মাদক সরবরাহে মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতা রয়েছে: স্বরাষ্ট্র সচিব | daily-sun.com

মাদক সরবরাহে মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতা রয়েছে: স্বরাষ্ট্র সচিব

ডেইলি সান অনলাইন     ৯ জুন, ২০১৮ ১৪:১৬ টাprinter

মাদক সরবরাহে মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতা রয়েছে: স্বরাষ্ট্র সচিব

 

দেশে মাদকের যে সরবরাহ সেটা মূলত মিয়ানমার থেকে আসে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্র সচিব ফরিদ উদ্দিন আহমদ। একই সঙ্গে তিনি বলেন, ‘মাদক নির্মূলে আমরা মিয়ানমার থেকে কোনও সহযোগিতা পাচ্ছি না।

’ আজ শনিবার (৯ জুন) সকালে রাজধানীর ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের কনফারেন্স রুমে বাংলাদেশ প্রতিদিন আয়োজিত 'মাদক বিরোধী অভিযান ও বাস্তবতা' শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্র সচিব।


তিনি বলেন, ১৯৯৪ সালে প্রথম মিয়ানমারের সঙ্গে চুক্তি হয়। চুক্তি অনুযায়ী প্রতি ২ বছর অন্তর অন্তর দ্বি-পক্ষীয় মিটিং হবে। মিটিং অনুযায়ী সিদ্ধান্ত হবে। কিন্তু প্রথমত তারা মিটিং করতে চায় না, মিটিং করতে চাইলে মিটিংয়ের সিদ্ধান্তে স্বাক্ষর করতে চায় না। স্বাক্ষর করতে চাইলে তা বাস্তবায়ন করতে চায় না। এটা দুঃখজনক।  


স্বরাষ্ট্র সচিব বলেন, ‘আমাদের দেশে মাদকের সরবরাহে মিয়ানমার সরকার ও সেনাবাহিনীর রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতা রয়েছে। ’


তিনি আরও বলেন, আমরা সবাই একমত মাদক প্রতিরোধ করতে হবে।

তাই মাদকের ভয়াবহতা এখন আলোচনার বিষয় নয়, মাদক নির্মূলের সময় চলে এসেছে।  


আর জাতীয় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের সদস্য ডা. অরুপ রতন চৌধুরী জানান, দেশে মাদকাসক্তের সংখ্যা প্রায় ৭০ লাখ রয়েছে, আর প্রতিবছর মাদকের পেছনে তারা ৬০ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করছেন। একই সঙ্গে সমাজে মাদকাসক্তির কারণ হিসেবে বন্ধুদের পাল্লায় পড়ে মাদক গ্রহণ, কৌতুহলবশত মাদক গ্রহণ, হতাশা, পরীক্ষায় ফেল, প্রেমে ব্যর্থতা, পারিবারিক প্রতিকূল পরিবেশ, ধর্মীয় ভাবাগের অনুপস্থিতি, মাদকের সহজ লভ্যতাকে উল্লেখ করেন।


ডা. অরুপ রতন চৌধুরী বলেন, তিনভাবে মাদকের প্রসার রোধ করা যায়, আর তা হলো- সাপ্লাই রিডাকশন, ডিমান্ড রিডাকশন ও হার্ম রিডাকশন।


বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজামের সঞ্চালনায় গোলটেবি আলোচনায় আরও উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় সচিব নাসির উদ্দিন আহমদ, মনোরোগ বিশেষজ্ঞ মোহিত কামাল, বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. জামালউদ্দিন আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. জিনাত হুদা, সুপ্রিম কোর্টের জেষ্ঠ আইনজীবী অ্যাডভোকেট বাসেত মজুমদার, নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আলী সিকদার (অব.), নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল মো. আব্দুর রশীদ (অব.), জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের মনোরোগ বিশেষজ্ঞ ডা.ফারজানা, জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার শেখ আসলাম, অভিনেতা পীযুষ বন্দোপাধ্যায়, চিত্রনায়ক জায়েদ খান, ডেইলি সান সম্পাদক এনামুল হক চৌধুরী, কালের কণ্ঠের সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন প্রমুখ।

 


Top