কোলের শিশু উধাও, পাওয়া গেল রক্তমাখা দেহ! | daily-sun.com

কোলের শিশু উধাও, পাওয়া গেল রক্তমাখা দেহ!

ডেইলি সান অনলাইন     ২২ মে, ২০১৮ ১৭:১৯ টাprinter

কোলের শিশু উধাও, পাওয়া গেল রক্তমাখা দেহ!

রাতে মায়ের কোলে ঘুমিয়ে ছিল দেড়মাসের শিশু পুত্র৷ সকালে উঠে মা দেখেন শিশু উধাও। খোঁজার পরে মশারির বাইরে মিলল শিশুর রক্তমাখা দেহ।

সঙ্গে সঙ্গে শিশুকে কোলে তুলতে গিয়ে মা দেখেন, শিশুর ডান হাত কাটা, শরীরের বিভিন্ন অংশ ছিন্নভিন্ন হয়ে রয়েছে৷ শুধু পড়ে রয়েছে নিথর দেহ!

 

ঘটনাটি ঘটেছে এক আদিবাসী পাড়ায়। ওই পাড়ারই এক ভদ্রমহিলাকে সকলে ডাইনি বলে মনে করে। মৃত শিশুর পরিবারের লোকেদের সঙ্গে মিলেমিশে প্রতিবেশীরা ওই মহিলাকে মারধর করেন এবং ভাংচুর করেন তাঁর বাড়ি।  

 

 ভারতের পশ্চিম মেদিনীপুরের মোহনপুর ব্লকের উত্তর মোহনপুর গ্রামের ঘটনা। আদিবাসী-অধ্যুষিত ওই এলাকার বাসিন্দা বাপি কিস্কু ও পান কিস্কুর দেড় মাসের ওই পুত্রসন্তানের রহস্যময় মৃত্যুকে ঘিরে এভাবেই ছড়াল চাঞ্চল্য।

 

রোজকার মতো রাতের খাওয়া দাওয়া করে সকলেই নিজেদের ছিটে বেড়ার বাড়িতে ঘুমিয়ে ছিলেন৷ ভোরে ঘুম ভেঙে প্রথমে পান কিস্কু নিজের ছেলেকে খুঁজে না পেয়ে ঘাবড়ে যান। দ্রুত খোঁজ করতে গিয়ে দেখতে পান মশারি থেকে খানিকটা দূরে নিথর অবস্থায় শিশুটি পড়ে রয়েছে৷ দ্রুত তাকে তুলতে গিয়ে দেখেন নিথর হয়ে রয়েছে তার দেহ, ডান হাতটিও নেই৷ শরীরের বিভিন্ন অংশ ছিন্নভিন্ন, রক্তাক্ত!

 

শিশুটিকে উদ্ধার করে দ্রুত হাসপাতালে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।  তার পর থেকেই ওই আদিবাসী এলাকাতে চাঞ্চ্যল্য তৈরি হয়। এর পরই তারা চড়াও হয় বাসন্তী সরেন নামের ওই মহিলার উপরে।

তাকেও সকলে মনে করে ডাইনি!

 

খবর পেয়ে এলাকায় আসে মোহনপুর থানার পুলিশ৷ পুলিশ বাসন্তী সরেনকে উদ্ধার করেছে৷ অন্যদিকে মৃত শিশু রবি কিস্কুর দেহ ময়নাতদন্তে পাঠিয়ে তদন্তে নেমেছে পুলিশ। স্বাভাবিক ভাবেই ডাইনি তত্ত্ব মানতে রাজি নয় পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তের পরে পুলিশের অনুমান, কোনও হিংস্র প্রাণীই সবার অলক্ষ্যে এই কাজ করেছে।  

 


Top