মাদকবিরোধী অভিযানে দুই জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩ | daily-sun.com

মাদকবিরোধী অভিযানে দুই জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩

ডেইলি সান অনলাইন     ২০ জুলাই, ২০১৮ ১৪:১৫ টাprinter

মাদকবিরোধী অভিযানে দুই জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩

 

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারি বাহিনীর সারা দেশে চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে চট্টগ্রাম ও কুমিল্লায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৩ মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১৯ জুলাই) দিনগত রাত দেড়টা থেকে শুক্রবার ভোরের মধ্যে এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে।

  


চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম মহানগরের খুলশী থানার মতিঝর্ণা এলাকায় র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দুই মাদক ব্যবসায়ীর মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। শুক্রবার (২০ জুলাই) ভোরে এই ঘটনা ঘটে বলে গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন(র‌্যাব)-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এএসপি মিমতানুর রহমান।

 

তিনি জানান, ওই সময় গোলাগুলিতে দুই র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি মাইক্রোবাস, ৮৫ কেজি গাঁজা, একটি আগ্নেয়াস্ত্র ও ৫ রাউন্ড গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়েছে।

 

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাত দেড়টার দিকে নগরীর টাইগার পাস এলাকায় সন্দেহজনক একটি মাইক্রোবাসকে চ্যালেঞ্জ করে র‌্যাবের টহল দল। ওই সময় মাইক্রোটি র‌্যাবের টহল দলের ধাওয়া খেয়ে টাইগার পাসের বাটালী হিলের পাহাড়ি এলাকা লালখান বাজার মতিঝর্ণায় চলে যায়। র‌্যাব সেখানে দ্রুত অবস্থান নিয়ে মাইক্রোবাসটি ঘিরে ফেলে। এ সময় মাইক্রোবাস থেকে কয়েকজন নেমে র‌্যাব সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি চালাতে থাকে। আত্মরক্ষার্থে র‌্যাব পাল্টা গুলি চালালে সন্ত্রাসীরা পিছু হটে।

পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায় গুলিবিদ্ধ ২ জন পড়ে আছে। তাদের উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।


ঘটনাস্থল থেকে র‌্যাব ৮৫ কেজি গাঁজা, একটি অস্ত্র, ৫ রাউজ কার্তুজ উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় দুই র‌্যাব সদস্য সামান্য আহত হয়েছেন বলে র‌্যাব দাবি করেন। তাদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে বলে জানান র‌্যাব কর্মকর্তা মিমতানুর রহমান। তবে নিহতদের বন্দুকযুদ্ধে নিহতদের নাম-পরিচয় জানাতে পারেনি র‌্যাব।


কুমিল্লা: কুমিল্লায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ খোরশেদ আলম ওরফে কানা খোরশেদ নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১৯ জুলাই) দিনগত রাত দেড়টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক সংলগ্ন দাউদকান্দির হাসানপুর সরকারি কলেজের পাশে এ ঘটনা ঘটে বলে দাউদকান্দি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসেন গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন।


তিনি জানান, নিহত খোরশেদ আলম জেলার দেবিদ্বার উপজেলার গঙ্গামণ্ডল গ্রামের মৃত সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে। সে পুলিশের তালিকাভুক্ত মাদকব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে কুমিল্লা, ঢাকা এবং নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন থানায়  ১৩টি মামলা রয়েছে।


আলমগীর হোসেন বলেন, কুমিল্লা থেকে প্রাইভেটকার যোগে ঢাকায় মাদকের চালান যাচ্ছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দাউদকান্দি থানা পুলিশের একটি দল দাউদকান্দির হাসানপুর কলেজের উল্টো দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে অবস্থান নিয়ে যানবাহনে তল্লাশি চালায়। এ অবস্থায় রাত দেড়টার দিকে তালিকাভুক্ত মাদকব্যবসায়ী খোরশেদ আলমকে বহনকারী প্রাইভেটকারটি আটক করার সময় তার সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এ সময় পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। উভয় পক্ষের গুলি বিনিময়কালে মাদকব্যবসায়ী খোরশেদ গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হন। তাকে উদ্ধার করে দাউদকান্দি হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।


পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি প্রাইভেটকার ও ৮০ কেজি গাঁজা এবং ২ রাউন্ড কার্তুজসহ একটি পাইপগান উদ্ধার করে।

 


Top