লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার মিম মানতাশা | daily-sun.com

লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার মিম মানতাশা

ডেইলি সান অনলাইন     ১২ মে, ২০১৮ ১০:১৩ টাprinter

লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার  মিম মানতাশা

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আলো ঝলমলে মঞ্চে কখনো অভিনয়, কখনো নৃত্যে মাতিয়ে রাখেন পরির সাজে মঞ্চে আসা পাঁচ তরুণী। লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালে উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার ছুটির দিনে বসেছিল তারার মেলা।

তাতে সেরা পাঁচ প্রতিযোগীর মধ্যে সৌন্দর্যের পাশাপাশি বুদ্ধিমত্তা প্রদর্শন করে লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার নির্বাচিত হয়েছেন মিম মানতাশা।

 

প্রতিযোগিতার কঠিন সব ধাপ পেরিয়ে বিচারক ও দর্শকের ভোটের পাশাপাশি সামগ্রিক পারফরম্যান্সের বিচারে এবারের আসরে সেরার মুকুট পরলেন তিনি। পুরস্কার হিসেবে পেয়েছেন পাঁচ লাখ টাকার চেক ও একটি ব্র্যান্ড নিউ গাড়ি। এ ছাড়া তিনি লাক্স প্রযোজিত নাটকে অভিনয়ের সুযোগ পাবেন।

 

প্রথম রানার-আপ হয়েছেন সারওয়াত আজাদ বৃষ্টি, দ্বিতীয় রানার-আপ হয়েছেন সামিয়া আক্তার অথৈ। তাঁরা যথাক্রমে পেয়েছেন চার লাখ ও তিন লাখ টাকা। তাঁদের হাতে পুরস্কারের অর্থমূল্যের চেক তুলে দেন চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর।

 

গত রাতে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের হল অব ফেমে আয়োজিত তারকাবহুল জমকালো সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হয়ে গেল লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতার এবারের আসর।

অগ্নিপরীক্ষার মঞ্চে এবারের প্রতিযোগিতায় প্রধান তিন বিচারক সাদিয়া ইসলাম মৌ, তাহসান খান ও আরিফিন শুভর সঙ্গে বিশেষ বিচারক হিসেবে প্যানেলে আসেন সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, নাট্যব্যক্তিত্ব আলী যাকের, অভিনেত্রী রুমানা রশীদ ঈশিতা।

  

   

‘চ্যানেল আই প্রেজেন্ট লাক্স সুপারস্টার’-এর এবারের মূল প্রতিপাদ্য ‘দেখিয়ে দাও অদেখা তোমায়’। এ প্রতিপাদ্যে মঞ্চে নানা ক্যাটাগরিতে পারফর্ম করেন সেরা পাঁচ প্রতিযোগী।

অনুষ্ঠানের শুরুতে শীর্ষ পাঁচ প্রতিযোগী সামিয়া অথৈ, মিম মানতাশা, সারওয়াত আজাদ বৃষ্টি, ইশরাত জাহিন ও নাবিলা আফরোজকে নিয়ে একটি প্রামাণ্যচিত্র দেখানো হয়। এরপর এবারের লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতার টাইটেল ট্র্যাক ‘তুমি অদম্য, অজেয়’ গানের সঙ্গে পারফর্ম করেন তাঁরা।

 

এরপর সাদিয়া ইসলাম মৌ, তাহসান খান ও আরিফিন শুভ তিনটি মিউজিক্যাল কোরিওগ্রাফির সঙ্গে পারফর্ম করেন। তাহসান খান পারমর্ফ করেন নিজের গানের সঙ্গে। পরে মৌ ও তাঁর দলের  কোরিওগ্রাফিতে ফুটে ওঠে নারীশক্তির জাগরণের কথা।

 

তিন মাসের পথপরিক্রমায় প্রায় ১২ হাজার প্রতিযোগীকে পেছনে ফেলে সেরার মঞ্চে এসে দাঁড়ান পাঁচ তরুণী। রূপ, সৌকর্যের লড়াইয়ে চূড়ান্ত আসরে অগ্নিপরীক্ষায় তাঁরা মুখোমুখি হন কঠিন সব প্রশ্নের। আসাদুজ্জামান নূর, আলী যাকের, রুমানা রশিদ ঈশিতা, সাদিয়া ইসলাম মৌদের কঠিন সব প্রশ্নে ভিরমি খান সবাই। এসব প্রশ্নের উত্তরে বিচারকদের খুব একটা প্রসন্ন হতে দেখা যায়নি।

 

এর আগে স্বাগত বক্তব্য দেন চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ইউনিলিভার বাংলাদেশের পারসোনাল কেয়ার বিভাগের পরিচালক নাফিস আনোয়ার।

 


Top