লকার ভেঙে ৫৫০ কোটি টাকার 'গুপ্তধন' উদ্ধার! | daily-sun.com

লকার ভেঙে ৫৫০ কোটি টাকার 'গুপ্তধন' উদ্ধার!

ডেইলি সান অনলাইন     ২২ জুলাই, ২০১৮ ১৭:২৮ টাprinter

লকার ভেঙে ৫৫০ কোটি টাকার 'গুপ্তধন' উদ্ধার!

তিনটি লকার ভাঙতেই বেরিয়ে আসে ৫০০ কোটি টাকার সম্পত্তির দলিল, আট কোটি টাকার সোনা ও হিরা, চার কোটি টাকার বিদেশি মুদ্রা ও দুই কোটি ভারতীয় টাকা। সব মিলিয়ে ৫৫০ কোটি।

ঘটনাটি ভারতের বেঙ্গালুরুর সেন্ট মার্কস রোডের ক্লাব বোরিং ইনস্টিটিউটের।

 

ভারতের জনপ্রিয় বাংলা দৈনিক আনন্দবাজারের খবরে বলা হয়, প্রায় দেড়শো বছর পুরনো এই ক্লাবের বন্ধ হয়ে থাকা লকারগুলি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই বিব্রত ছিলেন কর্মকর্তারা। বারবার নোটিস দেওয়া সত্ত্বেও কোনো সদস্যই লকার সাফ করতে রাজি হচ্ছিলেন না। ই-মেল পাঠানো, মোবাইলে এস এম এস, ক্লাব চত্বরে নোটিস সাঁটানো,বাকি ছিল না কিছুই। শুক্রবার বাধ্য হয়েই ক্লাবের লকার ভাঙতে শুরু করেন ক্লাব কর্তৃপক্ষ। তারপরই চক্ষু চড়কগাছ। মেলে গুপ্তধনের হদিশ।

 

ক্লাবের ব্যাডমিন্টন কোর্টের তিনটি লকার ভেঙে এসব ৫৫০ কোটি টাকার 'গুপ্তধন' পাওয়া যায়। কিন্তু কে ক্লাবের লকারে লুকিয়ে রেখেছিলেন এই গুপ্তধন? ৬৯, ৭১ আর ৭৮।

এই তিনটি লকার কারও নামেই নথিবদ্ধ ছিল না। পরে অবশ্য এই গুপ্তধনের মালিক নিজেই এসে ক্লাবে যোগাযোগ করেন। তিনি শহরেরই রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী অবিনাশ অমরলাল কুকরেজা। যদিও তিনি নিয়মিত ক্লাবে আসেন না। তাঁর মা অবশ্য ক্লাবে নিয়মিত এসে তাস খেলেন।

 

সমস্ত সম্পত্তিই বাজেয়াপ্ত করেছে আয়কর বিভাগ। পাশাপাশি, কোথা থেকে পেলেন এই সম্পত্তি, তা নিয়ে চলছে জেরাও। আর এখন থেকে ক্লাব চত্বরে সিসিটিভি বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। যাতে ভবিষ্যতে আর কেউ ক্লাবে বেনামি সোনাদানা বা টাকাপয়সা জমা না করতে পারেন।

 

সূত্র: আনন্দবাজার


Top