জেলখানার ডাক্তারের কীর্তি! | daily-sun.com

জেলখানার ডাক্তারের কীর্তি!

ডেইলি সান অনলাইন     ৯ জুন, ২০১৮ ১৬:৩৩ টাprinter

জেলখানার ডাক্তারের কীর্তি!

সিনেমাকেও হার মানাবে এই ঘটনা। রোজের মতোই এ’দিন হাসপাতালে ঢুকেছিলেন ডাক্তারবাবু। জেলবন্দি বিচারাধীন রোগীদের স্বাস্থ্য যাঁর হাতে, তাঁকে সন্দেহ করার কোনও অবকাশই নেই। কিন্তু হঠাৎ তল্লাশির পর ডাক্তারবাবুর ঝোলা থেকে যা বেরলো, তাতে ভিরমি খাচ্ছেন সবাই।  

 

কলকাতার আলিপুর জেলের জেনারেল ফিজিশিয়ান অমিতাভ চৌধুরীর জেলের ভিতর প্রবেশ অবাধ। সন্দেহ  দূরে থাক, তাকে সমীহই করত কারারক্ষীরা। ফলে আলিপুর জেলে ঢোকা বেরনোর সময়ে তাকে খানা তল্লাশির বাইরেই রাখত। কিন্তু গত শুক্রবার নেহাত সন্দেহের বশে তল্লাশির সময় এই ডাক্তারের ব্যাগ থেকেই মিলল ৪ লিটার মদ, গাঁজা ও ৩০-৩৫ টি মোবাইল।

 

গত কয়েক বছর ধরেই আলিপুর জেলে তল্লাশি করে বার বার মোবাইল, মাদক উদ্ধার করেছে পুলিশ। সাময়িক ধড়পাকড়ের পর থেমে গিয়েছে পুলিশি তদন্ত। এত নিরাপত্তার মধ্যেও যে কী করে বার বার বিচারাধীন অপরাধীরা মাদক, মোবাইল অনায়াসে পেয়ে যায়, তার কূলকিনারা করতে ব্যর্থ হচ্ছিল পুলিশ।

কারণ মূল মাথার হদিশ পাওয়া যাচ্ছিল না।

 

সূত্রের খবর, অমিতাভ চৌধুরী ডিজি কারা অরুণকুমার গুপ্ত’র হাউস ফিজিসিয়ান ছিলেন। ফলে তার বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে কোনও সন্দেহের অবকাশও ছিল না। এদিনের ঘটনায় কার্যত মাথায় হাত পড়ে গিয়েছে বড়কর্তাদের। পুলিশের সন্দেহ, বহুদিন ধরে এই কারবার চালাচ্ছেন অমিতাভ চৌধুরী।

 

এ’দিন সকালে তাকে আলিপুর আদালতে তোলা হয়। আপাতত  আদালতের নির্দেশ‌ে তাকে পুলিশ হেফাজতে পাঠানো হয়েছে।

 


Top