দুদকের ভুল তদন্ত প্রতিবেদনে নির্দোষ ব্যক্তি জেলে | daily-sun.com

দুদকের ভুল তদন্ত প্রতিবেদনে নির্দোষ ব্যক্তি জেলে

সোহেল হোসেন পাটোয়ারী     ১৮ জুলাই, ২০১৮ ২২:৩৮ টাprinter

দুদকের ভুল তদন্ত প্রতিবেদনে নির্দোষ ব্যক্তি জেলে

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) ত্রুটিযুক্ত তদন্ত প্রতিবেদনের কারণে এক নির্দোষ ব্যক্তি দীর্ঘদিন ধরে জেলে আটক রয়েছেন, জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের এক রিপোর্টে বিষয়টি প্রকাশ পেয়েছে।

 

জাহালাম নামের এক ব্যক্তি চেক জালিয়াতি মামলায় গাজিপুরের কাশিমপুর কারাগারে দীর্ঘ ২৮ মাস জেল খাটছেন।

জাহালাম টাঙ্গাইলের ইউসুফ আলির পুত্র।

 

৩২টি চেক জালিয়াতের অভিযোগে দায়ের করা দুর্নীতি দমন কমিশনের মামলায় ২০১৮ সালের এপ্রিল মাসে জাহালামকে জেলে পাঠানো হয়।

 

পরে জাহালামের ভাই শাহানুর মিয়া তার ভাইকে নির্দোষ দাবি করে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনে একটি আবেদন করলে বিষয়টি আলোচনায় আসে।

 

শাহানুর মিয়ার আবেদনের প্রেক্ষিতে মানবাধিকার কমিশনের পক্ষ থেকে ওই ঘটনায় একটি অনুসন্ধান চালানো হয় এবং তারা জাহালামকে নির্দোষ পায়।

 

মানবাধিকার কমিশনের তদন্ত প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে দুদক জাহালামের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ পুনর্তদন্ত শুরু করেছে।

 

মানবাধিকার কমিশনের প্রতিবেদন অনুসারে একটি চেক জালিয়াতি চক্র কৌশলে জাহালামকে মামলার ফাঁদে ফেলে এবং বিষয়টির সুষ্ঠু তদন্ত না করেই দুদক জাহালামকে গ্রেফতার করে জেলে পাঠায়।

 

প্রতিবদেনে আরও উল্লেখ করা হয়, মামলার প্রাথমিক তথ্যে (এফআইআর) আবু সালেক নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে, সেখানে জাহালামের নাম-ই নেই।

 

দুদকের জমা দেওয়া চার্জশিটে অভিযুক্তের নাম আবু সালেক ওরফে মর্তুজা ওরফে জাহালাম হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

 

জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে মামলা তদন্তকারী সংস্থা আবু সালেক এবং জাহালাম একই ব্যক্তি নাকি পৃথক দুই ব্যক্তি তা যাচাই না করেই চার্জশিট জমা দিয়েছে।

এছাড়া চেকের স্বাক্ষরও কোনো হস্তলেখা বিশেষজ্ঞ দিয়ে যাচাই করা হয়নি এমনকি কোনো বিশেষজ্ঞের মতামতও নেওয়া হয়নি।

 

প্রতিবেদনের শেষে, চেক জালিয়াতির সাথে জাহালামের কোনো সম্পৃক্ততা নেই উল্লেখ করে মানবাধিকার কমিশন মামলাটির পুনরায় তদন্ত দাবি করেছে।


Top