বিএনপি প্রতিটি নির্বাচনের আগেই উস্কানিকমূলক অপপ্রচার করে থাকে: এইচটি ইমাম | daily-sun.com

বিএনপি প্রতিটি নির্বাচনের আগেই উস্কানিকমূলক অপপ্রচার করে থাকে: এইচটি ইমাম

ডেইলি সান অনলাইন     ২৫ জুন, ২০১৮ ১৭:০০ টাprinter

বিএনপি প্রতিটি নির্বাচনের আগেই উস্কানিকমূলক অপপ্রচার করে থাকে: এইচটি ইমাম

 

প্রতিটি নির্বাচনের আগেই বিএনপি উস্কানিকমূলক অপপ্রচার করে থাকে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচটি ইমাম। তিনি বলেন, বিএনপির একটা অপকৌশল থাকে। জিতলে বলে সঠিক হয়েছে, না জিতলে বলে ঠিক হয়নি। কিন্তু, নির্বাচনে হারজিত থাকবেই। আমরাও তো কুমিল্লা এবং রংপুরের নির্বাচনে হেরেছি। সোমবার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের কাছে এ মন্তব্য করেন এইচটি ইমাম।


তিনি বলেন, গাজীপুরে নির্বাচনের পরিবেশে আমরা সন্তুষ্ট। সরকার ও আওয়ামী লীগ সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সব ধরনের সহায়তা করে যাবে। কমিশনও বলেছে তারা সব সময় পরিস্থিতি মনিটরিং করছে।


এ সময় নির্বাচন কমিশনকে নিরপেক্ষভাবে কাজ করার সুযোগ দিতে বিএনপিসহ সব রাজনৈতিক দলের প্রতি আহ্বান জানান এইচটি ইমাম।


বিএনপির পক্ষ থেকে গাজীপুরের পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদের প্রত্যাহারের দাবি প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর এই উপদেষ্টা বলেন, শেষ মুহূর্তে এই দাবির কোনো যৌক্তিকতা নেই।

তাছাড়া এসপি হারুন এমন কী করেছেন যে তাকে প্রত্যাহার করতে হবে। তা ছাড়া এসপি হারুন খারাপ কেন, সেটা তো বিএনপি বলছে না। কোনো সুনির্দিষ্ট অভিযোগ দলটির নেই। একজন মানুষের ভাবমূর্তি নষ্ট করা সহজ। এটা কেন করা হবে?

 


ভোটে অনিয়মরোধে মাঠ কর্মকর্তাদের ওপর সিইসির কঠোর নির্দেশনার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, বৈঠকে কমিশন জানিয়েছে, ডিআইজি, এসপিসহ সব কর্মকর্তাদের কড়া নির্দেশ দিয়েছেন সিইসি। তারাই ভয়ে আছেন। এখন মনে হয় আর কিছু হবে না।


এ সময় একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত পুলিশের গাড়িতে চড়ে আওয়ামী লীগ প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলমের প্রচারণার বিষয়টি অস্বীকার করেন এইচটি ইমাম। তিনি বলেন, এটা ডাহা মিথ্যা কথা। তার কী গাড়ির অভাব রয়েছে? সে কী কাণ্ডজ্ঞানহীন যে পুলিশের গাড়িতে করে প্রচার চালাবে?


বৈঠকে এইচটি ইমামের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধিদল, চার নির্বাচন কমিশনার ও ইসি সচিব উপস্থিত ছিলেন।


আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিদলের অন্য সদস্যরা হলেন- আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য রিয়াজুল কবীর কাউসার, ঢাকা বিভাগের আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, সাবেক সচিব রাশেদুল হক ও আওয়ামী লীগের উপদফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া।

 


Top