ফেসবুক লাইভে কথা বলতে বলতেই আত্মঘাতী তরুণী | daily-sun.com

ফেসবুক লাইভে কথা বলতে বলতেই আত্মঘাতী তরুণী

ডেইলি সান অনলাইন     ১১ জুন, ২০১৮ ১৮:২০ টাprinter

ফেসবুক লাইভে কথা বলতে বলতেই আত্মঘাতী তরুণী

ফেসবুক লাইভে বন্ধুকে নিয়ে কথা বলছিল দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রীটি। আর কথা বলতে বলতেই সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী হল সে।

ঘটনাটি কলকাতার দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুরের।  

 পুলিশ সূত্রে খবর, রবিবার সকালে বছর সতেরোর মৌসুমী মিস্ত্রির দেহ যখন উদ্ধার হল, তখনও তার মোবাইলে খোলা থাকা ফেসবুক লাইভ মোডেই রয়েছে। আত্মঘাতী মৌসুমী সোনারপুরের কামরাবাদ হাই স্কুলের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী। সামনের বছরই তার উচ্চ মাধ্যমিকে বসার কথা ছিল।

 

প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে, প্রণয় ঘটিত কারণেই এই আত্মহত্যা। পুলিশ জানিয়েছে, স্থানীয় ঘাসিয়াড়ার বাসিন্দা এক তরুণের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল মৌসুমীর। তার সঙ্গে শনিবার একটি অনুষ্ঠানেও গিয়েছিল সে। সন্ধে সাড়ে ছ’টা নাগাদ বাড়ি ফিরে আসে। তার পর সে দিন রাতে ওই তরুণের সঙ্গে ফেসবুক লাইভে কথা বলতে বলতেই আত্মহত্যা করে বলেই অভিযোগ উঠছে।

 

 

কড়িকাঠে ওড়না জড়িয়ে আত্মহত্যার হুমকি দিচ্ছেন এক তরুণী। কথা বলতে বলতেই উঠে পড়লেন চেয়ারে। হঠাৎ গলায় ওড়না জড়িয়ে ঝুলে পড়ে ছটফট করতে করতে মারাও গেলেন!

 

এমন ঘটনা যখন ঘটছে, তখন তরুণীর মোবাইলে চলছে ফেসবুক লাইভে।

ওই তরুণীর আত্মহত্যার ‘লাইভ’ দেখলেন ভার্চুয়াল জগতের বন্ধুরা। ফেসবুকে চোখ রেখেছিলেন তাঁর ঘনিষ্ঠবৃত্তে থাকা বন্ধুরাও। অবাক করার বিষয়, তাঁদের মধ্যে কেউই ওই তরুণীকে বাঁচানোর চেষ্টা করলেন না বা তাঁর বাড়িতেও যোগাযোগ করলেন না!

 

কতই বা বয়স সোনারপুরের বৈদ্যপাড়ার বাসিন্দা মৌসুমী মিস্ত্রির। সবে ১৭, দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়া ছিলেন তিনি। শনিবার রাতে বন্ধুদের সঙ্গে পাড়ার জলসা দেখতে গিয়েছিলেন মৌসুমী। জলসায় গিয়েই বন্ধুদের সঙ্গে কোনও সমস্যায় জড়িয়ে পড়েন তিনি। তার পরেই বাড়ি ফিরে এমন কাণ্ড!

 


Top