ভয়ানক বিকৃত যৌনাচারের শিকার এক কিশোর | daily-sun.com

ভয়ানক বিকৃত যৌনাচারের শিকার এক কিশোর

ডেইলি সান অনলাইন     ১৯ জুন, ২০১৮ ১৯:৩০ টাprinter

ভয়ানক বিকৃত যৌনাচারের শিকার এক কিশোর

শুধু মহিলারাই নন, ধর্ষণের শিকার থেকে বাদ যান না পুরুষরাও। আসলে ধর্ষকের কোনও রাজনীতি হয় না, কোনও ধর্ম হয় না। ক্ষেত্র বিশেষে ধর্ষক লিঙ্গবিচার করেও ধর্ষণ করেন না।

 

ভারতের উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদে ঘটে যাওয়া আরেকটি বিভীষিকাময় ধর্ষণের ঘটনা চারিদিকে চাঞ্চল্য ফেলে দিয়েছে।  গাজিয়াবাদের মোদিনগরে গত বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ঘটেছে। তবে ধর্ষিত এবার এক ১৭ বছর বয়সী ছেলে।

 

১৭ বছর বয়সী সেই কিশোর বৃহস্পতিবার একটি মোটরসাইকেল সারাইয়ের দোকানে তার মোটরসাইকেল রেখে ফিরছিল। ফেরার পথে পাঁচ দুস্কৃতি তাকে ঘেরাও করে তার উপর চড়াও হয় এবং বিভিন্ন ভাবে তাকে যৌন হেনস্থা করে। শুধু যৌন হেনস্থাই নয়, নানারকম নিকৃষ্ট যৌন অত্যাচার করা হয় তার উপর। ধস্তাধস্তি থেকে আত্মরক্ষার চেষ্টা সবই  বিফলে যায়।

 

 লোহার রড ঢুকিয়ে দেওয়া হয় তার পায়ুছিদ্রে।

এই উগ্র শারীরিক ও যৌন অত্যাচার একের পর এক মনে করিয়ে দেয় ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে ঘটা ধর্ষণের পাশবিক উদাহরণকে। প্রায় প্রতি ক্ষেত্রেই দেখা গিয়েছে, ধর্ষণের পর নির্যাতিতকে কোনও ধাতব অস্ত্র দিয়ে একাধিকবার আঘাত করা হয়েছে। এরকম পাশবিকতা ঘৃণ্য মানসিকতা ও অসুস্থতার পরিচায়ক ছাড়া  কিছুই নয়।

 

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের একটি প্রতিবেদনে গাজিয়াবাদের পুলিশ সুপারইনটেনডেন্ট বৈভব কৃষ্ণ শনিবার জানান, পুরো ঘটনাটাই ঘটেছে সেই মোটরসাইকেল সারাইয়ের দোকানের ভিতরে। এত নির্মম যৌন অত্যাচার করার পরেও ক্ষান্ত হয়নি তারা। দ্বাদশ শ্রেণির সেই ছাত্রের থেকে হাতিয়েছে ১৬০০ টাকা।  

 

নির্যাতিতের বাবা ভারতীয় দণ্ডবিধি এবং পসকো এই দুটি অ্যাক্টে আইনি মামলা দায়ের করেছেন ধর্ষকের বিরুদ্ধে। জানা গিয়েছে, আগেও একাধিকবার তার ছেলেকে বিভিন্ন ভাবে হেনস্থা করত এদের মধ্যে একজন।  অপরাধীদের একজন পুলিশ কনস্টেবলের ছেলে।

 


Top