চলে গেলেন ফুটবলের 'স্কুটার গফুর' | daily-sun.com

চলে গেলেন ফুটবলের 'স্কুটার গফুর'

ডেইলি সান অনলাইন     ৬ জুলাই, ২০১৮ ২০:৪৯ টাprinter

 চলে গেলেন ফুটবলের 'স্কুটার গফুর'

নাম ছিল তার 'স্কুটার' গফুর। ষাটের দশক থেকে সত্তরের দশক পর্যন্ত ঢাকার মাঠ দাপিয়ে বেড়িয়েছেন।

উপাধি পেয়েছিলেন 'স্কুটার'। দুর্দান্ত গতিময় একজন ফুটবলারের জন্য এই উপাধিটা যথার্থ ছিল। দেশের প্রাচীন ক্লাব আবাহনী লিমিটেডের প্রথম গোলদাতা সেই আবদুল গফুর ভুঁইয়া আর নেই। আজ শুক্রবার ৮০ বছর বয়সে তিনি চলে গেছেন না ফেরার দেশে।

 

গফুর ভুঁইয়ার পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গত এক বছর ধরেই অসুস্থ হয়ে বিছানায় দিন কাটছিল তাঁর। গত বছরের আগস্টে ডায়াবেটিসের চিকিৎসার জন্য বারডেমে ভর্তি হয়েছিলেন। ৪ দিন আগে তার পায়ের আঙুলে একটি অপারেশনও হয়েছিল। কিন্তু এরপর থেকেই সমস্যা আরও বেড়ে যায়।  ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়ে শরীর।

আজ সকালে হুট করে অবস্থার আরও অবনতি হয়। হাসপাতালে নেওয়ার তোড়জোরের মাঝেই নরসিংদীর দোগড়িয়া গ্রামে নিজ বাড়িতে আজ দুপুরে তিনি ইহলোক ত্যাগ করেন।

 

মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলে খেলতে চেয়েছিলেন গফুর। কিন্তু কীভাবে যেন টের পেয়ে তাকে বন্দি করে পাকিস্তানি হানাদারেরা। স্বাধীন বাংলাদেশে আবাহনী লিমিটেড প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর ক্লাবের হয়ে তিনিই প্রথম গোলটি করেছিলেন। এটা তো ইতিহাস। এছাড়াও এক যুগের ফুটবল ক্যারিয়ারে নিজের 'স্কুটার' উপাধির স্বার্থক প্রয়োগ করে গেছেন গফুর ভুঁইয়া।  আবাহনী ছাড়াও বিজি প্রেস ও রহমতগঞ্জেও খেলেছেন তিনি।

 

কর্নার কিক থেকে সরাসরি গোল করার কৃতিত্ব দেখিয়েছেন বহুবার। তবে গোল করার চেয়ে বেশি বিখ্যাত ছিলেন গোল করানোয়। চিতার গতি আর দুর্দান্ত ড্রিবলিংয়ে প্রতিপক্ষের বক্সে বাড়াতেন ভয়ংকর একেকটা ক্রস।

 

পায়ে বল পেতেই চিতার গতিতে ছুটতেন প্রতিপক্ষের ডিবক্সে। ছোটখাটো দেহ কিন্তু দৌড়ে অদম্য। বিখ্যাত এই দৌড়ের জন্য সমর্থকরা আব্দুল গফুর ভূঁইয়ার নাম রেখেছিলেন 'স্কুটার' গফুর। ষাটের দশকে স্কুটারই ছিল ঢাকার রাস্তায় সবচেয়ে দ্রুতগতির যানবাহন, নামকরণটা এ জন্যই। চলে গেলেন এমন এক সময়ে, যখন দেশের ফুটবলের অবস্থা দিনে দিনে অধঃপতনের দিকেই যাচ্ছে।

 


Top