শিক্ষক ও সহপাঠীসহ ১৮ জন মিলে সাত মাস ধরে কিশোরীকে গণধর্ষণ! | daily-sun.com

শিক্ষক ও সহপাঠীসহ ১৮ জন মিলে সাত মাস ধরে কিশোরীকে গণধর্ষণ!

ডেইলি সান অনলাইন     ৮ জুলাই, ২০১৮ ১১:৪৬ টাprinter

শিক্ষক ও সহপাঠীসহ ১৮ জন মিলে সাত মাস ধরে কিশোরীকে গণধর্ষণ!

ফের একবার সামনে এল ভয়াবহ এক ধর্ষণের ঘটনা। এবারের ঘটনাস্থল ভারতের বিহারের ছাপরা।

যেখানে এক নবম শ্রেণির ছাত্রীকে দীর্ঘ সাত মাস ধরে গণধর্ষণ করেছে ১৮ জন।

 

অভিযুক্তদের তালিকায় রয়েছে মেয়েটির স্কুলের দুই শিক্ষক এবং খোদ প্রিন্সিপালও। ইতিমধ্যে পুলিশে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। তদন্তে নেমে এখনও পর্যন্ত ওই প্রিন্সিপাল–সহ এক শিক্ষক এবং দুই ছাত্রকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বাকিদের খোঁজে তল্লাশি চলছে।

 

শিক্ষক ছাড়া অন্য ১৫ জন কিশোরীর সহপাঠী। ভারতের বিহারের সারন জেলার পারসাগর গ্রামের একটি বেসরকারি স্কুলে ঘটনাটি ঘটেছে।

 

অভিযুক্ত ওই নাবালিকা তার বয়ানে জানিয়েছে, গত বছর ডিসেম্বর থেকে তার উপর এই অত্যাচার চলছে। স্কুলের শৌচালয়ে তাকে ধর্ষণ করে কয়েকজন ছাত্র।

এরপর তারা সেটির ভিডিও করে মেয়েটিকে ব্ল্যাকমেল করতে শুরু করে।

 

এরপর স্কুলের প্রিন্সিপালকে অভিযোগ জানালে, সেই পাষণ্ড তাকে সাহায্য তো করেইনি, উল্টে আরও দুই শিক্ষককে সঙ্গে নিয়ে তাকে আবারও ধর্ষণ করে। এভাবে গত সাতমাসে মোট ১৮ জন মেয়েটিকে ধর্ষণ করেছে।

 

সূত্রের খবর, মেয়েটির বাবা এই সময় জেলে বন্দি থাকায় ভয়ে সে আর কাউকে কিছু জানায়নি। তবে বাবা ছাড়া পেতেই পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছে ‌সে। শনিবার আদালতে জবানবন্দিও দেয় ওই নাবালিকা।


Top