ধর্ষণের অভিযোগ তোলা বান্ধবীকেই বিয়ে! | daily-sun.com

ধর্ষণের অভিযোগ তোলা বান্ধবীকেই বিয়ে!

ডেইলি সান অনলাইন     ২ জুলাই, ২০১৮ ১৬:৪১ টাprinter

ধর্ষণের অভিযোগ তোলা বান্ধবীকেই বিয়ে!

ভারতীয় টেবিল টেনিস খেলোয়াড় সৌম্যজিৎ ঘোষ তার বান্ধবীকে বিয়ে করতে রাজি হলেন। এ দিন আদালতের নির্দেশে হাইকোর্টে সৌম্যজিৎ এবং তাঁর বান্ধবী  হাজির হন।

তাঁদের আইনজীবী আদালতকে জানান, সৌম্যজিৎ এবং তাঁর বান্ধবী বিয়ে করতে চান।   এই আবেদন মঞ্জুর করে ডিভিশন বেঞ্চ নির্দেশ দেয়, আপাতত ৮ সপ্তাহের জন্য গ্রেফতার করা যাবে না সৌম্যজিৎকে।

 

এ বছর মার্চ মাসে প্রাক্তন অলিম্পিয়ান এবং টেবিল টেনিস তারকা সৌম্যজিতের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেছিলেন এই তরুণী। তখন তিনি নাবালিকা ছিলেন। অভিযোগ ছিল, ২০১৪ সালে ফেসবুক মারফত তাঁর সঙ্গে সৌম্যজিতের আলাপ হয়। তার পরেই তাঁদের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা বাড়ে।

 

 শিলিগুড়ির একটি মন্দিরে দু’জনের বাগদান হয় বলেও দাবি করেন ওই যুবতী এবং তাঁর পরিবার। এর পরে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সৌম্যজিৎ তাঁকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ করেন ওই তরুণী। অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে তাঁকে জোর করে গর্ভপাত করানো হয় বলেও অভিযোগ।

তরুণীর তোলা যাবতীয় অভিযোগই অবশ্য প্রথমে অস্বীকার করেছিলেন সৌম্যজিৎ এবং তাঁর পরিবার। যদিও, এই অভিযোগের জেরে সৌম্যজিতকে সাসপেন্ড করে টেবিল টেনিস ফেডারেশন। কমনওয়েলথ গেমসের দল থেকেও বাদ দেওয়া হয় তাঁকে।

 

 

থানায় অভিযোগ দায়ের হওয়ার পরে আগাম জামিনের আবেদন জানিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে আবেদন করেছিলেন সৌম্যজিৎ ঘোষ। সেই মামলাতেই এ দিন দু’পক্ষকে আদালতে হাজির হতে নির্দেশ দিয়েছিল বিচারপতি জয়মাল্য বাগচি এবং বিচারপতি রবি কিষাণ কপূরের ডিভিশন বেঞ্চ।

 


Top