অধ্যক্ষকে পেটানো ও চাঁদাবাজির মামলায় কারাগারে রনি | daily-sun.com

অধ্যক্ষকে পেটানো ও চাঁদাবাজির মামলায় কারাগারে রনি

ডেইলি সান অনলাইন     ৪ জুন, ২০১৮ ১৮:২৩ টাprinter

অধ্যক্ষকে পেটানো ও চাঁদাবাজির মামলায় কারাগারে রনি

কলেজ অধ্যক্ষকে পেটানো ও ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবির ঘটনায় দায়ের মামলায় চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। সোমবার চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম ওসমান গণির আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন রনি।

বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। মামলা সূত্রে জানা গেছে, দাবিকৃত ২০ লাখ টাকা চাঁদা না পেয়ে গত ৩১ মার্চ চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ জাহেদ খানকে তার কার্যালয়ে বেদম মারধর করেন রনি।

 

 

পরে ওই ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এরপর রনির বিরুদ্ধে মামলা নিতে বাধ্য হয় নগরের চকবাজার থানা। পরে রনিও এক বিবৃতির মাধ্যমে কলেজ অধ্যক্ষকে মারধরে নিজের দোষ স্বীকার করেন এবং ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

 

নগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (প্রসিকিউসন) কাজী সাহাবুদ্দীন আহমেদ জানান, চাঁদা না পেয়ে মারধরের অভিযোগ এনে গত ৩ এপ্রিল নগরের চকবাজার থানায় রনির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন বিজ্ঞান কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ জাহেদ খান। পরে উচ্চ আদালত থেকে জামিন নেন রনি।

 

 

তিনি আরও জানান, জামিনের মেয়াদ শেষ হলে সোমবার নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করে ফের জামিন চান রনি। আদালত এ আবেদন নাকচ করে তাকে জেলে পাঠানোর আদেশ দেন।

 

 

সংশ্লিষ্টরা জানান, গত ৩১ মার্চ নগরীর চকবাজার থানাধীন চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজ ক্যাম্পাসে গিয়ে অধ্যক্ষ জাহেদ খানকে প্রকাশ্যে মারধর করেন রনি। কলার চেপে ধরে টেনে-হিঁচড়ে নিয়ে তাকে চড়-থাপ্পড় মারেন। পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে উন্নয়ন ফির নামে অতিরিক্ত ৫ হাজার টাকা আদায়ের অজুহাত দেখিয়ে রনি অধ্যক্ষকে মারধর করেন।

 

 

এ ঘটনার পর অধ্যক্ষ রনি ছাড়াও সুনির্দিষ্ট আরও সাতজন এবং অজ্ঞাতনামা ২৫/৩০ জনকে আসামি করে মামলা করেন। তবে দুই মাসেরও বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও রনিকে গ্রেফতার করেনি পুলিশ। অবশেষে আজ আদালত তাকে কারাগারে পাঠাল।

 

 

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের অক্টোবরে ছাত্রলীগের চট্টগ্রাম মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক হন নুরুল আজিম রনি। পদ পেয়ে জেলায় নানা ঘটনার জন্ম দিয়ে আলোচনায় আসেন তিনি। এর মধ্যে হাটহাজারীতে ভোটকেন্দ্রে প্রভাব বিস্তার করতে গিয়ে অস্ত্রসহ ধরা পড়লে ২ বছরের কারাদণ্ড হয় তার।

 

 

চলতি বছরের ১৭ ফেব্রুয়ারি নগরীর জিইসি মোড় এলাকায় ইউনিএইড কোচিং সেন্টারের মালিক রাশেদ মিয়াকে মারধর করেন রনি। পরে এই মারধরের ভিডিও ভাইরাল হলে চট্টগ্রাম মহানগরের সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে তাকে অব্যাহতি দেয় ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি।

 


Top