তিন জেলায় 'বন্দুকযুদ্ধে' মাদক ব্যবসায়ীসহ নিহত ৩ | daily-sun.com

তিন জেলায় 'বন্দুকযুদ্ধে' মাদক ব্যবসায়ীসহ নিহত ৩

ডেইলি সান অনলাইন     ৫ জুন, ২০১৮ ১১:৪৪ টাprinter

তিন জেলায় 'বন্দুকযুদ্ধে' মাদক ব্যবসায়ীসহ নিহত ৩

 

সারাদেশে চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে বগুড়া, রংপুরের কাউনিয়া ও গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে পুলিশের গুলিতে তিনজন নিহত হওয়া খবর পাওয়া গেছে। পুলিশের দাবি, বগুড়া ও রংপুরের কাউনিয়া নিহতরা মাদক ব্যবসায়ী ও গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে নিহত ব্যক্তি ডাকাত দলের সদস্য।

সোমবার (৪ জুন) দিনগত রাত ২টা থেকে মঙ্গলবার (৫ জুন) ভোর সাড়ে ৩টার মধ্যে এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে।


বগুড়া: বগুড়া শহরতলীতে গোয়েন্দা পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে লিটন ওরফে রিগেন (৩২) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। সোমবার (৪ জুন) দিনগত রাত দুইটার দিকে শহরতলীর মাটিডালী এলাকায় বন্দুকযুদ্ধের এ ঘটনা ঘটে।

 
লিটন চকসূত্রাপুরের মৃত আবুল কাশেমের ছেলে। বর্তমানে তিনি ফুলবাড়ি মধ্যপাড়ায় বাস করছিলেন।


ডিবির দাবি, লিটন এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। তার নামে থানায় ৫টি মাদকের মামলা রয়েছে।


বগুড়া অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) সনাতন চক্রবর্তী জানান, রাতে একদল মাদক ব্যবসায়ী মাটিডালী বিমান মোড়ের পাশে কমার্স কলেজ সংলগ্ন এলাকায় মাদকের চালান হাতবদল করছে— এমন সংবাদে ডিবি পুলিশ অভিযানে যায়।  


উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে মাদক কারবারিরা গুলি ছোড়ে।

পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এক পর্যায়ে মাদক কারবারিরা পিছু হটলে লিটনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে শহীদ জিয়া মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে নিলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।


ঘটনাস্থল থেকে দুটি চাপাতি ও ২০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।


বন্দুকযুদ্ধে ডিবি পুলিশের কনস্টেবল মিন্টু ও কালাম আহত হয়েছেন। তাদের পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে বলেও জানান সনাতন চক্রবর্তী।


রংপুর: রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার হারাগাছ এলাকায় পুলিশের সঙ্গে তথাকথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রবিউল ইসলাম নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে।


পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তারা জানতে পারে একদল মাদক ব্যবসায়ী হারাগাছ এলাকায় অবস্থান করছে । পরে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গেলে মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি করে। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এতে মাদক ব্যবসায়ী রবিউল ইসলাম নিহত হয় এবং অন্যান্য মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে বেশ কিছু মাদক দ্রব্য উদ্ধার করা হয়েছে।


কাউনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল আজিজ গণমাধ্যমকে জানান, নিহত রবিউল ইসলাম একজন কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী। তার নামে ১০টি মাদক আইনে মামলা রয়েছে। তার লাশ রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।


গোপালগঞ্জ: এদিকে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলায় ডাকাতি করতে গিয়ে পুলিশের গুলিতে তোতা মন্ডল (৪৫) নামে এক ডাকাত নিহত হয়েছে। এ সময় গ্রেফতার করা হয়েছে আরও দুই ডাকাতকে। মঙ্গলবার ভোর সাড়ে তিনটার দিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ধুসর ব্রিজ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।


নিহত ডাকাত তোতা মন্ডল রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার চর বিকরা গ্রামের খবির উল্লাহ মন্ডলের ছেলে। গ্রেফতার দুই ডাকাত হলো- রাজবাড়ী জেলার শ্রীপুর গ্রামের কাশেম মন্ডলের ছেলে হারান মন্ডল (৩০) ও ঝিনাইদহ জেলার ৩নং পানির ট্যাংকিপাড়ার রজব আলীর ছেলে আবির হাসান (৩২)।


কাশিয়ানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আজিজুর রহমান গণমাধ্যমকে জানান, সোমবার দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ধুসর ব্রিজের কাছে রাস্তায় গাছ ফেলে ট্রাক ও বাসে ডাকাতি করছিল ৭-৮ সদস্যের ডাকাত দল। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলে ডাকাত সদস্যরা ভাটিয়াপাড়ার দিকে রেললাইন ধরে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে পুলিশ ও স্থানীয় জনতা তাদের পিছু নেয়। এসময় ডাকাত সদস্যরা পুলিশকে লক্ষ্য করে পাথর ছুঁড়তে থাকে। তাদের ছোড়া পাথরের আঘাতে পুলিশ কনস্টেবল আজিজুল আহত হয়। এসময় পুলিশ আত্মরক্ষার্থে গুলি ছুড়লে তোতা মন্ডলের পায়ে গুলিবিদ্ধ হয় এবং তাকেসহ অন্য দুই ডাকাত সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। পরে খুলনা মেডিক্যাল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় তোতা মন্ডল।


তিনি আরও জানান, আহত ডাকাতদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ময়না তদন্ত শে‌ষে নিহত ডাকাত সদ‌স্যের লাশ তার পরিবারের কা‌ছে হস্তান্তর করা হবে।

 


Top