেন তাদের কাছে এর মাধ্যমে একটি বার্তা দিতে পেরেছি। আমি বড়দের বলতে চাই এভাবে বিয়ে দেয়া বেআইনি। আপনারা পরিবারকে এভাবে ব্যবহার করতে পারেন না। আমার কাছে ভাল লাগছে এ জন্য যে, আমি যা সঠিক তার পক্ষে থাকতে পেরেছি। আমি জানতে পেরেছি আমি আমার পিতামাতার অন্যায়ের শিকার হই নি। এখন আমি মুক্ত।


Top