খালেদার কারাবাসে ফের জাতিসংঘের উদ্বেগ | daily-sun.com

খালেদার কারাবাসে ফের জাতিসংঘের উদ্বেগ

ডেইলি সান অনলাইন     ৩ জুন, ২০১৮ ১২:১৪ টাprinter

খালেদার কারাবাসে ফের জাতিসংঘের উদ্বেগ

 

সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কারাবাসের ঘটনায় আবারও উদ্বেগ জানিয়েছে জাতিসংঘ। শুক্রবার (১ মে) জাতিসংঘ সদর দফতরের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে কারাগারে খালেদা জিয়ার প্রতি অমানবিক আচরণ প্রসঙ্গে এক প্রতিক্রিয়ায় জাতিসংঘের অবস্থান তুলে ধরেন মহাসচিবের ডেপুটি মুখপাত্র ফারহান হক।


প্রশ্নোত্তর পর্বের শুরুতেই খালেদা জিয়ার বিষয়ে প্রশ্ন উত্থাপন করেন বাংলাদেশি এক সাংবাদিক। তিনি বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কারাগারে অমানবিক অবস্থায় আটক রয়েছেন। কারাগারে যেখানে রাখা হয়েছে সেখানে প্রায়ই বিদ্যুৎ থাকে না। তাকে যে খাবার দেয়া হয় তাও অত্যন্ত নিম্নমানের। যদিও তিনি বিতর্কিত এ মামলাটিতে জামিন পেয়েছিলেন কিন্তু সরকার তাকে মুক্তি দেয়নি। এ বিষয়ে ফারহান হকের বক্তব্য জানতে চান তিনি।


খালেদা জিয়ার ব্যাপারে জাতিসংঘ আগের অবস্থানে রয়েছে জানিয়ে ফারহান হক বলেন, ‘এ বিষয়টিতে আমরা ইতিমধ্যে আমাদের উদ্বেগ প্রকাশ করেছি। মামলার প্রক্রিয়া নিয়ে অতীতে যে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছি তার বাইরে নতুন কোনো তথ্য আমার কাছে নেই। ’


প্রসঙ্গত, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৪৩ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় একটি মামলা করে দুদক।

২০১০ সালের ৫ আগস্ট তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন দুদকের উপ-পরিচালক হারুন-অর-রশীদ। ২০১৪ সালের ১৯ মার্চ তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন ঢাকার তৃতীয় বিশেষ জজ আদালতের বিচারক বাসুদেব রায়। গত ৮ ফেব্রুয়ারি, বৃহস্পতিবার দুপুরে পুরান ঢাকার বকশীবাজারে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালতের বিচারক ড. আখতারুজ্জামান জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় রায় ঘোষণা করেন। রায়ে বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর এবং সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, মাগুরার সাবেক সংসদ সদস্য (এমপি) কাজী সলিমুল হক কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমানকে ১০ বছর করে কারাদণ্ডাদেশ এবং দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

 


রায়ের পর পরই খালেদা জিয়াকে আদালতের পাশে নাজিমউদ্দিন রোডের ২২৮ বছরের পুরান ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। নির্জন এই কারাগারে একমাত্র বন্দি হিসেবে গত ১১৬দিন ধরে কারাভোগ করছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।


ওই মামলায় আপিলের পর খালেদা জিয়াকে চার মাসের জামিন দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। যেটি গত বৃহস্পতিবার (১৭ মে) বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ। কিন্তু খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে আরও ৩৬টি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে কুমিল্লায় ৩টি, ঢাকায় ২টি ও নড়াইলের ১টি মামলায় তিনি জামিনে নেই। এর মধ্যে কুমিল্লার নাশকতা ও হত্যার দুই মামলায় হাইকোর্ট জামিন দিলেও পরেও ওই জামিনাদেশ ২৪ জুন পর্যন্ত স্থগিত করেছেন আপিল বিভাগ।   কারামুক্তি পেতে এসব মামলায় তাকে জামিন নিতে হবে। পাশাপাশি ৪টি মামলায় হাজিরা পরোয়ানা প্রত্যাহারের প্রয়োজন রয়েছে। যার মধ্যে একটিতে আদালত ইতোমধ্যেই হাজিরা পরোয়ানা প্রত্যাহারের আদেশ দিয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকার দুটি মামলায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা কার্যকরের জন্য গত ১৭ মে নির্দেশ দিয়েছে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালত। একইসঙ্গে ৫ জুলাই পরোয়ানা সংক্রান্ত তামিল প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দিন ধার্য রেখেছে আদালত। এ দুটি মামলায় খালেদা জিয়ার পক্ষে জামিন চাওয়া হলেও এ বিষয়ে কোনো আদেশ দেয়নি আদালত বলে জানান তার আইনজীবীরা।


