ঈদ শুভেচ্ছায় খালেদার চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগ ফখরুলের | daily-sun.com

ঈদ শুভেচ্ছায় খালেদার চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগ ফখরুলের

ডেইলি সান অনলাইন     ১৪ জুন, ২০১৮ ১৪:৩৬ টাprinter

ঈদ শুভেচ্ছায় খালেদার চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগ ফখরুলের

 

ঈদ শুভেচ্ছায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগ করেছেন দলের  মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বৃহস্পতিবার (১৪ জুন) দুপুরে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের মুসলমানদের ঈদ শুভেচ্ছা জানিয়েছেন গণমাধ্যমে পাঠানো এক বার্তায় এ অভিযোগ করেন তিনি।


মির্জা ফখরুল বলেন, মাসব্যাপী কঠোর সিয়াম সাধনার পর মুসলমানদের জীবনে অনাবিল শান্তি ও আনন্দের বার্তা নিয়ে আসে ঈদুল ফিতর। ঈদুল ফিতরের উৎসব মুসলমানদের নিবিড় ভ্রাতৃত্ববোধে উদ্বুদ্ধ করে। কিন্তু  এই আনন্দের দিনেও আমাদের মন ভালো নেই। কারণ দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা অভিযোগে অন্যায়ভাবে বন্দী করে রাখা হয়েছে। তাকে সুবিচার থেকে বঞ্চিত করে রাখা হয়েছে। অসুস্থ দেশনেত্রীকে উন্নত চিকিৎসা দিতে অবহেলা করে দিনে দিনে তার অসুস্থতাকে গুরুতর অবনতির দিকে ঠেলে দেয়া হচ্ছে।


তিনি বলেন, আমরা সকলে মিলে তার (খালেদা জিয়া) জন্য আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের নিকট দোয়া করবো তিনি যেন সুস্থ হয়ে ওঠেন ও সকল জুলুম থেকে মুক্তি পেয়ে খুব দ্রুত জনগণের মাঝে ফিরে আসতে পারেন।


বিএনপির মহাসচিব বলেন, প্রত্যাশা করছি দেশের বিদ্যমান ক্রান্তিকালে সকল সামাজিক ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে মুসলমানরা এক কাতারে দাঁড়িয়ে ঈদের আনন্দ নিজেরা ভাগ করে নেবে। তাই ঈদুল ফিতরে শিক্ষা থেকে আমাদের অঙ্গীকার হোক সকল হিংসা, বিদ্বেষ ও হানাহানি থেকে মুক্ত হয়ে ঐক্যবদ্ধ ও ভালোবাসাপূর্ণ সমাজ এবং দেশ গঠনের জন্য একযোগে কাজ করা।


বার্তায় মির্জা ফখরুল বলেন, ঈদুল ফিতরের পবিত্র দিনে বাংলাদেশের প্রতিটি গৃহে প্রবাহিত হোক শান্তির অমীয় ধারা। আমি বিশ্ব মুসলিমের অব্যাহত সুখ, শান্তি, সমৃদ্ধি ও কল্যাণ কামনা করি।  


উল্লেখ্য, গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন বিশেষ আদালত। এরপর পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরোনো কারাগারকে বিশেষ কারাগার ঘোষণা দিয়ে তাকে সেখানেই রাখা হয়েছে। নির্জন এই কারাগারে একমাত্র বন্দি হিসেবে গত ১২৭দিন ধরে কারাভোগ করছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।


ইতোমধ্যে আপিলের পর সর্বোচ্চ আদালত খালেদা জিয়াকে এই মামলায় জামিন দিয়েছেন। তবে আরও বেশ কয়েকটি মামলা চলমান থাকায় এখনই তিনি জামিন পাচ্ছেন না।


দীর্ঘ ৩৬ বছরের রাজনৈতিক জীবনে এর আগে একবার কারাগারে যেতে হয়েছিল বেগম খালেদা জিয়াকে। ২০০৭ সালের ৩ সেপ্টেম্বর সেনা-সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় তাকে গ্রেফতার করা হয়। তখন জাতীয় সংসদ ভবন এলাকার স্পিকারের বাসভবনকে সাবজেল ঘোষণা করে সেখানে রাখা হয়েছিল তাকে। ২০০৮ সালের ১১ সেপ্টেম্বর সুপ্রিম কোর্টের এক আদেশে খালেদা জিয়া মুক্তি পান। এরপর তিনি দুর্নীতি মামলায় দ্বিতীয় বার জেলে যান।

 


Top