ফিফা সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশকে নিয়ে পরিকল্পনা | daily-sun.com

ফিফা সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশকে নিয়ে পরিকল্পনা

ডেইলি সান অনলাইন     ১৪ জুলাই, ২০১৮ ১৬:৫৬ টাprinter

ফিফা সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশকে নিয়ে  পরিকল্পনা

বিশ্বকাপ একেবারেই শেষ প্রান্তে। আর মাত্র একটি দিন।

ফিফা সভাপতি বিশ্বকাপের আনুষ্ঠানিক শেষ সংবাদ সম্মেলন করলেন গতকাল শুক্রবার মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে। সফল একটি আয়োজন নিয়ে গর্বিত জিয়ানি ইনফ্যান্টিনো নানান বিষয়ে কথা বললেন। জোর দাবি করলেন, নোংরা রাজনীতি বিদায় করে ফিফায় ফিরে এসেছে ফুটবল। ফুটবল নিয়ে এখন বাঁধহীন আনন্দে মাততে পারে দুনিয়া। বিশ্বকাপ ঘিরেই সংবাদ সম্মেলন।

 

এখানে বাংলাদেশের প্রসঙ্গ উঠবে কেউ ভাবতেও পারেনি। তবু ইনফ্যান্টিনো বললেন বাংলাদেশের কথা— ‘বাংলাদেশ ও এশিয়ার উন্নয়নশীল দেশগুলোর জন্য আমাদের বিশেষ পরিকল্পনা রয়েছে। সামনে তাদের বেশি করে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার সুযোগ দিতে হবে। এ সুযোগ না পেলে তারা উন্নতি করবে কী করে!’ ইনফ্যান্টিনো অবশ্য আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার পাশাপাশি ক্লাব ফুটবলের প্রতিও বেশ জোর দেন।

উন্নয়নটা আসলে ক্লাব ফুটবলেই হয়।

 

 

এ কারণেই অবকাঠামোগত সুবিধা বাড়াতে হবে ক্লাব পর্যায়ে। ইউরোপিয়ান ফুটবলের কাছে ল্যাটিনরা কেন এভাবে হেরে যাচ্ছে? এর কারণ, ক্লাব ফুটবলে ইউরোপীয়রা অনেক এগিয়ে। তাদের অবকাঠামো আছে, অর্থ আছে, আধুনিক সুবিধাদি আছে। এসব নিয়ে কাজ করতে পারলে ফুটবলে উন্নতি হবে। বাংলাদেশসহ এশিয়ার অন্য দেশগুলোকে নজর দিতে হবে ক্লাবগুলোর দিকে।

 

 

ফিফা সভাপতি এক ঘণ্টা সতের মিনিটের সংবাদ সম্মেলনে আরও নানান বিষয়ে আলোচনা করেছেন। এর মধ্যে বিশেষ গুরুত্ব পেয়েছিল ‘ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি (ভিএআর)’। ইনফ্যান্টিনোর মতে, এ পদ্ধতি নতুন যুগ এনে দিয়েছে ফুটবলে। তিনি বলেন, ‘এখন সবাই ফাউল করার আগে অনেক চিন্তা করে। ফাঁকি দিতে পারবে না বলে বিশ্বাস করে।

 

ভিএআরকে অবশ্য শতভাগ ঠিক বলে দাবি করেননি তিনি। ফিফা সভাপতি বলেন, ‘এই প্রযুক্তির ফলে আমরা ৯৫ থেকে ৯৯ ভাগ ঠিক সিদ্ধান্তে আসতে পেরেছি। ’ এখন আর কেউ অফসাইড গোল করতে পারবে না। আগে অনেকেই গোল হওয়ার পর দাবি করত, অফসাইডে গোলটা হলো। এখন আর কেউই এমন দাবি করতে পারবে না।

 

 

জিয়ানি ইনফ্যান্টিনো কাতার বিশ্বকাপ ৪৮ দল নিয়ে আয়োজন করা যায় কিনা, এ বিষয়েও আলোচনা করেছেন। তিনি বলেন, ‘কাতারে ৩২ দলের বিশ্বকাপ নিয়েই কাজ চলছে। তবে এখানে আলোচনার সুযোগ আছে এখনো। ’ কাতারে না হলেও পরেরবার যুক্তরাষ্ট্র-কানাডা-মেক্সিকোয় আয়োজন করা হবে ৪৮ দলের বিশ্বকাপ।

 

দল বাড়ানোর ব্যাপারে যুক্তিটা আরও জোরালো করেছে রাশিয়া বিশ্বকাপ। ইনফ্যান্টিনো বলেন, ‘বিশ্বকাপের বাইরে রয়ে গেছে ইতালি, নেদারল্যান্ডস, তুরস্ক, ক্যামেরুন, চিলি, যুক্তরাষ্ট্রের মতো দল। এর অর্থই হলো, যোগ্য দলের সংখ্যা বাড়ছে। আমাদের বিশ্বকাপটা সবার জন্য উন্মুক্ত করতে হবে। ’ আফ্রিকা ও এশিয়া থেকে দল বাড়ানোর ব্যাপারেও জোর দেন ইনফ্যান্টিনো। তার মতে, ভবিষ্যতে হয়তো খুব তাড়াতাড়িই কোনো আফ্রিকান দল বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হবে।

 

 

মেসি ও নেইমারকে নিয়েও মন্তব্য করেছেন ইনফ্যান্টিনো। তিনি বলেন, ‘ফ্রান্সের বিপক্ষে জিতলে আজ মেসিই ফাইনালে থাকতে পারতেন। তিনি অসাধারণ একজন ফুটবলার। তার খেলা দেখে মুগ্ধ হয়েছে সবাই। কী অসাধারণ একটা গোল করেছেন। আশা করি, পরেরবার মেসি আবারও বিশ্বকাপে খেলতে আসবেন। ’

 

 

নেইমারের অভিনয়ের ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি তিনি। ইনফ্যান্টিনো বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমি নেতিবাচক কিছু বলতে পারি না। নেইমার দারুণ একজন ফুটবলার। আশা করি পরবর্তীতে তিনি আরও ভালো ফুটবল খেলবেন। ’

 


Top