প্রসঙ্গত, দীর্ঘ ৩৬ বছরের রাজনৈতিক জীবনে এর আগে একবার কারাগারে যেতে হয়েছিল বেগম খালেদা জিয়াকে। ২০০৭ সালের ৩ সেপ্টেম্বর সেনা-সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় তাকে গ্রেফতার করা হয়। তখন জাতীয় সংসদ ভবন এলাকার স্পিকারের বাসভবনকে সাবজেল ঘোষণা করে সেখানে রাখা হয়েছিল তাকে। ২০০৮ সালের ১১ সেপ্টেম্বর সুপ্রিম কোর্টের এক আদেশে খালেদা জিয়া মুক্তি পান। এরপর তিনি দুর্নীতি মামলায় দ্বিতীয় বার জেলে যান।

 

আরও পড়ুন:

 

কুমিল্লার নাশকতা ও হত্যা মামলায় খালেদার জামিনাদেশ ২৪ জুন পর্যন্ত স্থগিত

 

কুমিল্লার নাশকতা ও হত্যা মামলায় খালেদার জামিন চেম্বারে স্থগিত

 

কুমিল্লার দুই মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন

 

জাতীয় পতাকা অবমাননা ও ভুয়া জন্মদিন পালন মামলায় খালেদার জামিন শুনানি আজ

 

জামিন পেলেও এখনি মুক্তি পাচ্ছেন না খালেদা: মওদুদ

 

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সুপ্রিম কোর্টে খালেদার জামিন বহাল

 

খালেদা জিয়ার জামিন বিষয়ে রায় মঙ্গলবার

 

খালেদার মুক্তির দাবিতে ৮ দিনের কর্মসূচি বিএনপির

 

খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে কারাগারে পরিবারের ৫ সদস্য

 

খালেদা ‘আনফিট’: ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার পরবর্তী শুনানি ১০ মে


খালেদা জিয়া সবার সঙ্গে দেখা করতে চান না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

 

খালেদার দেখা পাননি ফখরুলসহ তিন নেতা

 

খালেদার শরীরে এমন কোনও রোগ নেই, যার চিকিৎসা এদেশে সম্ভব নয়: ডা. শামসুজ্জামান

 

কারা কর্তৃপক্ষকে খালেদার এক্সরে রিপোর্ট হস্তান্তর

 

স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে ফের কারাগারে খালেদা জিয়া

 

আপাতত দৃষ্টিতে খালেদা জিয়া ভালো আছেন: বিএসএমএমইউ পরিচালক

 

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে লিফলেট বিতরণ

 

উচ্চ আদালতের ইতিহাসে নজিরবিহীন ঘটনা: মওদুদ

 

খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিতের আদেশ নজিরবিহীন: জয়নুল আবেদীন

 

খালেদার জামিন ৮ মে পর্যন্ত স্থগিত

 

খালেদার জামিনের বিরুদ্ধে দুদকের লিভ টু আপিল

 

খালেদা জিয়ার জামিন রবিবার পর্যন্ত স্থগিত

 

চেম্বারেও খালেদার জামিন বহাল, পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে শুনানি কাল

 

খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিত চেয়ে দুদকের আবেদন

 

খালেদা জিয়ার জামিনের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার আপিল

 

যে চার গ্রাউন্ডে জামিন পেলেন খালেদা জিয়া

 

জামিন পেলেন খালেদা জিয়া

 

 


Top