বুলবুলের নির্বাচনী পথসভায় ককটেল হামলা: বিএনপি নেতাদের ফোনালাপ ফাঁস (অডিও) | daily-sun.com

বুলবুলের নির্বাচনী পথসভায় ককটেল হামলা: বিএনপি নেতাদের ফোনালাপ ফাঁস (অডিও)

ডেইলি সান অনলাইন     ২২ জুলাই, ২০১৮ ১৮:১১ টাprinter

বুলবুলের নির্বাচনী পথসভায় ককটেল হামলা: বিএনপি নেতাদের ফোনালাপ ফাঁস (অডিও)

 

রাজশাহীতে বিএনপি মেয়রপ্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের নির্বাচনী পথসভায় হাত বোমা হামলার ঘটনায় আওয়ামী লীগের লোকজন হামলায় জড়িত বলে দাবি করে আসছিল বিএনপি। কিন্তু সেই হামলা নিয়ে ফাঁস হওয়া একটি অডিও বলছে ভিন্ন কথা।

একই সঙ্গে হামলায় বিএনপির লোকজন জড়িতে বলেও দাবি করছে পুলিশ।


রবিবার (২২ জুলাই) দুপুরে রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনার একেএম হাফিজ আক্তার নিজ দফতরে সংবাদ সম্মেলন করে বলেন, ভোটারদের সহমর্মিতা পেতেই নিজেদের নির্বাচনী পথসভায় ককটেল হামলা চালিয়েছে বিএনপি। হামলায় জড়িত সন্দেহে গ্রেফতার জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মন্টুর বরাত দিয়ে এ তথ্য জানান তিনি। ফাঁস হওয়া অভিওতে মতিউর রহমান মন্টুকে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-দফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপুর সঙ্গে কথা বলতে শোনা গেছে বলেও সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।  


প্রসঙ্গত, গত ১৭ জুলাই রাজশাহী সিটির সাগরপাড়া বটতলা মোড়ে বিএনপির মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের নির্বাচনী পথসভা চলছিল। সেখানে বিএনপির বেশ কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতাও ছিলেন। এসময় মুখোশ পরা কয়েকজন দুর্বৃত্ত তিনটি মোটরসাইকেল যোগে এসে সভাস্থলে তিনটি ককটেল ছুঁড়ে পালিয়ে যায়। এতে আহত হন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমানসহ কয়েকজন।


এদিকে এদিকে এ ঘটনার দায়ে শনিবার (২১ জুলাই) রাত পৌনে ২টার দিকে নগরীর রামচন্দ্রপুর এলাকার বাসা থেকে মতিউর রহমান মন্টুকে গ্রেফতার করে পুলিশ।


অডিওওতে যা যা কথা হয়েছে:


টিপু: ভাই


মন্টু: ভাল আছ?


টিপু: আছি ভাই।  


মন্টু: এই কালকে কাজ-কাম করেছি, প্রচণ্ড রোদের তাপে। জিয়াউর অসুস্থ। তো গত পরশু দিন যে ঘটনা ঘটেছে, শুনছো তো নাকি?


টিপু: এই একটু শুনেছি, বেশি শুনি নাই। বোম্ব মেরেছে এইটা তো? 


মন্টু: হ্যাঁ,


টিপু: সেটা তো জানি।  


মন্টু: কারা করলো, এটা কি জান? 


টিপু: অ্যা?


মন্টু: কারা করেছে এটা কি জানো? 


টিপু: তা জানি না।


মন্টু: আমি যে কথা বলবো ওটা হজম করবা, জাগা মতো পারলে বলবা। দুই ভাই জড়িত।  


টিপু: অ্যা? 


মন্টু: আমাদের দুইজন জড়িত। যে দুইজনকে দিয়ে কাজ করানো হয়েছে, ভাইয়ার কাছে ক্রেডিট নেওয়ার জন্য, এই বোম্ব ফেলেছে। হ্যাঁ? ঠিক আছে? 


টিপু: কোন দুই ভাই? 


মন্টু: তোমার নাটোর আর আমার খালেক। ওই যে শাহীন শওকত (বিএনপির রাজশাহী বিভাগের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক)।  


টিপু: এইটা আমার বিশ্বাস হয়।  


মন্টু: জাবেদ হলো, আমার শাহীন শওকত ভাইয়ের লোক, জাবেদ। কেমন


টিপু: না, ঠিক আছে। এটা আমার বিশ্বাস হয়।  


মন্টু: এটা হওয়ার সাথে সাথে...ভাইয়াকে...সব ঠিক হয়ে গেছে। আমার মিছিলে লোক কম পড়ছে। আমাদের নেতা তো এখন খালি ফটোসেশন ভাই। এটা তো দলের ক্ষতি হচ্ছে।

 

 

 

আরও পড়ুন:

 

রাজশাহী জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদককে তুলে নেয়ার অভিযোগ

 

 


Top